প্রথম পাতা নাব্যতা হারিয়েছে হাওরাঞ্চলের খর¯্রােতা বৌলাই নদী

নদীর বুকে আটকে আছে দুই শতাধিক মালবাহী নৌযান

অঞ্জন পুরকায়স্থ, জামালগঞ্জ থেকে ॥ প্রকাশিত হয়েছে: ১৪-০৩-২০১৮ ইং ০৩:২৩:০৬ | সংবাদটি ১৫১ বার পঠিত

 নাব্যতা হারিয়েছে হাওরাঞ্চলের খর¯্রােতা নদী বৌলাই। নদীর একটি অংশে খনন কাজ হলেও অপর অংশ পলি পড়ে ভরাট হয়ে গেছে। ভরাট হওয়া অংশে গত ১৫ দিন থেকে নদীর বুকে আটকে আছে দুই শতাধিক মালবাহী নৌযান (ভলগেট)। নদীতে আটকা পড়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা ভলগেটের প্রায় পাঁচ শতাধিক কর্মচারী ও শ্রমিক।
নদীর নাব্যতা কমে যাওয়ায় শুষ্ক মওসুমে বালি, পাথর, চুনাপাথর ও কয়লা ব্যবসা বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। বেকার হওয়ার আশঙ্কা করছেন কয়েক হাজার শ্রমিক।
গতকাল মঙ্গলবার বৌলাই নদীতে গিয়ে দেখা যায়, জামালগঞ্জের হালির হাওরের দূর্গাপুর ও মদনাকান্দী গ্রামের পাশে বৌলাই নদীতে আটকা পড়েছে এসব যানবাহন। নদীতে ঢল না আসলে এসব নৌযান যেতে পারবে না বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।
জানা যায়, সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বড়ছড়া, টেকেরঘাট, চাড়াগাঁও শুক্ল স্টেশন থেকে কয়লা, ফাজিলপুর থেকে বালু ও নুড়ি পাথর ক্রয় করে সারা দেশে যোগান দেন ব্যবসায়ীরা। এসব আমদানিকৃত পণ্য বহনের একমাত্র মাধ্যম জামালগঞ্জ, তাহিরপুর, বিশ্বম্ভরপুর ও ধর্মপাশার উপর দিয়ে বয়ে চলা বৌলাই নদীপথ। ওই নদীর নাব্যতা কমে নদীর তলদেশে ভরাট হওয়ায় বালু-পাথর বহনকারী স্টিলবডির নৌযান আটকা পড়েছে। বাজিতপুর, কিশোরগঞ্জ, আশুগঞ্জ, ফতুল্লা, নারায়ণগঞ্জ, সুনামগঞ্জ সহ দেশের বিভিন্ন জেলার মালবাহী নৌযান শ্রমিকরা ওই নদীতে আটকা পড়ে মানবেতন জীবনযাপন করছেন।
শ্রমিকরা জানান, প্রায় ১৫ দিন ধরে তারা আটকা পড়ার কারণে থাকা-খাওয়ার সমস্যাসহ এলাকার কতিপয় অসাধু চক্রের হাতে লাঞ্ছনা-বঞ্চনার শিকার হচ্ছেন। নৌ পুলিশ টহলে থাকলে সাময়িক সময় নৌশ্রমিকরা ভালো থাকলেও পুলিশ চলে গেলে তারা চরম আতংকে সময় কাটাচ্ছেন।
সম্প্রতি আপার বৌলাই খননকাজ শুরু হলেও নদীর গুরুত্বপূর্ণ উত্তর পুর্বাংশে খনন কাজ হয়নি। ফলে বালি, পাথর ও চুনাপাথর নিয়ে রাজধানীসহ বিভিন্ন স্থানে পরিবহনকারী উপজেলার আবুয়া নদীর মুখ থেকে প-ুব নদী হয়ে রামজীবনপুর পর্যন্ত আড়াই কিলোমিটার নদীপথে মালবাহী নৌযানগুলো আটকা পড়েছে।
এলাকাবাসী জানান, বৌলাই নদীর তৃতীয় ও চতুর্থ খন্ডের পানি শুকিয়ে যাওয়ায় জামালগঞ্জ, তাহিরপুর ও ধর্মপাশা অংশে প্রায় ৩২ কিলোমিটার নদীপথ ভরাট হয়ে গেছে। এই স্থানে আটকা পড়া নৌযানের শ্রমিক ও মালিকরা বিপাকে পড়েছেন। পাশাপাশি তারা মালামাল নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। দীর্ঘদিন থেকে মালামাল নিয়ে আটকা পড়ে থাকায় তারা বিপুল লোকসানের মুখে পড়েছেন।
ব্যবসায়ীরা জানান, বৌলাই নদী পার হয়ে সুরমা নদী দিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় এসব মালবাহী নৌযানের গন্তব্য। পলিভরাট বৌলাই থেকে সুরমা নদীতে প্রবেশ করতে পারলেই নৌযানগুলো গন্তব্যে যেতে পারবে।
সুনামগঞ্জ মালবাহী নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সফিজুল ইসলাম বলেন, নদীর নাব্যতা কমে পানি শুকিয়ে যাওয়ার কারণে প্রায় ১৫ দিন ধরে নৌযান ও শ্রমিকরা আটকা পড়েছেন। সংশ্লিষ্টদের কাছে কয়েক দফা গিয়েও তাদের চলাচলের ব্যবস্থা করতে পারছি না। আটকা পড়া শ্রমিকদের সমস্যা সমাধান করতে বার বার নদীপথে গিয়ে চেষ্টা করেছি। প্রথম দিকে কয়েকটি স্টিলবডি নৌকা যাতায়াত করলেও এখন একটি নৌকা নদীর মাঝখানে ডুবে যাওয়ায় নৌযান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও জেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার ইউসুফ আল-আজাদ বলেন, নদী খনন না হলে এই সমস্যা সমাধান হবে না। শ্রমিকরা নদীতে আটকা পড়েছেন শুনেছি। নৌ পুলিশের দোহাই দিয়ে কিছু চাঁদাবাজ চাঁদা আদায় করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে জামালগঞ্জের লালপুরে অবস্থানরত নৌপুলিশের এএসআই আল আমীন বলেন, এখন নদীপথে চাঁদাবাজি বন্ধ।
সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা যায়, ২০১৭-১৮-১৯ অর্থবছরে জেলার আপার বৌলাইয়ে ১৬ কিলোমিটার নৌপথ খননের প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়। কিন্তু নদীর উত্তর-পূর্ব অংশ খনন না করায় নদীর বুক ভরাট হওয়া এই অংশে আটকা পড়েছে মালবাহী নৌযান।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ফেঞ্চুগঞ্জ মুক্ত দিবস আজ
  • মোমেন-মুক্তাদীরের মিশন শুরু
  • সিলেট প্রতীক পেয়ে ভোটের লড়াইয়ে প্রার্থীরা
  • কাল প্রচারণা শুরু করবেন শেখ হাসিনা
  • খালেদার প্রার্থিতা বিষয়ে সিদ্ধান্ত আজ
  • বিজয়ের মাস :
  • প্রার্থিতা নিয়ে খালেদা জিয়ার রিট
  • মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষে ভোট দিয়ে তরুণরা ইতিহাসের অংশীদার হবেন
  • ভোটের লড়াই থেকে সরে দাঁড়ালেন সিলেট বিভাগের ৩৮ প্রার্থী
  • সিলেট আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার মেয়াদ বাড়লো
  • সিলেট বিভাগের ১২ আসনে দলীয়ভাবে নির্বাচন করবে জাপা ও খেলাফত মজলিস
  • ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৫ উইকেটে হারালো বাংলাদেশ
  • সিলেট বিভাগে চূড়ান্ত ভোট যুদ্ধে ১১৪ প্রার্থী
  • খালেদা জিয়া মামলা নিয়ে কানামাছি খেলেছেন: কাদের
  • সন্তানদের বেগম রোকেয়ার আদর্শে গড়ে তুলতে হবে
  • নৌকার প্রার্থী ২৭২, আওয়ামী লীগের ২৫৮
  • ধানের শীষের প্রার্থী ২৯৮ আসনে, বিএনপির ২৪২
  • টেকনোক্র্যাট ৪ মন্ত্রীকে অব্যাহতি
  • বিজয়ের মাস
  • ড. কামালের আয়-ব্যয়ের হিসাব খতিয়ে দেখছে এনবিআর
  • Developed by: Sparkle IT