শেষের পাতা সিলেটে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যানের হুঁশিয়ারী

নদী রক্ষায় প্রয়োজনে ট্রাইব্যুনাল করা হবে ঈদের পরে হবিগঞ্জের সায়হাম ফিউচার পার্ক উচ্ছেদ

প্রকাশিত হয়েছে: ১৭-০৫-২০১৮ ইং ০৩:১৫:৪৭ | সংবাদটি ৯৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার বলেছেন, নদী রক্ষায় প্রয়োজনে ট্রাইব্যুনাল করা হবে। আলাদা কোর্ট করে দখলদারদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। নদীর জমিতে কখনো দলিল সম্পাদন করা যাবে না। বাংলাদেশের বিদ্যমান আইন অনেক কঠিন। এর সঠিক বাস্তবায়ন হলে কেউ ছাড় পাবে না। রোজার ঈদের পরে হবিগঞ্জের সায়হাম ফিউচার পার্ক উচ্ছেদের মধ্য দিয়ে হবিগঞ্জে নদী রক্ষার কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানান তিনি।
গতকাল বুধবার সিলেট বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘ সিলেট বিভাগের নদ-নদীর বর্তমান অবস্থা, বিদ্যমান সমস্যা এবং সমাধানে করণীয়’ বিষয়ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিভাগীয় নদী রক্ষা কমিটি সিলেট ও জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের ব্যবস্থাপনায় সিলেটের জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুমের সভাপতিত্বে সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন-জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সার্বক্ষনিক সদস্য মোঃ আলা উদ্দিন আহমদ। সিলেটের নদ নদীর বর্তমান অবস্থা নিয়ে দুটি স্লাইড শো প্রদর্শন করেন সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মৃণাল কান্তি দেব ও পানি উন্নয়ন বোর্ড সুনামগঞ্জ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বকর সিদ্দিক ভুইয়া। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন পানি উন্নয়ন বোর্ড সিলেটের ততা¡বধায়ক প্রকৌশলী, পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেটের পরিচালক মোঃ সালাহ উদ্দিন চৌধুরী, সিলেটের জেলা প্রশাসক নুমেরি জামান, বিশিষ্ট সাংবাদিক ও কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, মদন মোহন কলেজের সহকারী অধ্যাপক রজত কান্তি ভট্টাচার্য্য, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি সিলেট বিভাগীয় সমন্বয়কারী এডভোকেট শাহ সাহেদা, বাপা সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কীম, বাপার হবিগঞ্জের সেক্রেটারী তোফাজ্জল সুহেল, সারি বাচাঁও আন্দোলনের সেক্রেটারি আব্দুল হাই আল হাদী, পরিবেশ ও হাওর উন্নয় সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজা, বাসিয়া বাঁচাও ঐক্য পরিষদের ফজল খান, আদিল হোসেন প্রমুখ।
সেমিনারে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার আরো বলেন, নদীর জমি কাউকে বরাদ্দ দেয়া যাবে না। গৃহহীন বলে নদীর জমি দখলেরও কোন যৌক্তিকতা নেই। সরকার গৃহহীনদের ঘর তৈরী করে দিচ্ছে। প্রয়োজনে অন্য সরকারি জমি বরাদ্দ দেয়া হবে। তবুও নদী দখল করে স্থাপনা করা যাবে না। কমিশনের চেয়ারম্যান বলেন, নদী রক্ষায় প্রশাসনকে জিরো টলারেন্স দেখাতে বলা হয়েছে। দেশের সর্বোচ্চ আদালত প্রশাসনকে ব্যবস্থা গ্রহণের সর্বোচ্চ ক্ষমতা দিয়েছেন। প্রশাসনের সদিচ্ছায় এই দেশের বিদ্যমান আইন বাস্তবায়নে কোন বাধা নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।
সভাপতির বক্তব্যে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম বলেন, বুড়িগঙ্গায় যখন প্রথম ময়লা আবর্জনা ফেলা শুরু হয়, তখনও আমরা কর্মকর্তা ছিলাম। তখন বাধা দিলে আজ বুড়িগঙ্গার অবস্থা এমন হত না। তেমনি সিলেটের নদ নদীগুলো অনেক ঝুঁকিতে রয়েছে। এই নদী রক্ষায় আমাদের তৎপর হতে হবে। মানুষকে সচেতন করে তুলতে হবে। নদী বাঁচলে মানুষ বাঁচবে, এই শ্লোগান ছড়িয়ে দিতে হবে।
