শেষের পাতা

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: ১১৪ প্রার্থী মামলার আসামি

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-০৪-২০১৮ ইং ০৩:২৪:০২ | সংবাদটি ৬৯ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী ২৮৬ সাধারণ কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ১১৪ জনই বিভিন্ন মামলার আসামি।
হলফনামায় দেখা গেছে, প্রার্থীদের মধ্যে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির উভয় দলের প্রার্থীরই নাম রয়েছে। পাঁচটি ওয়ার্ডের ২০ প্রার্থীর নামে কোনো মামলা নেই। তিনটি ওয়ার্ডের প্রত্যেক প্রার্থীর নামেই মামলা রয়েছে।
এছাড়া ২১ নম্বর ওয়ার্ডের পাঁচ প্রার্থী, ৩৮ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থী, ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের তিন প্রার্থী, ৪১ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থী ও ৪৪ নম্বর ওয়ার্ডের দুই প্রার্থীর বিরুদ্ধে কোনো মামলা নেই।
আর ২০ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজন ও ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের চার প্রার্থীর নামে মামলা রয়েছে।
জেলা শ্রমিক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ফয়সাল আহমেদ সরকার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। এবারের নির্বাচনেও তিনি কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে চারটি মামলা রয়েছে।
তিনি বলেন, ‘খোঁজ নিয়ে দেখুন আমার মধ্যে কোনো দুর্নীতি আছে কিনা। আমার গ্রহণযোগ্যতা আছে কিনা।
“তার পরও আমার বিরুদ্ধে চারটি মামলা রয়েছে। এগুলো শুধুই রাজনৈতিক প্রতিহিংসার ফল।”
একই কথা বললেন সদর থানা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের বতর্মান কাউন্সিলর তানভীর আহম্মেদ। এবারও তিন কাউন্সিলর প্রার্থী। তার বিরুদ্ধে রয়েছে আটটি মামলা।
তিনি বলেন, “আমি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার।”
হলফনামা থেকে জানা গেছে, ১ নম্বর ওয়ার্ডের ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২ নম্বর ওয়ার্ডের আট প্রার্থীর মধ্যে পাঁচজন, ৩ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪ নম্বর ওয়ার্ডে চার জনের মধ্যে দুইজন, ৫ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের তিনজনের মধ্যে একজন, ৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১১ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ১২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৬ নম্বর ওয়ার্ডে দুই প্রার্থীর মধ্যে একজন, ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ১৮ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ২২ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে ছয়জন,২৩ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে দুইজন, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে ১২ জনের মধ্যে পাঁচজন, ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ২৬ নং ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ২৭ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে চারজন, ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে তিনজন, ৩০ নম্বর ওয়ার্ডে সাত প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৩১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩২ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে একজন, ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৩৪ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে চারজনই, ৩৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে দুইজন, ৩৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাতজনের মধ্যে চারজন, ৪০ নম্বর ওয়ার্ডে চারজনের মধ্যে দুইজন, ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে একজন, ৪৩ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মধ্যে দুইজন, ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচ প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে তিনজনের মধ্যে একজন, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ডে চার প্রার্থীর মদ্যে দুইজন, ৪৯ নম্বর ওয়ার্ডে ১১ প্রার্থীর মধ্যে চারজন, ৫০ নম্বর ওয়ার্ডে তিন প্রার্থীর মধ্যে একজন, ৫১ নম্বর ওয়ার্ডে ছয়জনের মধ্যে দুইজন, ৫২ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন, ৫৩ নম্বর ওয়ার্ডে আটজনের মধ্যে দুইজন, ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে তিনজন, ৫৫ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দ্ইুজন, ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডে পাঁচজনের মধ্যে দুইজন ও ৫৭ নম্বর ওয়ার্ডে ছয় প্রার্থীর মধ্যে একজনের নামে মামলা রয়েছে।
মামলার আসামিদের প্রার্থী হওয়া সম্পর্কে গাজীপুর আদালতের সাবেক এপিপি মো. আসাদুল্লাহ বাদল বলেন, যাদের নামে কোনো মামলা নেই এবং তারা যদি তুলনামূলক স্বচ্ছ প্রকৃতির লোক হন, তাদের এলাকায় অপরাধ প্রবণতা অনেক কম থাকবে।
“আর যেখানে সব প্রার্থীর নামেই মামলা সেখানে তুলনামূলক স্বচ্ছ বা অপরাধপ্রবণতা নাই এমন লোক হয়ত নির্বাচনে প্রার্থী হতে চাননি। তাতে করে মন্দের ভাল থেকে যাকেই বেছে নেওয়া হোক না কেন, তার মধ্যে অপরাধপ্রবণতা থাকবে এবং ভবিষতে দুর্নীতিগ্রস্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকবে।”

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • ৩ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ে তেমুখী-বাদাঘাট রাস্তার সংস্কার কাজ শুরু
  • মানবতা বিরোধী অপরাধে লাখাইয়ে পলাতক আসামী গ্রেফতার
  • চুনারুঘাট ও নবীগঞ্জে পানিতে ডুবে ৩ কন্যা শিশুর মৃত্যু
  • সুরমা নদীতে নিখোঁজ শিশুকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে
  • ওসমানীতে স্বর্ণসহ আটক তরুণী জেল হাজতে
  • ভারতের সাত রাজ্যে বন্যা, নিহত ৭৭৪
  • ইতালিতে সেতু ধসে নিহত ৪০
  • ঢাকায় ৮ লাখ ৫০ হাজার স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার স্থাপন প্রকল্পের অনুমোদন
  • প্রি-পেমেন্ট মিটারের বিদ্যুৎ কার্ড বিক্রি বন্ধ থাকবে ৫ দিন
  • এমসি কলেজে ছাত্র-শিক্ষক অভিভাবক সমাবেশ কাল
  • পবিত্র ঈদুল আযহা উদযাপন উপলক্ষে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের গণ-বিজ্ঞপ্তি
  • র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে দক্ষিণ সুরমার ৮ মাদকসেবী দন্ডিত
  • কেমুসাস প্রাঙ্গণে আয়োজিত তাঁত ও বস্ত্র মেলা বন্ধের দাবি
  • বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ তাজুল ইসলাম আর নেই
  • নির্মাণাধীন সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগার পরিদর্শনে জেলা জজসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাবৃন্দ
  • দক্ষিণ সুরমায় ছিনতাই করে পালিয়ে যাওয়ার সময় দুই ছিনতাইকারী আটক
  • জগন্নাথপুরে চুরি যাওয়া তিনটি গরুসহ গ্রেফতার ২
  • কোরবানীর হাটে জালনোট সনাক্তকরণ বুথ চালুর উদ্যোগ
  • ছাতক ও দোয়ারা কলেজ সরকারি করণে এমপি মানিককে অভিনন্দন
  • সিলেট প্রেসক্লাব- মহিবুন্নেছা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান আজ
  • Developed by: Sparkle IT