শিশু মেলা

কবিতা

প্রকাশিত হয়েছে: ১৫-০২-২০১৮ ইং ০০:৪৭:০৭ | সংবাদটি ১৫১ বার পঠিত

অনিন্দ্য সুন্দর সকাল
দুলাল শর্মা চৌধুরী
সূর্য্যরে হৃদয় ছিঁড়ে
বেরিয়ে এলো
অনিন্দ্য সুন্দর এক সকাল
তার আলোয় মেয়েটি
বুকে ধরে আছে
শেষ বিকেল।
তখন দুটি পাখি
ঐ কদমের ডালে বসে
প্রেমালাপে মগ্ন
করছে ভালবাসার মাখামাখি
হয়তো তখন ছিল
তাদের শুভ লগ্ন।
রাতের বেলী ফুলগুলি
শুকিয়ে আছে
মেয়েটির কোঁকড়ানো
কালো চুলে,
মেয়েটি যখন
তাল-লয়-ছন্দে
হাঁটছিলো বারান্দায়
সকালের রক্তিম আলোয়
উদাস বাতাস এসে
খেলা করছিলো তখন
মেয়েটির সফেদ ওড়নায়।

ফাগুন দিনে
সুফিয়ান আহমদ চৌধুরী
ফাগুন ভোরে ফুল ফুটে আর
শিশির ঝরে ঘাসে
সুরের পাখি গান গেয়ে যায়
রাঙা রবি হাসে।

মিছিল ঘেরা এই শহরে
মুখে ভাষার গান
রক্তে ভেজা মাতৃভূমি
বীর শহীদের দান।

শহীদ মিনার ঘুরে এলে
ব্যাকুল করে মন
সব শহীদের রাখতে যে মান
মনে জাগে পণ।

শান্তি সুখে ভরুক এ দেশ
টুটুক আঁধার কালো,
ফাগুন দিনে উতাল হাওয়ায়
কাটুক সবার ভালো।

মনের কথা লিখি
আশরাফুল আলম
হয়ত লোকে বলতে পারে
নিরব কেন থাকি?
শুনতে আমার ভাল লাগে
পাখির ডাকাডাকি।
হয়ত লোকে বলতে পারে
এতই কেন ভাবি?
ভাবতে আমার ভাল লাগে
আমি ভাবুক কবি।
হয়ত লোকে বলতে পারে
হারাই কেন মন?
দেখতে আমার ভাল লাগে
ঘন সবুজ বন।
হয়ত লোকে বলতে পারে
একলা কেন বসি?
একলা বসে আপন মনে
দেখি চাঁদের হাসি।
হয়ত লোকে বলতে পারে
নদীর কাছে কেন?
জলে ভাসা পালতুলা নাও
অবাক করে যেন।
হয়ত লোকে বলতে পারে
কিসের লেখা-লিখি?
প্রাণের প্রিয় বাংলা ভাষায়
মনের কথা লিখি।

মাতৃভাষা
মোহাম্মদ রুহেল
কোন ভাষাতে বললে কথা
এতোই লাগে মধুর,
হৃদয় মাঝে পরশ ছোঁয়ায়
সোনার কাঠি যাদুর।
কোন ভাষাটা শুনলে পরে
হৃদয় আকুল করে,
কোন ভাষাটা শুনলে যেন
প্রাণটা উঠে ভরে।
সেই ভাষা মোর মাতৃভাষা
বাংলা ভাষা ভাই,
গর্ব ভরে তাইতো সবে
সবখানে যে চাই।

একুশ আমার
জাহিদুল ইসলাম মাটি
একুশ আমার
মায়ের চোখের অবিরাম ঝর্ণাধারা
একুশ আমার
ভায়ের রক্তে ভিজা পিচঢালা রাজপথ
একুশ আমার
খোকার হাতে রাঙ্গা পোস্টার
খুকুর হাতে রক্তে ভিজা চুড়ি
একুশ আমার
বাংলার বুকে রক্তের স্রােতধারা
একুশ আমার
যুদ্ধ জয়ের সোল্লাসের সূচনা
একুশ আমার
শহীদ মিনারের গাঁথা স্মৃতি
একুশ আমার
বাংলা বুকে ফুল খুকিদের হাসি
একুশ আমার
বোনের হাতের ন¤্র পাতার ঘ্রাণ
একুশ আমার  
শস্যের শিল্পীদের প্রাণ জুড়ানো মারফতি টান
শুনে বাতাস যেত বেহুশ হয়ে
পৃথিবীর বুকে একুশ আমার
বেঁচে থাক চিরকাল।

ভালোবাসা লাগাও কাজে
নজমুল হক চৌধুরী
ভালোবাসা ভালো লাগে
ভালোবাসি মাকে,
ভালোবাসি মনের মাঝে
যে লুকিয়ে থাকে।
ভালোবাসা সবার প্রতি
আছে কিছু আরো,
ভালোবেসে সব বাধাকে
জয় করিতে পারো।
ভালোবাসা সবখানেতে
সব সময়ই আছে,
লাইলীর ভালোবাসা ছিল
মজনু শাহের কাছে।
শাহজাহান তাই পড়েছিল
মমতাজের প্রেমে,
ভালোবাসা রেখেছে সে
তাজমহলের ফ্রেমে।
আরো কত নিদর্শন যে
আছে বিশ্বমাঝে,
ভালোবাসা লাগাও সবাই
সব মানুষের কাজে।

মাতৃভাষা
মো. ইমদাদ হোসেন
একটা জাতি লড়াই করে
মাতৃভাষার জন্য,
এই জাতিটা বিরল জাতি
ধন্য তারা ধন্য।
বায়ান্নতে বীরবাঙালি
দিয়েছিলো গর্জন,
রাষ্ট্রভাষা বাংলা চাই আর
উর্দু ভাষা বর্জন।
জীবন দিয়ে রাখলো তারা
মাতৃভাষার মান,
ইউনেস্কো তাই দিলো শেষে
আন্তর্জাতিক মান।
মাতৃভাষা রক্ষায় যারা
জীবন বাজি ধরে,
ভাষার মাসে দোয়া-সালাম
জানাই তাদের তরে।

খুকুমণির বিয়ে
সেকেল আহমেদ
মনের সুখে নাচছে সবাই
খুকুমণির বিয়েরে,
নাচছে দেখো দোয়েল শ্যামা
টুনটুনি আর টিয়েরে।
টুকটুকে লাল পাঞ্জাবী আর
পাগড়ি মাথায় সাজে রে,
তাকধিনাধিন ঢোলক আরও
খুশির সানাই বাজে রে।
নতুন নতুন জামা পরে
বরের সাথে যাবো রে,
সবাই মিলে পেট পুরে আজ
খোরমা পোলাও খাবো রে।


শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT