প্রথম পাতা

নির্বাচনে ভারত হস্তক্ষেপ করবে না: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-০৪-২০১৮ ইং ০৩:২৩:০৪ | সংবাদটি ৭২ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভারত এবং দেশটির সরকার হস্তক্ষেপ করবে না। ভারত আগেও এ দেশের নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করেনি।
গতকাল শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির ১৯ সদস্যের প্রতিনিধি দলের ভারত সফর উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন।
বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে ভারতের ভূমিকা কী হবে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের উত্তরে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, আওয়ামী লীগের ক্ষমতার উৎস বাংলাদেশের জনগণ। বিজেপি এসে আমাদের জন্য ভোট চাইবে না, চাইতেও পারবে না। তারা অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক বিষয়ে হস্তক্ষেপ করে না। অন্যান্য দেশ এ বিষয়ে খুব দৌড়াদৌড়ি করে। ইন্ডিয়া এসব করে না। আমাদের এই সফরের সঙ্গে নির্বাচনের কোনো সম্পর্ক নেই। এই সফরে শুধু বায়লেটেরাল টকস হবে। এটা খুব স্বাভাবিক প্রক্রিয়া। এখানে অন্য কোনো কারণ খোঁজার তো কোনো কারণ নেই।
তিনি বলেন, সফরের পর ইন্ডিকেশন কী, তা বোঝা যায়। যদিও এটা বড় ডেলিগেশন। এই সফর নিয়ে কথা উঠছে কেন? ক’দিন আগেও তো আমাদের ২০ সদস্যের বেশি প্রতিনিধি দল চীন সফরে গিয়েছিল। চীনকে কী তাহলে আপনারা ছোট করে দেখছেন। ইন্দো-বাংলা সম্পর্ক ৭১ সাল থেকে। রক্তের রাখিবন্ধন। একটা দেশের সঙ্গে অন্য দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে উভয়েরই স্বার্থ থাকে। এক্ষেত্রেও তাই। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না ভারতের সঙ্গে আমাদের সীমান্ত অনেক বড়। তাদের সঙ্গে যুদ্ধ করে তো সমাধান হবে না। আলাপ-আলোচনা করেই সমাধান করতে হবে।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ৭৪’র ল্যান্ড বাউন্ডারি চুক্তিও কিন্তু শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বের কারণে বাস্তবায়ন হয়েছে। আমাদের ভিজিটটা যেহেতু খুব ছোট তারপরও আমাদের সব ধরনের চেষ্টা থাকবে। কথা হবে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার চাইলেই তো তিস্তা চুক্তি বাস্তবায়ন করতে পারবে না। কারণ পশ্চিমবঙ্গের একটা প্রভাব আছে।
ওবায়দুল কাদের জানান, আজ রোববার সকাল ১০টায় আওয়ামী লীগের ১৯ সদস্যের একটি দল ভারতের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবে। সেখানে পার্টি টু পার্টি আলোচনা হবে। পাশাপাশি ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও আলোচনা হবে। এই সফরটি খুবই সংক্ষিপ্ত কিন্তু গুরুত্ববহ। আমাদের কর্মসূচির মধ্যে আছে মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা অর্পণ। তারপর বাংলাদেশ হাইকমিশনের আয়োজনে নৈশভোজে অংশগ্রহণ। তারপরের দিন ২৩ তারিখ ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপির সঙ্গে আলোচনা হবে। আর ২৪ তারিখ আমরা ভারত ত্যাগ করব।
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গির কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবাহান গোলাপ, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ইকবাল হোসেন অপু প্রমুখ।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • আলীয়া মাদ্রাসা মাঠের জানাজায় লাখো মানুষের ঢল
  • জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটের সমাবেশ পেছালো
  • ভারতে ট্রেন দুর্ঘটনায় অর্ধশত মানুষের প্রাণহানি
  • বহিষ্কৃতদের নেতৃত্বে বিকল্প ধারার পাল্টা কমিটি
  • প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হলো দুর্গোৎসব
  • বিশ্বকাপের ট্রফি দেখলো সিলেটবাসী
  • সরকারের উন্নয়ন ও জনবান্ধব উদ্যোগকে ত্বরান্বিত করতে প্রয়োজন জনগণের ঐক্য ও সহযোগিতা
  • সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আজ জাতীয় পার্টির মহাসমাবেশ
  • সমাবেশের অনুমতি দিয়ে নিয়ে নেওয়া হলো: মওদুদ
  • বিদেশীদের সঙ্গে বৈঠকের মাধ্যমে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দেউলিয়াত্ব প্রকাশ পেয়েছে : কাদের
  • তারেককে ফেরত পাঠাতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের চিঠি
  • ওমরাহ শেষে দেশের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন প্রধানমন্ত্রী
  • জোট নয়, বি. চৌধুরীর দোয়া চায় ন্যাপ-এনডিপি
  • সংসদের ২৩তম অধিবেশন শুরু আগামী রোববার
  • সিভিল সার্জন ভবনসহ বিভিন্ন স্বাস্থ্য প্রতিষ্ঠানের স্থাপনা উদ্বোধন করলেন অর্থমন্ত্রী
  • পারস্পরিক সমঝোতা ও সহযোগিতা নিয়ে অগ্রসর হতে হবে
  • ওসমানীনগরে সালিশ বৈঠকে দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ২০
  • কমলগঞ্জ ও বিয়ানীবাজারে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জনের মৃত্যু
  • জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন প্রশিক্ষণ নিয়ে বিদেশ যান : বিদেশে
  • ট্রান্সকমের লতিফুরকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ
  • Developed by: Sparkle IT