সাহিত্য

কবিতা

প্রকাশিত হয়েছে: ০৪-০২-২০১৮ ইং ০২:৩৯:৪৮ | সংবাদটি ১২৩ বার পঠিত

প্রণয়
গাজী আবদুল্লাহেল বাকী
আঁধারের চেতনা কঠিন, ঘনঘন প্রেতের নিশ্বাস ঘিরে আছে চতুর্দিক,
ফিনিস্কের মতো আঁধারের বুক ভাঙে আর গড়ে, ধারণা অসাড়।
অনন্তের সাথে আঁধারের মিতালি রয়েছে কোন যুগ হতে
এ কথা ইতিহাস ভূগোলের করিডোরে আজ ঝাপসা।
অন্ধকারের এতোই কৃষ্ণ পাখা বিশ্বের চেয়ে বিশাল মানব
হৃদয়কে মুহূর্তে আচ্ছাদিত করে চলে, মহাশক্তিধর
এই বিভৎস দানব, রুখবে তাকে কে মহাবীর শক্তিমান-
প্রবৃত্তি জঙে জঙে এতো কৃষ্ণময় যে আঁধারকে হার মানায়।

পূর্ণিমা উঠেছিলো নাকি আজ! চাঁদ হেলে পড়েছে পশ্চিম গগনে,
তারারা স্থির সকল বিবর্তনে, উজ্জ্বলতার সকল উপকরণে
কোনো ঢেউ নেই, ধীরে ধীরে ফ্যাকাসে হয়ে আসে চাঁদের
রূপ চিরাচরিত আবর্তনে-তবুও সেতো অনেক আশার প্রতীক,
মানুষ পৃথিবীতে আসে আর যায় চাঁদ ও আঁধারের সাথে মিলেমিশে,
আঁধারের সাথে অমানিশার রয়েছে এক নির্ভুল গভীর প্রণয়।

গন্তব্যহীন যাত্রা
শামীম আহমদ
আমি ভীষণ একা, গন্তব্যহীন
আত্মাকে জাগিয়ে তুলতে ব্যর্থ হয়েছি অনেক,
আয়নার সামনে নিজেকে নিয়ে
অবাক বিস্ময়ে দেখি আমার বদলে যাওয়া,
অসংখ্য মৃত আত্মা আমার চারপাশে
আমিও মৃতপ্রায় ।
নিঃশ্বাস গলে গলে পড়ে আর মিশে যায় মৃত্তিকায়।
চাঁদের আলোকে গিলে খায় মেঘকু-লী
পথহারা নাবিকের কী আর করার থাকে বলো
একমাত্র সূর্যোদয়ের অপেক্ষা ছাড়া,
এই তো কাছেই ছিলো তীর।
যদিও রাত্রির গতর জুড়ে আঁধারের অন্ধকার চাদর  
তবুও এখানেই খুঁজে ফিরি স্বর্গের রুদ্ধদ্বার, আলো।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT