শিশু মেলা

স্বাধীন

ধীরেন্দ্র কুমার দেবনাথ শ্যামল প্রকাশিত হয়েছে: ০১-০২-২০১৮ ইং ০০:০৬:০৭ | সংবাদটি ১৬৭ বার পঠিত


-স্বাধীন, বাড়ি আছো? স্বাধীন বাড়ি আছো?
-কে? অহ্ কাকু। না, আপনার ভাতিজা বাড়ি নেই। বসেন কাকু।
-তুমি ভালো আছো বৌমা?
-আমি ভালো, আপনি ভালো আছেন তো কাকু। বসেন, বসেন।
-আমার দাদু ভাইয়েরা কেমন আছে? ভালো-তো-?
-অনেক দিন পর এলেন একটা গল্প বলেন না দাদু।
সবুজ বলল এটা মার্চ মাস। ২৬শে মার্চ কী দিবস দাদু?
সরুজ বলল-কেন? তুই জানিস না? স্বাধীনতা দিবস।
সুজিত বলল-দাদু, বলেনতো মার্চ মাসে দুটো দিবস কী কী?
দাদু হাসলেন। হেসে বললেন-সুজিত তুমি সুন্দর এবং গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন করেছ। তোমাকে ধন্যবাদ জানাই প্রশ্ন করার জন্য। আমি আশীর্ব্বাদ করি অনেক বড় হবে।
১৭ই মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন, যা বর্তমানে ‘শিশু দিবস’ হিসাবে জাতীয়ভাবে পালন করা হয়। অন্যটি ‘স্বাধীনতা দিবস’। তোমরা বলেছিলে গল্প বলার জন্য। আজ তোমাদের স্বাধীনতা দিবসের গল্প শুনাব।
গল্প বলার আগে একটি প্রশ্ন করি-তোমাদের বাবার নাম কী?
কেন? স্বাধীন (তিন জন এক সাথে বলে ওঠে)।
জানো-তোমাদের বাবার নাম স্বাধীন রাখা হলো কেন? আজ সে গল্পটাই বলব।
সেই ১৯৭১ সালের কথা। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ই মার্চ রেসকোর্স ময়দানে এক ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন-‘এবারের সংগ্রাম, আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম’।-তারই ফলশ্রুতিতে ২৬শে মার্চকে ‘স্বাধীনতা দিবস’ ঘোষণা করা হয়। দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের ফলে ১৬ই ডিসেম্বর দেশ বিজয় লাভ করে। তাই ১৬ই ডিসেম্বরকে ‘বিজয় দিবস’ বলা হয়। বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামে একটি দেশ স্বীকৃতি লাভ করে।
সবুজ বলল-আচ্ছা দাদু-যুদ্ধের সময় তোমরা কোথায় ছিলে?
দাদু বললেন-আমি সে সময় ছোট ছিলাম। সবাই ভারত চলে গিয়েছিলাম। তোমার দাদু যুদ্ধ করেন।
সরুজ বলে, তাহলে-দাদু মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন?
সবুজ বলল-দাদু মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন-কী মজা, তাই না? বর্তমানে যুদ্ধ লাগলে আমি যুদ্ধ করব। মুক্তিযোদ্ধা হব।
সুজিত-বলল-উহ ভীতুর ডিম! আর উনি যুদ্ধ করবেন।
সবুজ বলে, আর তুমি সাহসী। রাতে যে ঘরের বাহিরে যাবার সাহস নেই, আমরা জানি না?
সরুজ বলল-দাদু। আপনি যুদ্ধ করেননি কেন?
দাদু বলেন, আমি খুব ছোট ছিলাম। ঠিক সবুজের মতো, ৫/৬ বছর বয়স। তাই আমাকে ওরা যুদ্ধে নেয় নাই।
এর মধ্যে বৌমা এসে বললেন, কাকু, চা-নাস্তা তৈরি। খাবেন-আসুন। এই সবাই চল। চা-নাস্তা সেরে আবার গল্প বলা যাবে। সবাই চল।
১৯৮৬ সালের ২৬শে মার্চ তোমাদের বাবার জন্ম হয়। সেই দিন ছিল আমাদের স্কুলে ‘স্বাধীনতা দিবস’ উদযাপন উপলক্ষে খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আমি স্কুল থেকে দৌড়ে এলাম এবং সাথে সাথে নাম রাখলাম ‘স্বাধীন’। সেই থেকে তোমাদের বাবার নাম-স্বাধীন।
দাদু-দাদু ভাইয়েরা, আজ তাহলে উঠি। অন্যদিন আবার গল্প শোনা যাবে। তোমরা ভালো থেকো।
সবুজ, সরুজ, সুজিত এক সাথে বলে উঠলো আপনিও ভালো থাকবেন দাদু ভাই।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT