শেষের পাতা

ধর্মপাশা উপজেলায় নিমিত ইউপি কমপ্লেক্সগুলো জীর্ণ ও পরিত্যক্ত

প্রকাশিত হয়েছে: ২১-০৫-২০১৮ ইং ০৩:৪৭:১৯ | সংবাদটি ২৩৮ বার পঠিত

 

ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) থেকে গিয়াস উদ্দিন রানা ঃ ধর্মপাশা উপজেলার সিংহভাগ ইউপি কমপ্লেক্স এখন ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে বলে জানা গেছে।

জানা গেছে, সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় নি¤œমানের সামগ্রী দিয়ে প্রায় কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত প্রতিটি ইউপি কমপ্লেক্স নির্মাণের কয়েক বছর যেতে না যেতেই দরজা, জানালা, গ্রীল-চেয়ার, টেবিল, বাথরুমের অস্থিত্ব নেই। ভবনের ভিটে দেবে গিয়ে বিভিন্ন স্থানে ফাটল ধরে পলস্তারা খসে পড়ছে। কোটি টাকার ভবনগুলো এখন জরাজীর্ণ থাকায় ভবনের ছাদ দিয়ে পানি পড়ে বলে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানগণ সূত্রে জানা গেছে।

প্রতিটি ইউপি কমপ্লেক্সে ১০ থেকে ১২টি রুম রয়েছে। এসব রুম ইউপি সচিব, গ্রাম পুলিশ, আনসার ভিডিপি ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের দায়িত্বে কৃষি উপ সহকারি (মাঠ কর্মী) দের জন্য বরাদ্দ থাকলেও রাত্রি যাপনের সু ব্যবস্থা না থাকায় রুমগুলো জীর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

জানা যায়, স্থানীয় সরকার এলজিআরডি মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে এলজিইডির বাস্তবায়নে কোটি টাকা ব্যয়ে উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণের কয়েক বছর যেতে না যেতেই দরজা, জানালা, গ্রীল ভেঙ্গে পড়েছে। নি¤œমানের ও ডেমেজ সিমেন্ট, মড়া ও টেম্পার বিহীন বালু, ময়লা আবর্জনা যুক্ত নি¤œ মানের পাথর ব্যবহার করায় ধর্মপাশা সদর ইউনিয়ন পরিষদের কোটি টাকা ব্যয়ে ইউপি কমপ্লেক্সটির ভিটে দেবে চারদিকে ফাটল দেখা দিয়েছে। ভবনের লিন্টার ও প্রতিটি পিলার থেকে ঢালাই ছেড়ে দিয়ে বড় বড় ফাটল ধরেছে।

প্রায় ৩ বছর পূর্বে কোটি টাকা ব্যয়ে জয়শ্রী বাজারে ইউনিয়ন কমপ্লেক্স ভবনটি নির্মাণের শুরুতেই দরজা, জানালা ভেঙ্গে গেছে। ভবনটি নি¤œ মানের সামগ্রী দিয়ে অপরিকল্পিতভাবে নির্মাণ করায় জরাজীর্ণ অবস্থায় হয়েছে। ওই ভবনের কয়েকটি কক্ষ ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউপির ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সটি নি¤œমানের সামগ্রী ব্যবহার করায় নির্মাণের শুরুতেই নানান সমস্যায় জর্জরিত। সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সটি নির্মাণের ৭ বছর অতিবাহিত হলেও ওই নবনির্মিত ভবনে উক্ত ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যরা এক দিনও অফিস করতে পারেননি। ভবনটি নির্মাণের শুরুতেই দরজা, জানালা, গ্রীল ইত্যাদি ভেঙ্গে পড়লেও ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এসব ভাঙ্গা দরজা, জানালা ও গ্রীল মেরামত না করেই সিকিউরিটি সহ চূড়ান্ত বিলের টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায়। ওই ভবনের ফ্লোর দেবে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে ভবনের পলস্তারা খসে পড়েছে। ওই পরিত্যক্ত ভবনের ছাদ বেয়ে পানি পড়ছে। বর্তমানে ওই নবনির্মিত কোটি টাকার ভবনের বিভিন্ন কক্ষের ভিতর গরু-ছাগলের গোয়াল অপর দিকে জুয়া ও মদ-গাঁজার আসর বসছে।

উপজেলার ধর্মপাশা সদর ইউনিয়ন পরিষদ, জয়শ্রী ইউনিয়ন পরিষদ, রাজাপুর দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদ, সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবনে স্থানীয় সরকারের কার্যক্রম চলছে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। কিন্তু সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নে কোটি টাকা ব্যয়ে কমপ্লেক্সটি নির্মাণের শুরুতেই ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ায় ওই ভবনটি এখন পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে। জরাজীর্ণ ভবনগুলো জরুরি ভিত্তিতে মেরামতের প্রয়োজন বলে সকল ইউপি চেয়ারম্যানগণ দাবি জানান।

মধ্যনগর ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স না থাকায় মধ্যনগর বাজারে পরিষদের নিজস্ব একটি টিন সেট ঘরে পরিষদের কার্যক্রম পরিচালনা করে আসলেও পার্শ্ববর্তী চামরদানী ও দক্ষিণ বংশীকুন্ডা ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স না থাকায় জোড়া তালি দিয়ে চলছে পরিষদের কার্যক্রম। উত্তর বংশীকুন্ডা ইউনিয়নে ২০১৬-২০১৭ অর্থ বছরে মহেষখলা বাজারে নবনির্মিত কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণের কাজ চলছে। তবে কাজের কোন অগ্রগতি নেই।

