শেষের পাতা

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: ১১৪ প্রার্থী মামলার আসামি

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-০৪-২০১৮ ইং ০৩:২৪:০২ | সংবাদটি ১০৮ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী ২৮৬ সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ১১৪ জনই বিভিন্ন মামলার আসামি।
হলফনামায় দেখা গেছে, প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির উভয় দলের প্রার্থীরই নাম রয়েছে। পাঁচটি ওয়ার্ডের ২০ প্রার্থীর নামে কোনো মামলা নেই। তিনটি ওয়ার্ডের প্রত্যেক প্রার্থীর নামেই মামলা রয়েছে।
এছাড়া ২১ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচ প্রার্থী, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থী, ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের তিন প্রার্থী, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থী ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের দুই প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই।
আর ২০ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থীর নামে মামলা রয়েছে।
জেলা শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফয়সাল আহমেদ সরকার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। এবারের নির্বাচনেও তিনি কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে চারটি মামলা রয়েছে।
তিনি বলেন, ‘খোঁজ নিয়ে দেখুন আমার মধ্যে কোনো দুর্নীতি আছে কিনা। আমার গ্রহণযোগ্যতা আছে কিনা।
“তার পরও আমার বিরুদ্ধে চারটি মামলা রয়েছে। এগুলো শুধুই রাজনৈতিক প্রতিহিংসার ফল।”
একই কথা বললেন সদর থানা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের বতর্মান কাউন্সিলর তানভীর আহম্মেদ। এবারও তিন কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে আটটি মামলা।
তিনি বলেন, “আমি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার।”
হলফনামা থেকে জানা গেছে, ১ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২ নম্বর ওয়ার্ডের আট প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে চার জনের মধ্যে দুইজন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজনের মধ্যে একজন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে দুই প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে ছয়জন,২৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে দুইজন, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে ১২ জনের মধ্যে পাঁচজন, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ২৬ নং ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে চারজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে চারজনই, ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে দুইজন, ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে চারজন, ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে একজন, ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মদ্যে দুইজন, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে ১১ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ৫০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৫২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে দুইজন, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে তিনজন, ৫৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দ্ইুজন, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন ও ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজনের নামে মামলা রয়েছে।
মামলার আসামিদের প্রার্থী হওয়া সম্পর্কে গাজীপুর আদালতের সাবেক এপিপি মো. আসাদুল্লাহ বাদল বলেন, যাদের নামে কোনো মামলা নেই এবং তারা যদি তুলনামূলক স্বচ্ছ প্রকৃতির লোক হন, তাদের এলাকায় অপরাধ প্রবণতা অনেক কম থাকবে।
“আর যেখানে সব প্রার্থীর নামেই মামলা সেখানে তুলনামূলক স্বচ্ছ বা অপরাধপ্রবণতা নাই এমন লোক হয়ত নির্বাচনে প্রার্থী হতে চাননি। তাতে করে মন্দের ভাল থেকে যাকেই বেছে নেওয়া হোক না কেন, তার মধ্যে অপরাধপ্রবণতা থাকবে এবং ভবিষতে দুর্নীতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকবে।”

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • জগন্নাথপুরে ভারতীয় নিষিদ্ধ বিড়িসহ র‌্যাবের হাতে আটক ১
  • ফেঞ্চুগঞ্জে বৈদ্যুতিক ট্রান্সফরমার চুরি
  • ফরম পূরণের টাকা চাওয়ায় ভাতিজাকে চাচাদের মারধর থানায় অভিযোগ
  • নাশকতার মামলায় সোহেল রিমান্ডে
  • লিডিং ইউনিভার্সিটিতে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত
  • সিকৃবি’র দুই নবীন ছাত্রী ছিনতাইয়ের শিকার
  • শ্রমিক বিক্ষোভে ‘বিশৃঙ্খলাকারীদের’ বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে পুলিশ
  • চান মিয়া সভাপতি, সাহারুল সম্পাদক সুনামগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি’র নির্বাচন সম্পন্ন
  • সততা, নিষ্ঠা ও স্বচ্ছতার সাথে দায়িত্ব পালনে সবার সহযোগিতা চাই
  • প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা পদে নিয়োগ পেলেন সালমান এফ রহমান
  • সব প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জন্য হবে একই ‘পাঠ পরিকল্পনা’
  • প্রবীণ সাংবাদিক আমানুল্লাহ কবীর আর নেই
  • নিয়ম মানুন, যানজট কমবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • হবিগঞ্জে সরকারি বই জব্দের ঘটনায় মামলা
  • রোগীদের অভিযোগ জানাতে ‘অভিযোগকর্নার’ খোলার নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
  • জৈন্তাপুরে পৃথক অনুষ্ঠানে ইমরান আহমদ সরকারের অঙ্গীকার ও জনগণের প্রত্যাশা পূরণে কাজ করে যাবো
  • প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ বাংলাদেশের উন্নয়নে সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে জাপান
  • দেশের উন্নতির জন্য ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে শিক্ষিত করে তুলতে হবে ------শাবি ভিসি অধ্যাপক ড. ফরিদ উদ্দিন আহমেদ
  • ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠায় ড. গোলাম মর্তুজাকে অনুসরণ করতে হবে --মহানগর দায়রা জজ মোঃ মফিজুর রহমান ভূঞা
  • গোলাপগঞ্জে একই দিনে দু’টি লাশ উদ্ধার
  • Developed by: Sparkle IT