শেষের পাতা

বাংলাদেশ কাতারসহ ১৬ দেশকে পেছনে ফেলেছে

প্রকাশিত হয়েছে: ২৫-০৬-২০১৮ ইং ০৩:২১:২৮ | সংবাদটি ১২১ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেছেন, ‘বাংলাদেশ গেল ১০ বছর হত দরিদ্র ছিল। কিন্তু এখন আর হত দরিদ্র নেই। বিশ্ব অর্থনীতিতে এই এক দশকে বাংলাদেশ ১৬ দেশকে ডিঙ্গিয়েছে। আগামী ২২ বছরে এ দেশ আরও ২২ দেশকে পেছনে ফেলবে।’

গতকাল রোববার রাজধানীর গুলশানে লেকশোর হোটেলে সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ- সিপিডি আয়োজিত প্রস্তাবিত বাজেটে নিয়ে পর্যালোচনায় তিনি বাংলাদেশের উন্নয়ন সম্পর্কে এ তথ্য দেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘গতবার যখন সিপিডি প্রোগামে এসেছিলাম, তখন হতদরিদ্র হিসেবেই এসেছিলাম। এখন আমরা হতদরিদ্র নেই। কিছু দিন আগেই জাতিসংঘ আমাদের উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি দিয়েছে। তার আগে বিশ্বব্যাংক নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশের স্বীকৃতি দেয়।’

‘দরিদ্র শ্রেণির বন্ধনি থেকে আমরা বেরিয়ে আসতে পেরেছি। আরও একটি সুখবর হচ্ছে- ১০ বছর আগে পৃথিবীর অর্থনীতিতে আমাদের অবস্থান ছিল ৫৮তম দেশ। এই ১০ বছরে আমরা ১৬টি দেশকে ডিঙ্গিয়ে- আমাদের অবস্থান এখন ৪২তম স্থানে। এই ১৬টি দেশ হলো- ফিনল্যান্ড, স্লোাভাকিয়া, রোমানিয়া, নিউজিল্যান্ড, কাতার, ভিয়েতনাম, পর্তুগাল, গ্রিস, পেরু, ইরাক, আলজেরিয়া, কাজাখস্তান, হাঙ্গেরি, কুয়েত, সুদান ও তেল সমৃদ্ধ দেশ ভেনেজুয়েলা।’

আ হ ম মুস্তাফা কামাল বলেন, ‘আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে এই ৪২ থেকে উন্নত দেশে পাড়ি দেয়া। এটা আমারা করতে পারবো ইনশাল্লাহ।’

তিনি বলেন, ‘আমরা যদি ১০ বছরে ১৬টি দেশকে টপকাতে পারি, তাহলে ২০৪১ সালে আমাদের উন্নত দেশ হওয়ার যে স্বপ্ন আছে, তা পূরণ করতে পারবো। প্রতি বছর একটি করে দেশকে পিছিয়ে ফেলে ২২ বছরে ২২টি দেশকে টপকে যাবে বাংলাদেশ। তখন বিশ্ব অর্থনীতিতে বাংলাদেশের অবস্থান হবে ২০তম। আমরা জি-২০ বা এলিট ক্লাসে পৌঁছে যাবো।’

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের যে রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা তা হয়তো আমরা অর্জন পারিনি। এর পেছনে মূল সমস্যা হচ্ছে- পাওয়ার। এনার্জি না থাকলে ইন্ডাস্ট্রি হয় না। আর এটা না হলে আউটপুটও পাবেন না। আর রপ্তানিরও কোনও ব্যবস্থা থাকবে না।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, মেট্রোপলিটন চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এমসিসিআই) সভাপতি ব্যারিস্টার নিহাদ কবির উপস্থিত ছিলেন।

বাজেট পর্যালোচনা ও সুপারিশ আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিপিডির নির্বাহী পরিচালক ড. ফাহমিদা খাতুন। সিপিডি’র সম্মাননীয় ফেলো অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান সংলাপে সঞ্চালনার দায়িত্ব পালন করেন। আর সভাপতিত্ব করেন সিপিডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক রেহমান সোবহান।

পরিকল্পনামন্ত্রী এ সময় ব্যাংক খাতে অনিয়মকারি কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানান। তিনি বলেন, ব্যাংকিং খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে আরো শক্তিশালী করা হবে। তিনি বলেন, অনিয়মের জন্য ফারমার্স ব্যাংকের ১৪ জনকে জেলে পাঠানো হয়েছে। তবে যারা নিয়ম মেনে ব্যবসা করবে তাদেরও সব ধরনের সহযোগিতা করবে সরকার।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • ছবি
  • ছবি
  • চিকিৎসা মানুষের মৌলিক অধিকার হলেও শতভাগ বাস্তবায়ন এখনো সম্ভব হয়নি ------- নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি
  • ২১ জনকে একুশে পদক দিলেন প্রধানমন্ত্রী
  • কোর্টরুমে সাংবাদিকদের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করতে হবে: প্রধান বিচারপতি
  • সম্মিলিত নাট্য পরিষদের একুশের অনুষ্ঠানমালা শুরু
  • বিশ্বনাথে ১৩২টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট কাউন্সিল নির্বাচন সম্পন্ন
  • হবিগঞ্জে কৃষক হত্যা মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন
  • নগরীর শিবগঞ্জে তুলা শ্রমিক খুন
  • ধর্মপাশায় পাগলা কুকুরের কামড়ে নারী ও শিশুসহ আহত ২৯
  • জগন্নাথপুরে মুচলেকায় ছাড়া পেলেন চার পিআইসি সভাপতি
  • সাব্বিরের সেঞ্চুরির পরও হোয়াইটওয়াশের লজ্জা পেল বাংলাদেশ
  • আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কর্মসূচি
  • প্রতিবন্ধীদের মূল ধারায় নিয়ে আসতে হলে তাদের সুশিক্ষিত করতে হবে ............. প্রফেসর ড. মো: কামরুজ্জামান চৌধুরী
  • পররাষ্ট্রমন্ত্রী সিলেট আসছেন কাল
  • সিলেট বোর্ডে এসএসসির গতকালের পরীক্ষায় অনুপস্থিত ৫৫ জন
  • ওসমানীনগরে ডিজিটাল হাজিরার উদ্বোধন
  • কাবিং, স্কাউটিং ও রোভারিং শিক্ষার্থীদের শৃঙ্খলাবোধ ও দেশপ্রেমের শিক্ষা দেয় ------------------------নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি
  • মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জেলা ও মহানগর বিএনপি’র কর্মসূচি
  • জগন্নাথপুর রানীগঞ্জের এক দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীর আকুতি
  • Developed by: Sparkle IT