সম্পাদকীয়

সড়কে ‘জীবন্ত বোমা’

প্রকাশিত হয়েছে: ১১-০৯-২০১৮ ইং ০০:৫৪:৩৯ | সংবাদটি ১০৮ বার পঠিত

‘গাড়ি নয় জীবন্ত বোমা’। এই শিরোনামে সম্প্রতি একটি জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত খবরে বেশ তোলপাড় হয়। মূলত মেয়াদোত্তীর্ণ গ্যাস সিলি-ার দিয়ে যেসব যানবাহন চলাচল করছে সড়কে, সেগুলোকেই বলা হচ্ছে ‘জীবন্ত বোমা’। মানে এইসব সিলি-ারে যেকোনো সময় বিস্ফোরণ ঘটে দুর্ঘটনার আশঙ্কা রয়েছে। যানবাহনের সিলি-ার বিস্ফোরণে প্রাণহানির ঘটনা ঘটছে প্রায়ই। এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত তিন বছরে সিএনজি চালিত একশ ৭৫টি গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছে প্রায় চারশ জন। সরকারি সূত্রেই জানা গেছে, সারাদেশে সরকারি বেসরকারি মিলিয়ে একশ’ ৮০টি সিএনজি কনভার্সন সেন্টার রয়েছে। আর এগুলোতে এ পর্যন্ত দুই লাখ ৫৪ হাজার পাঁচশ’ গাড়ি জ্বালানী তেল থেকে সিএনজিতে রূপান্তরিত করা হয়েছে। এসব গাড়িতে সিলি-ার রয়েছে চার লাখ। সবচেয়ে দুঃখজনক হচ্ছে, এই সিলি-ারগুলোর মধ্যে অনেকগুলোরই মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে। এই সিলি-ারগুলো নিয়মিত পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয় না। গত পাঁচ বছরে সর্বোচ্চ এক লাখ সিলি-ার রিটেস্ট করা হয়েছে। বাকি তিন লাখের বেশি সিলি-ার আজ পর্যন্ত একবারের জন্যও রিটেস্ট করা হয়নি।
সড়কে চলছে ‘অরাজকতা’। দুর্ঘটনায় প্রাণহানির ঘটনা হয়ে ওঠেছে নিত্যদিনের বিষয়। আর সেই দুর্ঘটনার ভয়াবহতা বাড়িয়ে দিয়েছে মেয়াদোত্তীর্ণ-নি¤œমানের সিএনজি গ্যাস সিলি-ার। দুর্বল গ্যাস সিলি-ারযুক্ত যানবাহন দুর্ঘটনা কবলিত হলে সহজেই সিলি-ারে বিস্ফোরণ ঘটে এবং আগুন ধরে যায়। ফলে দুর্ঘটনায় ক্ষয়ক্ষতির মাত্রা বেড়ে যায়। তাছাড়া চলন্ত অবস্থায়ও যানবাহনের গ্যাসসিলি-ার বিস্ফোরণ ঘটছে। এতে যানবাহন পুড়ে যাচ্ছে, ঘটছে প্রাণহানি। তাই ত্রুটিযুক্ত যানবাহনগুলো একেকটি ‘জীবন্ত বোমা’ হিসেবেই আবির্ভূত হচ্ছে। তাছাড়া দেশে এ পর্যন্ত সিএনজি চালিত যেসব সিলি-ার বিস্ফোরিত হয়েছে তার কোনটিতেই কোন ধরণের সেফটি সিস্টেম ছিলো না। ইদানিং পুরনো জাহাজের মেয়াদোত্তীর্ণ গ্যাস সিলি-ারকেও গাড়িতে ব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। আর এইসব সিলি-ার চালিত যানবাহনের যাত্রী ছাড়াও পথচারী এবং অন্য যানবাহনের চালক-যাত্রীও দুর্ঘটনার শিকার হতে পারে। গৃহস্থালীর কাজে ব্যবহৃত গ্যাস সিলি-ারগুলোও নাগরিকদের জীবনের জন্য হুমকি হয়ে ওঠেছে। জানা গেছে, সিএনজি সিলি-ারে প্রতি বর্গ ইঞ্চিতে ৩২শ’ পাউন্ড চাপে গ্যাস ভরা হয়। ওই সময় গাড়ি ভয়াবহ বোমা হয়ে বিস্ফোরণের মাধ্যধে বিপদ ঘটাতে পারে। এই আশংকা রোধে গ্যাস সিলি-ারের সঠিক মান রক্ষা করা জরুরি।
মেয়াদোত্তীর্ণ গ্যাস সিলি-ার ব্যবহারের ওপর কড়া নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা জরুরি। আর অন্তত পাঁচ বছরের মধ্যে সিলি-ারগুলো রিটেস্ট করতে বাধ্যবাধকতা আরোপ করতে হবে। সড়কে মেয়াদোত্তীর্ণ গ্যাস সিলি-ারবাহী যানবাহনের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো জরুরি। বন্ধ করতে হবে নি¤œমানের সিএনজি কনভার্সন সেন্টারগুলো। মেয়াদোত্তীর্ণ সিএনজি সিলি-ারচালিত প্রায় তিন লাখ যানবাহন অচিরেই চিহ্নিত করে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেই আমরা আশা করছি। এই ব্যাপারে যানবাহনের চালক-মালিকদেরও সচেতন হতে হবে।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT