বিনোদন

বাউল কল্যাণ সমিতির ঘোষণা ‘নিষ্ঠুর বন্ধুরে’ গানের রচয়িতা রহিম উদ্দিন

ডাক ডেস্ক ঃ প্রকাশিত হয়েছে: ২৯-০১-২০১৮ ইং ০০:৩৮:৩৭ | সংবাদটি ১১৫ বার পঠিত

‘নিষ্ঠুর বন্ধুরে পাষাণ বন্ধুরে/তোর মনে কি দয়ামায়া নাইরে’ এই বাউলগান নিয়ে দুই গীতিকার ও তাদের সমর্থকদের দ্বন্দ্বের ব্যাপারে বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগ সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে। এই গানটি যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিম উদ্দিন এবং কুয়েত প্রবাসী ফারুক মিয়া তাদের লেখা বলে দাবি করে আসছিলেন। এতে দু’পক্ষের দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয় এবং প্রায় তিন মাস যাবৎ সিলেটের বাউল অঙ্গনে উত্তপ্ত পরিস্থিতি বিরাজ করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগ বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করে এবং গানটি যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিমুদ্দিনের লেখা বলে সমিতির গঠিত ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত দিয়েছে।
‘নিষ্ঠুর বন্ধুরে পাষাণ বন্ধুরে’ গানটি ২০১৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর ছাতক উপজেলার মঈনপুরে যুক্তরাজ্য প্রবাসী রহিমুদ্দিনের বাড়িতে একটি অনুষ্ঠানে পরিবেশন করেন হারমোনিয়াম বাদক ও বাউলশিল্পী শফিক মিয়া। তিনি এ সময় উল্লেখ করেন যে, এ গানটি রহিম উদ্দিন লিখেছেন। রুবেল নামক ব্যক্তি তার ফেসবুক আইডি থেকে এ অনুষ্ঠান লাইভ এবং কুয়েত প্রবাসী রহিম উদ্দিন ফেসবুকে ‘তার বাউল গানের ভা-ার’ পেইজে গানটি পোস্ট করেন। পরবর্তীকালে বাউলশিল্পী শফিক মিয়া এই গানটি তার ফেসবুক আইডিতে শেয়ার করার পর কুয়েত প্রবাসী ফারুক মিয়া দাবি করেন, গানটি তিনি লিখেছেন। এখান থেকেই গানটির রচয়িতা নিয়ে বিরোধের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে বিশ্বনাথে বাউলশিল্পী সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের একাধিক বৈঠক হয়। কিন্তু কোনো বৈঠকেই সুষ্ঠু সমাধান দেয়া হয়নি।
গানটি রচনার দাবি নিয়ে বিরোধ নিরসনের লক্ষ্যে বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের আহবায়ক কামাল উদ্দিন রাসেল গত ২৫ ডিসেম্বর ১১ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেন। কমিটির আহবায়ক গীতিকবি ইরন মিয়া, যুগ্ম আহবায়ক বাউলশিল্পী সিরাজ উদ্দিন এবং সদস্য বাউলশিল্পী লাল মিয়া, রানু সরকার, সূর্যলাল দাস, জুয়েল মিয়া, মুজিব মালদার, হেলাল খান, উদাসী মুজিব, যন্ত্র শিল্পী শৈলেন দাস ও তোতা মিয়া। কমিটির সদস্যরা গত ৭ জানুয়ারি নগরীর তালতলায় একটি হোটেলের সম্মেলনকক্ষে সভায় মিলিত হন। কমিটির সদস্য তোতা মিয়া অসুস্থ থাকায় তার অনুপস্থিতিতে বাউলশিল্পী হারুন মিয়াকে কমিটিতে কো-অপ্ট করা হয় এবং তিনি সভায় উপস্থিত ছিলেন।
কমিটির ১১জন সদস্য ১৬টি বিচার্য বিষয় পর্যালোচনা করে ওই গানটি রহিম উদ্দিনের লেখা বলে সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন। সবকিছু পর্যালোচনা করে কমিটির সকল সদস্য সিদ্ধান্ত দেন যে, সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে প্রমাণিত হয় যে, ওই গানটি লন্ডন প্রবাসী রহিম উদ্দিন লিখেছেন। তবে কেউ চাইলে এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে দুমাসের মধ্যে আপিল করতে পারবে।
১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির আহবায়ক গীতিকবি ইরন মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাউল কল্যাণ সমিতি সিলেট বিভাগের আহবায়ক কামাল উদ্দিন রাসেল, বাউলশিল্পী শফিক মিয়া, বাউলশিল্পী জি.এস. বশর, বাউলশিল্পী জালালী পারভেজ, বাউলশিল্পী শীতন বাবু, বাউলশিল্পী জাকির হোসেন, বাউলশিল্পী ইকরাম উদ্দিন, যন্ত্রশিল্পী তৈমুছ আলী, বাউল আব্দুল খালিক, সংগীতানুরাগী রুহুল ইসলাম, হাবিবুর রহমান অপূর্ব, জাহাঙ্গীর আলম ও রহিমউদ্দিন।-প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

শেয়ার করুন
বিনোদন এর আরো সংবাদ
  • ছেলে আব্রামকে নিয়ে সৌদি যাচ্ছেন শাকিব!
  • বিশ্ববাসীকে রোহিঙ্গা শিশুদের পাশে দাঁড়াতে বললেন প্রিয়াঙ্কা
  • পোড়ামন-২ ‘ও হে শ্যাম’ ইউটিউবে
  • নয়া জুটি বাপ্পী ও অপু বিশ্বাস
  • এক গানের পারিশ্রমিক ৫০ লাখ!
  • জাহিদ সাপোর্ট করে আর্জেন্টিনা, চঞ্চল ব্রাজিল, আর তিশা
  • তাজিনের অজানা তথ্য জানালেন মেকাপ আর্টিস্ট!
  • সালমানের ‘রেইস থ্রি’তে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জ্যাকোর গান
  • সোনম কাপুরের সত্যি সত্যি বিয়ে
  • মৌ-জয়ার চমক
  • কানের লালগালিচায় ঐশ্বরিয়ার দাপট
  • অপুর নতুন খবর!
  •  অ্যাভেঞ্জারদের অসীম যুদ্ধে চুরমার বক্স-অফিস
  •  হাফসেঞ্চুরির পথে প্রসেনজিৎ ও ঋতুপর্ণা
  • শরৎচন্দ্রের পার্বতী রুপে পপি
  • শাকিব যাদুতে হলমুখী দর্শক
  • ফারিয়া ও পড়শীর গানে সমালোচনার ঝড়
  • বিয়ের এক দিন পরই উড়াল
  • অবশেষে দেখা মিলল রুবেলের স্ত্রীর
  • মাইকেল জ্যাকসনের মেয়ের বিনীত অনুরোধ
  • Developed by: Sparkle IT