প্রথম পাতা

লামাবাজারে শিক্ষক দম্পতিকে অজ্ঞান করে জরুরি জিনিসপত্র লুট

স্টাফ রিপোর্টার প্রকাশিত হয়েছে: ১৫-০৮-২০১৮ ইং ০৩:০১:৩৪ | সংবাদটি ৩৮৮ বার পঠিত
Image

 সিলেট নগরীর লামাবাজার এলাকায় এক শিক্ষক দম্পতির পরিবারের সদস্যদের অজ্ঞান করে স্বর্ণালংকারসহ জরুরি জিনিসপত্র নিয়ে গেছে একদল প্রশিক্ষিত চোর। গতকাল মঙ্গলবার রাতে ছায়াতরু ৫৬ নং বাসার ৩য় তলায় শামসুল আলম নামের এক শিক্ষকের বাসায় এ ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ওই শিক্ষক দম্পতি স্বাভাবিক হতে পারেননি। খবর পেয়ে পুলিশ বাসায় গিয়ে তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।
স্বজনরা জানান, শামসুল আলম ও তার স্ত্রী দুজন পেশায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। একজন বালাগঞ্জে ও অন্যজন দক্ষিণ সুরমায় শিক্ষকতা করছেন। সোমবার রাতে প্রতিদিনের মতো রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন তারা। সকাল গড়িয়ে দুপুর হলেও কেউ ঘুম থেকে জাগেননি। কাজের মেয়ে পারভীন রাতের বেলা একটা ছেলেকে বাসায় দেখলেও সে ভালোভাবে তাকে চিনতে পারেনি। সেও তেমন কিছু বলতে পারছে না।
সকালে স্কুলে না যাওয়ায় তার সহকর্মীরা শামসুল আলমের ফোনে যোগাযোগ করেন। কিন্তু, কেউ ফোন রিসিভ করেননি। দুপুরে শামসুল আলমের স্ত্রীর বড় ভাই হাফিজ উদ্দিন বাসায় এসে দরজা ভেতর থেকে তালা লাগানো দেখেন। কাজের মেয়ে কোনো রকম দরজা খুলে দিলেও সেও তেমন কিছু বলতে পারছিল না।
হাফিজ উদ্দিন তার ভগ্নিপতি ও বোন এবং ভাগনাকে জাগানোর চেষ্টা করলেও ব্যর্থ হন। এরই মধ্যে লামাবাজার পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। চিকিৎসকরা ধারণা করছেন, তাদের স্প্রে জাতীয় কিছু প্রয়োগ করে অজ্ঞান করা হয়।
এদিকে, পুলিশ সদস্যদের উপস্থিতিতে যে কক্ষের ভেতর দিয়ে দরজা লাগানো ছিলো, সেই দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে দেখা যায়, জানালার গ্রিলের একটি রড ভাঙা। ধারণা করা হচ্ছে, এই পথ দিয়েই চোর ঘরে প্রবেশ করে। তবে, জরুরি জিনিসপত্রের মধ্যে কি কি খোয়া গেছে-সে সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে না।
পরিবারের সদস্যরা জানান, শিক্ষক শামসুল আলমও তার পরিবারের সদস্যরা এখনো স্বাভাবিকভাবে কিছু বলতে পারছেন না। ডাক্তারের পরামর্শে তারা বেশিরভাগ সময় জুড়ে ঘুমিয়ে সময় পার করছেন। ওসমানী হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ঘুমের ঘোর কেটে গেলে তারা এমনিতেই স্বাভাবিক হয়ে উঠবেন।
মঙ্গলবার রাত ৮টায় বাসায় গিয়ে দেখা যায়, শিক্ষক দম্পতি স্বজনদের সাথে কথা বলতে চাইলেও চোখ মেলে তাকাতে পারছেন না।
এ ব্যাপারে লামাবাজার পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ শাহীন মিয়া জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ফাঁড়ি থেকে মাত্র কয়েক গজ দূরে এমন একটি ঘটনা কিভাবে ঘটলো জানতে চাইলে শাহীন মিয়া বলেন, বিষয়টি চুরির। একটি জানালার গ্রিল কেটে চোর ভেতরে ঢুকেছে। অভিযোগ পেলে পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নেবে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ডাঃ জাফর উল্লাহ করোনা আক্রান্ত, নিজের ল্যাবেই সংক্রমণ ধরা পড়ে
  • বঙ্গবন্ধু মহাসড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় কিশোরের মৃত্যু
  • করোনাভাইরাস: নাদেল-আজাদের একাকীত্বের ঈদ
  • শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদী
  • ঈদের দিনেও চালু শাবির করোনা শনাক্তকরণ ল্যাব
  • করোনাভাইরাস: সুনামগঞ্জে সুস্থতার হার বেশী, সিলেটে সর্বনিম্ন
  • ‘কেন মা কোলে নেয় না, আদর করে না, কবে মাকে জড়িয়ে ধরব?’
  • সিলেট সদরের বিশিষ্ট মুরব্বি লিয়াকত হাজীর ইন্তেকাল
  • বিত্তবানদের দ্ররিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানালেন রাষ্ট্রপতি
  • ঈদে মুক্তিযোদ্ধাদের ফুল, ফল ও মিষ্টি পাঠালেন প্রধানমন্ত্রী
  • আজ সর্বোচ্চ শনাক্ত ১৯৭৫, মৃত্যু আরও ২১
  • ঈদ জামাতে সিজদারত অবস্থায় ইমামের মৃত্যু!
  • ঈদ উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা
  • নগরীতে করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
  • নজরুলের জন্মদিনে গুগলের বিশেষ ডুডল
  • ঈদের দিনে ভয়াবহ ভূমিকম্পে কাঁপলো ইরানে
  • জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২১তম জন্মবার্ষিকী আজ
  • সিলেটে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত
  • ২০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ করোনায় আক্রান্ত
  • আজ ঈদ, অন্যরকম ঈদ, ব্যতিক্রম আনন্দ
  • Image

    Developed by:Sparkle IT