প্রথম পাতা

বিএনপির অনশন ৩ ঘণ্টায় শেষ

ডাক ডেস্ক : প্রকাশিত হয়েছে: ১৫-০২-২০১৮ ইং ০২:৪৬:০১ | সংবাদটি ৬৬ বার পঠিত

 কারাবন্দী বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দলের ডাকা ছয় ঘণ্টার অনশন কর্মসূচি পুলিশের আপত্তিতে আগেই শেষ হয়ে গেছে। পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় অনশন শুরু হয়। বিকেল চারটা পর্যন্ত হওয়ার কথা থাকলেও বেলা একটায় তা শেষ করে বিএনপি।
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঘোষিত তিন দিনের কর্মসূচির গতকাল ছিল তৃতীয় দিন। গত মঙ্গলবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করে দলটি।
গতকালের কর্মসূচি অনুযায়ী সকাল ১০টায় বিএনপির নেতারা প্রেসক্লাবের সামনের ফুটপাতের ওপর বিছানো কার্পেটে বসে পড়েন। দলের জ্যেষ্ঠ নেতারা ফুটপাতের ওপর রাখা চেয়ারে বসেন। তাঁদের ঘিরে নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন ধরনের স্লোগান দিতে থাকেন।
বিএনপির অনশন চলার সময় প্রেসক্লাবের সামনে রাস্তা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। এ সময় পুলিশের সদস্যরা রাস্তা থেকে ভিড় সরানোর চেষ্টা করেন। একপর্যায়ে মাইকে বিএনপির নেতারা বলেন, পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে অনশন কর্মসূচি বেলা একটার মধ্যে শেষ করতে হবে। পরে বিএনপির নেতা-কর্মীরা যে যার মতো চলে যেতে থাকেন।
দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটের দিকে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যখন বক্তব্য দিচ্ছিলেন, তখন বিএনপির নেতা-কর্মীরা ছোটাছুটি করছিলেন।
অনশন কর্মসূচি শেষের একটু আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এমাজউদ্দীন আহমদ কর্মসূচিতে একাত্মতা জানাতে প্রেসক্লাবে আসেন। তিনি সংক্ষিপ্ত বক্তব্য দেন এবং এর মধ্য দিয়ে অনশন কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল।
এ সময় ফখরুল ইসলাম বলেন, বিকেল চারটা পর্যন্ত অনশন চলার কথা থাকলেও কর্তৃপক্ষের অনুরোধের কারণে বেলা একটায় অনশন কর্মসূচি শেষ করা হয়েছে। এই কর্মসূচি থেকে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে মুক্তির আহ্বান জানান তিনি।
অনশন কর্মসূচিতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘আমাদের দিনব্যাপী অনশন আমরা বেলা একটার মধ্যে শেষ করতে বাধ্য হচ্ছি। এই সরকার আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে, বিএনপিকে দুর্বল করে নির্বাচন থেকে বাইরে রাখতে চায়। খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে ছাড়া এ দেশে নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না।’
স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, দেশের মানুষের স্বাধীনতা নেই। অথচ একাত্তর সালে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। দেশের স্বাধীনতা আজকে হুমকির মুখে। আজকে চার দিন ধরে যাঁরা খালেদা জিয়াকে কারাগারে ডিভিশন দেননি, তাঁদের ব্যাপারে মামলা করার প্রক্রিয়া গ্রহণ করার জন্য দলের মহাসচিবকে অনুরোধ করেন তিনি।
বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনশন কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য দেন স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা বরকত উল্লাহ বুলু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, আবদুস সালাম, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল প্রমুখ। এ ছাড়া বিএনপির বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের এবং ২০–দলীয় জোটের নেতারা বক্তব্য দেন।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • নির্বাচন হবে কি হবে না, জানি না: মহাসমাবেশে এরশাদ
  • চলতি সংসদের শেষ অধিবেশন শুরু আজ
  • শিক্ষকদের সমর্থন চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী
  • ২৮ অক্টোবর সকাল থেকে ৪৮ ঘন্টা কর্মবিরতির ঘোষণা
  • শ্রমিক সমাবেশ তাই বাস ছাড়েনি
  • ২৪ অক্টোবরও সিলেটে সমাবেশের অনুমতি পায়নি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
  • আলীয়া মাদ্রাসা মাঠের জানাজায় লাখো মানুষের ঢল
  • জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটের সমাবেশ পেছালো
  • ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনায় অর্ধশত মানুষের প্রাণহানি
  • বহিষ্কৃতদের নেতৃত্বে বিকল্প ধারার পাল্টা কমিটি
  • প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব
  • বিশ্বকাপের ট্রফি দেখলো সিলেটবাসী
  • সরকারের উন্নয়ন ও জনবান্ধব উদ্যোগকে ত্বরান্বিত করতে প্রয়োজন জনগণের ঐক্য ও সহযোগিতা
  • সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ জাতীয় পার্টির মহাসমাবেশ
  • সমাবেশের অনুমতি দিয়ে নিয়ে নেওয়া হলো: মওদুদ
  • বিদেশীদের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দেউলিয়াত্ব প্রকাশ পেয়েছে : কাদের
  • তারেককে ফেরত পাঠাতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের চিঠি
  • ওমরাহ শেষে দেশের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন প্রধানমন্ত্রী
  • জোট নয়, বি. চৌধুরীর দোয়া চায় ন্যাপ-এনডিপি
  • সংসদের ২৩তম অধিবেশন শুরু আগামী রোববার
  • Developed by: Sparkle IT