শিশু মেলা

কবিতা

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-০৩-২০১৮ ইং ০০:৫০:৩০ | সংবাদটি ৮৬ বার পঠিত

দোয়েল ও একটা ছেলে
আশরাফুল আলম
দোয়েল পাখি দোয়েল পাখি
একটা শিস দে-রে,
ভবঘুরে এই ছেলেটার
মনটা কেড়ে নে-রে।

এই ঘুরে সে নদীর পাড়ে
এই ঘুরে সে রাস্তায়,
মধুর মত কাব্য যত
কিনতে চাহে সস্তায়।

এই ঘুরে সে ফুল বাগানে
এই ঘুরে সে মাঠে রে
উড়– উড়– মনটা তাহার
বসে না নিজ পাঠে-রে।

দোয়েল পাখি দোয়েল পাখি
একটা ছেলে ডাকে রে
হৃদয়ে তার যতন করে
তোমার ছবি আঁকে-রে।

দাওনা সাড়া তার ডাকেতে
ভালো তোমায় বাসে-রে,
মধুর সুরে গান শোনালে
প্রাণভরে সে হাসে-রে।

কোথায় থাকো? কোথায় ডাকো?
এই তাহার ভাবনা,
বলছে, ‘আজ গান না শোনে
ঘরে কিন্তু যাব না।’

দেশকে দিব
ফারহাত সুলতানা সুন্নাহ
দেশকে দেব ভালোবাসা
দেশকে দেব গান
দেশের জন্য বিলিয়ে দিব
আমার নিজের প্রাণ।
দেশকে দেব সম্মান
দেশকে দেব ছড়া
ভালো কাজগুলো হবে
দেশের জন্য করা।
দেশকে দেব গৌরব
দেব সম্মান
দেশ হলো মোর জন্মভূমি
মায়েরই সমান।
দেশের জন্য অনেক স্বপ্ন
নিয়ে আসি,
সত্যি বলতে দেশকে আমি
অনেক ভালোবাসি।

স্বাধীনতা
হুসাইন আল হাফিজ

ফুলেরা প্রেমের পাপড়ী মেলেছে
মনে প্রণয়ের হাসি,
মেঘেদের মন উতলা হয়েছে
আকাশেতে যায় ভাসি।
পাখির ছানাও মেলেছে পেখম
লক্ষটা বহুদূর,
মুক্ত নদীর মুখে মুখে আজ
বাজিছে তোমার সুর।
আযানে আযানে শহরে-নগরে
হাঁকিছে মুয়াজ্জিন,
শুনো! মানুষের প্রাণের মিনারে
বাজে আলোকের বীণ।
দাদী মা আমার কানে কানে প্রিয়া
বলেছে তোমার কথা,
পাড়াতে তোমার সুনামে সবাই
ডেকেছে যে নীরবতা।
লাল সবুজের শাড়ীও পরেছে
বধূয়া তাহার গা’য়,
রাখালের বাঁশি সুর যে তুলেছে
স্বাধীনতা হে তোমায়!

এই ছেলেটি
তামীম হুসাইন

কাসেম নামের একটি ছেলে
মনটা থোকা থোকা,
কী যেন সে ভাবতো বসে
করতো লেখাজোখা।
চলন-বলন খুব স্বাভাবিক
মধুর ব্যবহার,
নানান রকম স্বপ্ন পুষে
জীবন করে পার।
স্বপ্ন দেখে স্বপ্ন দেখায়
স্বপ্ন রাশি রাশি,
কাসেম নামের এই ছেলেকে
বড্ড ভালোবাসি।

খোকন যাবে কই
আবদুল ওয়াহিদ

ফুল ফুটেছে ফুল বাগানে
লোভ করেছে অলি,
পণ করেছে খোকন সোনা
নেবে ফুলের কলি।
খোকার সাথে খুকি মায়ে
জোট বেঁধেছে এসে,
দু’জন মিলে ফুল কুঁড়িয়ে
গাঁথলো মালা শেষে।
ফুলের মালা গলায় দিয়ে
খোকন যাবে কই?
পালকি চড়ে খোকন যাবে
মামার বাড়ি ঐ!

নেই তুলনা মা’র
আবদুর রাকিব

চাঁদের মতো মুখটি মায়ের
ফুলের মতো হাসি,
তাই তো আমি অনেক বেশি
মাকে ভালোবাসি।
শান্তি খোঁজি মায়ের দ্বারে
মায়ের আচলতলে
মা ছাড়া আর কে বা বলো
সুখের কথা বলে!
এই ধরাতে মায়ের মতো
নেই কেহ নেই আর
মা যে আমার মধুর খনি
নেই তুলনা তার।

মা
মুহাম্মাদ আবদুল্লাহ

মা গো তুমি আমার কাছে
মুক্তো মণির ধন
তোমায় পেয়ে ধন্য মাগো
ধন্য এ জীবন।
তোমার মুখের কথা মা গো
হীরার চেয়ে দামী
তোমার দোআ থাকলে সাথে
হইনা বিপথগামী।
মা গো তোমার আঁচলখানি
খুবই শান্তিময়
তোমার পায়ে বেহেস্ত মা গো
আলকুরানে কয়।

আল্লাহ নামের গান
ফখরুল ইসলাম আদিল

কী অপরূপ গাছগাছালি
দেখলে জুড়ায় প্রাণ
মনের ভেলায় বাজে সদা
আল্লাহ নামের গান।
ঐ যে মাঠে সবুজ সবুজ
উছলে ওঠা ঘাস
দেখলে মনে ইচ্ছে জাগে
এতেই করি বাস।
পাখপাখালি সাগর নদী
বলব কত আর
বললে কি আর শেষ করা যায়
সৃষ্টি সমাহার?


হেরার আলো
আমিনুল ইসলাম সফর

হেরার আলো পথ দেখালো
মিললো সঠিক দিশা,
যে আলোতে পালিয়ে গেলো
গভীর অমানিশা।
অই আলোতে আলোকিত
সপ্ত আকাশখানা,
পরশে তার ঝলোমলো
জিবরাইলের ডানা।
আঁখি মেলে অই আলোতে
পড়ি প্রভুর বাণী,
অন্তরে তার দীপ্তি মেখে
গড়ি জীবনখানি।
পৃথিবীতে অই সে আলো
চির অমলিন,
সে আলোতেই ফুটেছিলো
মুহাম্মদী দ্বীন।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT