প্রথম পাতা

কোনো মামলাতেই খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ডাক ডেস্ক : প্রকাশিত হয়েছে: ১৪-০২-২০১৮ ইং ০৩:২২:০৪ | সংবাদটি ৩৭ বার পঠিত

অন্য কোনো মামলাতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।
কয়েকটি মামলায় খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে বলে যেসব সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে, তা সত্য নয় বলে জানান তিনি।
গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নিজ কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মন্ত্রী।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কেবল জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় আদালতের রায়ে খালেদা জিয়া কারাগারে আছেন। অন্য কোনো মামলাতে তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়া বর্তমানে একটি মামলায় কারাগারে আছেন। বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি ও গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় তিনি জামিনে রয়েছেন। এসব মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়নি।
কারাগারে খালেদা জিয়াকে সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, খালেদা জিয়া একটি বৃহত্তর রাজনৈতিক দলের প্রধান। তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী। তার একটি সামাজিক মর্যাদা রয়েছে। তার সামাজিক মর্যাদা বিবেচনা করে তাকে এখানে বিশেষ মর্যাদায় রাখা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, কাশিমপুর কারগারে অনেক কয়েদি রয়েছে। তাছাড়া কারাগারটি অনেক দূরে। যাতায়াতের পথও স্বস্তিদায়ক নয়। এজন্য খালেদা জিয়াকে এখানে বিশেষ বন্দির মর্যাদায় রাখা হয়েছে। তার প্রাপ্য সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা তাকে দেয়া হচ্ছে।
উল্লেখ্য, গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বৃহস্পতিবার বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার পাঁচ নম্বর বিশেষ আদালতের বিচারক ড. মো. আখতারুজ্জামান খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদ- দেন।
এছাড়া একই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের ছেলে তারেক রহমান, সাবেক এমপি কাজী সলিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগনে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদ- দেয়া হয়।
একই সঙ্গে তাদের প্রত্যেককে দুই কোটি ১০ লাখ ৭১ হাজার ৬৭১ টাকা করে জরিমানা করেন আদালত।
রায়ের পরপরই খালেদা জিয়াকে আদালতের পাশে নাজিমউদ্দিন রোডের লালদালানখ্যাত ২২৮ বছরের পুরান ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়।
২০১৬ সালের ২৯ জুন থেকে ছয় হাজার ৪০০ বন্দিকে কেরানীগঞ্জের তেঘরিয়ার রাজেন্দ্রপুরের নতুন কারাগারে স্থানান্তর করে পুরান কারাগার বন্ধ ঘোষণা করা হয়। কিন্তু দুই বছর চার মাস ১০ দিন পর দুর্নীতির মামলায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি হিসেবে এই পরিত্যক্ত কারাগারেই দিন পার করছেন খালেদা জিয়া।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের নগদ অর্থ ও বস্ত্র বিতরণ অব্যাহত মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে দানবীর ড. রাগীব আলীর মত ব্যক্ত
  • ‘লা-মাযহাবীদের’ অপতৎপরতা বন্ধে উলামা পরিষদ ও আনজুমানে আল ইসলাহর পৃথক কর্মসূচি অনুষ্ঠিত
  • হুমায়ুন চত্বর থেকে ‘কারে তুলে ছিনতাই’ দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী চক্রের ৪ সদস্য গ্রেফতার
  • দোয়ারাবাজার সীমান্তে অবৈধভাবে ভারতে অনুপ্রবেশের চেষ্টা ॥ আটক ১
  • গোলাপগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ব্যক্তির মৃত্যু
  • জাতীয় কবির ১১৯তম জন্মবার্ষিকী অনুষ্ঠানে বক্তারা নজরুল বাংলার মানুষের প্রাণের কবি
  • জিন্দাবাজারে মোবাইলের দোকানে ২০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল চুরি
  • বিশ্বভারতীতে বাংলাদেশ ভবনের উদ্বোধন
  • ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত আরও ১১
  • নির্বাচনী আচরণবিধি সংশোধন ‘দুরভিসন্ধিমূলক’ : মওদুদ
  • বাংলাদেশ ভবন উভয় দেশের সাংস্কৃতিক বিনিময়ের প্রতীক : মোদি
  • ঢাকা-দিল্লী সহযোগিতা ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে : প্রধানমন্ত্রী
  • বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক দৃঢ় ও অব্যাহত থাকবে : মমতা
  • প্রধানমন্ত্রীর রবীন্দ্রনাথের স্মৃতি বিজড়িত ঠাকুরবাড়ি পরিদর্শন
  • প্রধানমন্ত্রীর সফরে তিস্তা নিয়ে কী অগ্রগতি: ফখরুল
  • মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান চলছে নগরীসহ বিভিন্ন জেলা উপজেলায় ১২ মাদক বিক্রেতা আটক
  • রমযানুল মুবারক
  • আম্বরখানা কলোনী মসজিদ সংলগ্ন দোকানে হামলা
  • সিটি নির্বাচনে প্রচারণার সুযোগ পাচ্ছেন এমপিরা
  • ট্রেনের ঈদ টিকেট ১ জুন থেকে
  • Developed by: Sparkle IT