সেলবরষ ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: নূর হোসেন জানান, ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নি¤œ মানের সামগ্রী দিয়ে দায়সাড়াভাবে ভবন নির্মাণ করায় ভবনের অধিকাংশ স্থানে ফাটল ধরেছে। নি¤œমানের কাঠ ব্যবহার করায় কমপ্লেক্সটির দক্ষিণ দিকের কয়েকটি কক্ষের দরজা-জানালা ভেঙ্গে গেছে। পানির মোটর অকেজো হওয়ায় ট্যাংকি ও বাথরুমের অস্তিত্ব নেই। জরুরি ভিত্তিতে পরিত্যক্ত কক্ষগুলো মেরামতের প্রয়োজন।

সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান মো: ফরহাদ আহমেদ সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, সরকার কোটি টাকা ব্যয় করে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স নির্মাণ করেছেন। কিšুÍ ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নি¤œ মানের সামগ্রী দিয়ে অপরিকল্পিত ভাবে ভবনটি নির্মাণের শুরুতেই দরজা-জানালা, গ্রীল-আসবাবপত্র ইত্যাদি ভেঙ্গে পড়লেও তা মেরামত করা হয়নি। রড-সিমেন্ট, বালু সঠিক ভাবে ব্যবহার না করায় ভবনের পলস্তারা খসে পড়ছে। ফ্লোর দেবে গিয়ে ভবনের ভিতর বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ভবনটির ছাদের টেম্পার না থাকায় ছাদ দিয়ে পানি পড়ছে। ফলে ইউনিয়ন পরিষদের কার্যক্রম চলছে এখন গোলকপুর বাজারে একটি ভাড়াটে ঘরে।

সুখাইড় রাজাপুর দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান আমানুর রাজা চৌধুরী জানান, ঠিকাদার নি¤œ মানের কাজ করে ভবনের কাজ সমাপ্ত করেছে। আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পরও নবনির্মিত ভবনটি আমাকে বুঝিয়ে দেয়া হয়নি। বরং আমার কাছ থেকে ছাড়পত্র ছাড়াই চূড়ান্ত বিলের টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেছে ঠিকাদার।

জয়শ্রী ইউপি চেয়ারম্যান সঞ্জয় রায় চৌধুরী জানান, জয়শ্রী ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সটি নির্মাণের ৩ বছর যেতে না যেতেই হল রুমের ছাদ ডেমেজ হয়ে ছাদ দিয়ে পানি পড়ছে। কমপ্লেক্সের সিংহভাগ দরজা, জানালা ভাঙ্গা, পলস্তারা খসে পড়ছে। ভবনের সিংহভাগ স্থান গর্ত ছিল, গর্তগুলো ড্রেজারের বালু দিয়ে ভরাট করা হয়েছে। বালু মাটির উপর ভবনটি নির্মাণ করা হলেও ভবনের বাহির দিকে প্রটেকশন ব্লক দেয়া হয়েছে তা একেবারে নি¤œমানের। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান দায়সারাভাবে নির্মাণ কাজ শেষ করে টাকা উত্তোলন করে নিয়ে গেলেও ভবনটি বর্তমানে  ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা এলজিইডি প্রকৌশলী মো: আব্দুল ওয়াদুদ জানান, ভবন গুলোতো আমি করিনি, এখানে আমার বলার কিছুই নেই। আমার যদি বলতে হয় তাহলে ভিজিট করে বলতে হবে। এর আগে কিছুই বলা যাবে না।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • দিপিকা-রনবীর পরিণয়ন
  • জেলা ক্রীড়া ভবনে সংবাদ সম্মেলন আজ
  • লাউড় রাজ্যের হলহলিয়া দুর্গ ও গৌড় গোবিন্দ রাজবাড়ির উৎখনন কাজ শুরু
  • জাতীয় সংসদ নির্বাচন সফল করতে সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালনের আহ্বান
  • জগন্নাথপুরে ফসল রক্ষা বেড়িবাঁধ কেটে মাছ ধরার অভিযোগ
  • লালবাজারে বাঘ মাছের দাম ছয় লাখ টাকা !
  • সিলেটে আয়কর মেলায় দুইদিনে আদায় ৬ কোটি ১৩ লাখ টাকা
  • ‘জঙ্গি হামলায় দুই বিচারক নিহত হওয়ার ঘটনা জাতির জন্য কলঙ্কজনক অধ্যায়’
  • প্রেসিডেন্টের ডিক্রি স্থগিত করল শ্রীলংকার সুপ্রিম কোর্ট
  • হাসিনা-এ ডটার’স টেল’র প্রিমিয়ার শো আজ
  • আদালতে ব্যস্ত রাখলে নির্বাচন করব কীভাবে: খালেদা
  • জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ
  • পরিমিত খাবার ও নিয়মিত ব্যায়ামের মাধ্যমেই ডায়াবেটিস প্রতিরোধ সম্ভব
  • ঘূর্ণিঝড় ‘গাজা’ এখনও বঙ্গোপসাগরে
  • শাহ্ আরফিনে টিলাধসে শ্রমিক নিহতের ঘটনায় হত্যা মামলা
  • মৌলভীবাজারে ৪টি আসনে আ’লীগের মনোনয়ন কিনলেন ২৭ জন
  • রিপোর্ট রাইটিং প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করে ------ প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী
  • দুর্নীতি প্রতিরোধে সামাজিক ঐক্যের বিকল্প নেই ------- নিরু শামসুন নাহার
  • সচেতনতার মাধ্যমে এইচআইভি প্রতিরোধ সম্ভব
  • পাঁচভাই রেস্টুরেন্টে অবৈধ পাখি জব্দ
  • Developed by: Sparkle IT