সিলেটের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) মৃনাল কান্তি দেব, তাঁর প্রতিবেদনে সিলেটের বর্তমান নদ নদীর অবস্থা তুলে ধরেন। তিনি জানান, বিশ্বনাথে বাসিয়া নদীর দখলদারদের তালিকা করা হয়েছে। জগন্নাথপুরের নলজুরসহ সিলেট বিভাগের বিভিন্ন দখলদারদের তালিকা তৈরী করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে উচ্ছেদ অভিযান চালানো হবে।
পানি উন্নয়ন বোর্ডের কার্যক্রম তুলে ধরেন সুনামগঞ্জের নির্বাহী প্রকৌশলী আববুবকর সিদ্দিক ভুইয়া নদী ড্রেজিং এর উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব বিবেচনা করে নদীর উভয় তীরে নির্মিত বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ডিজাইন লেভেল পুনঃনির্ধারণ করা প্রয়োজন। তিনি নদী রক্ষায় পাউবোর বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।
এদিকে, সকালে সেমিনার উপলক্ষে নগরীতে একটি র‌্যালী বের করা হয়। সিলেটের জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে র‌্যালীটি বের হয়ে নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে পুনরায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালীতে বিভিন্ন ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমির প্রশিক্ষণার্থীসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন। এ সময় জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়রাম্যান ড. মুজিবুর রহমান হাওলাদার উপস্থিত ইমাম প্রশিক্ষনার্থীদের নদী রক্ষায় ধর্মীয় দিক আলোচনার করা জন্য বলেন।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • বালাগঞ্জে বসতগৃহে হামলা ভাঙচুর আহত ৭
  • সকলে মিলে সমাজ ও দেশকে সুন্দর করে গড়তে হবে
  • রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা পূরণে চেম্বার ও ব্যবসায়ীদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ ---------কাস্টম্স কমিশনার
  • ‘ভূমিহীন বাস্তুহারাদের অবহেলিত রেখে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়’
  • হযরত শাহজালাল (রহ.) এর মাজার জিয়ারতের মাধ্যমে মিসবাহ সিরাজের উন্নয়ন ও নির্বাচনী প্রচারাভিযান শুরু
  • রেজিস্টারি মাঠে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ সফলের আহ্বান বিভিন্ন সংগঠনের
  • উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসকদের অনুপস্থিতির তালিকা চেয়েছেন হাইকোর্ট
  • ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঘ ইউনিটে উত্তীর্ণদের ফের পরীক্ষা দিতে হবে
  • আগে তো মইনুলকে গ্রেপ্তার করা হয়নি -------আইনমন্ত্রী
  • মিয়ানমারের ৫ জেনারেলের ওপর অস্ট্রেলিয়ার নিষেধাজ্ঞা
  • সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কে ১০ মিটার পর্যন্ত বৈদ্যুতিক খুঁটি অপসারণ ও স্থাপনে সওজ’র চিঠি
  • তরুণ প্রজন্মকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে গেছে সরকার: রিজভী
  • বিশ্বনাথে সিসি ক্যামেরা স্থাপন হচ্ছে
  • আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে দেশ থাকবে জঙ্গি ও মাদকমুক্ত -----------------শফিক চৌধুরী
  • নগরীর সুরমা মার্কেট কেন্দ্রীক অসামাজিক কার্যকলাপ বেড়েই চলেছে
  • নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নে সবাইকে সচেতন ও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে -----------------------মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী
  • দেশের অর্থনীতিতে ব্যবসায়ীদের অবদান সব থেকে বেশী
  • কমলগঞ্জে পলো বাওয়া উৎসব উদযাপিত
  • লাখাইয়ে জমি নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ : আহত ১০
  • সিলেট সাব রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল জালিয়াতদের রক্ষায় তৎপর একটি চক্র
  • Developed by: Sparkle IT