স্বাস্থ্য কুশল

বিষন্নতা একটি মানসিক রোগ

ডা. শৈলেন্দ্র কুমার দাশ প্রকাশিত হয়েছে: ১০-০৯-২০১৮ ইং ০১:০৭:১৮ | সংবাদটি ১৩৬ বার পঠিত

স্নায়ু ও মানসিক রোগসমূহ : মানসিক রোগ ও কারণ (Mental Disease & its Causes), প্রচ- উন্মাদ রোগ (Excitement & Mania), নিউরোসিস (Anxiety Neurosis) সাইকোসিস/বিষাদ বায়ু রোগ (Psycosis/ Depressive Mania), অনিন্দ্রা বা নিদ্রাহীনতা (Insomnia), মৃগীরোগ (Epilepsy), হিষ্টিরিয়া (Hysteria), প্যারালাইসিস এজিটানস বা কাপুনে পক্ষাঘাত (Paralysis Agitans), সিজোফ্রেনিয়া (Schizophrenia), প্যারালাইসিস বা পক্ষাঘাত (Paralysis), ফেসিয়াল পেলসি (Facial Pelsy), সেরিব্রোস্পাইনাল মেনিনজাইটিস(Cerbrospinal Meningitis), টিউবারকুলাস মেনিনজাইটিস (Tuberculus Meningities), মাইগ্রেন বা শিরপীড়া (Migrane), মাথা ব্যাথা (Headache), পারকিনসনের (Parkinson’s Disease)|
মাদকাসক্তির লক্ষণ সমূহ : হঠাৎ নতুন বন্ধু বান্ধবের সাথে চলাফেরা আরম্ভ করা। বিভিন্ন অজুহাতে ঘন ঘন টাকা চাওয়া। ক্রমান্বয়ে বিলম্বে বাড়িতে ফেরত আসা। পেঁচার মতো দিনে ঘুম ও রাতে জেগে থাকার প্রবণতা। ঘুম থেকে জাগার পর অস্বাভাবিক আচরণ করা। খাওয়া দাওয়া কমিয়ে দেওয়া এবং ওজন কমতে থাকা। অতিরিক্ত মাত্রায় মিষ্টি খেতে আরম্ভ করা ও ঘন ঘন চা, সিগারেট পান করা। বই/ পত্রিকা/ ম্যাগাজিন পড়ার বাহানায় দীর্ঘ সময় টয়লেটে কাটানো। অকারণে বিরক্ত হতে আরম্ভ করা এবং মন-মানসিকতার আকস্মিক মারাত্মক পরিবর্তন দেখা দেয়। কামরায় সিগারেটের তামাক আলগা পড়ে থাকতে অথবা প্লাষ্টিকের ছোট বোতল, কাগজের পুরিয়া, ইনজেকশন এর খালি শিশি, পোড়ানো দিয়াশলাই এর কাঠি ইত্যাদি ঘন ঘন পাওয়া যায়। লেখাপড়া খেলাধূলাসহ স্বাভাবিক কাজকর্মে আগ্রহ হীনতা, প্রচুর ঘাম হওয়া, অস্থিরতা ও অস্বস্থি বোধ করা। কোষ্ঠকাঠিন্যে ভোগা অথবা ঘন ঘন পাতলা পায়খানা হওয়া, যৌন ক্রিয়ার অনিহা ও যৌন ক্ষমতা হ্রাস। মিথ্যা কথা বলার প্রবণতা, পরিবারের সদস্যদের সাথে গরমিল। এরূপ এক বা একাধিক ঘটনা ঘটলে আপনার সন্তানকে মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করে তার জীবন বাঁচাতে পারেন। সজাগ ও সতর্ক থাকলে আপনি আপনার সন্তানকে মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করে তার জীবন বাঁচাতে পারেন। সময়মতো সুচিকিৎসা আপনার সন্তানের স্বাভাবিক জীবন ফিরিয়ে দিতে পারেন।
মানসিক রোগের লক্ষণ সমূহ : অনর্গল বা অতিরিক্ত কথা বলা এবং দ্রুত গতিতে কথা বলা। অসংলগ্ন কথাবার্তা, ধারণা সমূহের মধ্যে অসংগতি, নিরর্থক কথাবার্তা, একা একা কথা বলা বা বিড় বিড় করা। নেতিবাচক আত্মধারণা, নিজেকে দোষ দেওয়া বা অপরাধ বোধ করা। আবেগ-শুন্যতা অথবা অনুপযুক্ত আবেগ সৃষ্টি বা আগ্রহের অভাব। বিষাদগ্রস্ততা যেমনÑনিজের ব্যস্ত কাজকর্মের প্রতি অনাগ্রহ ও আনন্দহীনতা। অলৌকিক প্রত্যক্ষণ (Hallucination) যেমনÑআজগুবী শব্দ বা নির্দেশ শোনা বা চোখে আজগুবি কিছু দেখা বা নিজেকে অপার ক্ষমতাবান মনে করা। ভ্রান্ত বিশ্বাস (Delusion), সন্দেহ প্রবণতা। মাত্রাতিরিক্ত অস্থিরতা এবং ব্যক্তি বা বস্তু থেকে নিরর্থক ভয় পাওয়া। অদ্ভুত আচরণ(Bizarre behaviour) বা অদ্ভুত অঙ্গভঙ্গি (Catatonic behaviour)| । ব্যক্তি কোনো কাজে মনোনিবেশ করতে পারে না বলে অভিযোগ করে বা প্রতীয়মান হয় যে, তার চিন্তার গতি কমে যায় এবং সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে। ক্ষুধা কম থাকে, ওজন কমে যায় অথবা ক্ষুধা বেড়ে যায়, ওজন বাড়ে। বারবার আত্মহত্যা অথবা মৃত্যুর চিন্তা করা ইত্যাদি।

শেয়ার করুন
স্বাস্থ্য কুশল এর আরো সংবাদ
  • কম বয়সে হৃদরোগের ঝুঁকি
  • শিশুর কয়েকটি অসুখ ও পরামর্শ
  • হাড়ক্ষয় রোগ শনাক্ত ও চিকিৎসা
  • শীতে নাক কান গলার সমস্যা ও সমাধান
  •   নীরব ঘাতক রক্তচাপ
  • গর্ভাবস্থায় কী খাবেন
  •   মাতৃস্বাস্থ্য ও মাতৃমৃত্যু কিছু কথা
  • সচেতন হলেই প্রতিরোধ ৬০ শতাংশ কিডনী রোগ
  •   হৃদরোগীদের খাবার-দাবার
  • ঘামাচি থেকে মুক্তির উপায়
  • মুখে ঘা হলে করণীয়
  • পায়ের গোড়ালি ব্যথায় কী করবেন
  • নীরব রোগ হৃদরোগ
  • পরিচিত ভেষজের মাধ্যমে অর্শের চিকিৎসা
  • অনিদ্রার অন্যতম কারণ বিষন্নতা
  • রক্তশূন্যতায় করণীয়
  • চোখে যখন অ্যালার্জি
  • স্বাস্থ্যঝুঁকি থেকে বাঁচার ১০টি উপায়
  • রোগ প্রতিরোধে লেবু
  •  স্মৃতিশক্তি ও মস্তিষ্কের যত্ন নিন
  • Developed by: Sparkle IT