সম্পাদকীয় সত্যি আল্লাহ কোমল এবং তিনি কোমলতা পছন্দ করেন, তিনি কোমল স্বভাবী মানুষকে তা দেবেন যা কঠোর স্বভাবীকে দেন না। - আল হাদিস

স্থানীয় সরকারের ক্ষমতা

প্রকাশিত হয়েছে: ১৪-০৯-২০১৮ ইং ০০:৫২:১১ | সংবাদটি ১৪ বার পঠিত

স্থানীয় সরকারের ক্ষমতা বৃদ্ধি নিয়ে দেশের বুদ্ধিজীবী মহলে দীর্ঘদিন ধরে বলাবলি হচ্ছে। কিন্তু স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষমতা- কার্যপরিধি বৃদ্ধি পায়নি প্রত্যাশিতভাবে। বিশেষ করে উপজেলা এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ক্ষমতা বৃদ্ধি, স্বাধীনভাবে কাজ করার সুবিধা ও স্থানীয়ভাবে প্রকল্প নির্বাচন ও বাস্তবায়নের ওপর জোর দেয়া হচ্ছে। সেই সঙ্গে আরও যেসব বিষয় আলোচিত হচ্ছে তাহলো- উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ থেকে জনসাধারণ কী ধরনের সুবিধা পাবে, কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে স্থানীয় সরকারের সম্পর্ক কী হবে ইত্যাদি। এই ব্যাপারগুলো নির্ধারণ হলে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে স্থানীয় সরকারের ভারসাম্য বজায় থাকবে। কারণ বর্তমানে যে পদ্ধতিতে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ চলছে, তাতে সর্বক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের মুখাপেক্ষী হয়ে থাকতে হয়। ফলে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের নিজস্ব কাঠামো দুর্বল হয়ে পড়ে।
স্থানীয় সরকার বিভাগের তৃণমূল পর্যায়ের প্রতিষ্ঠান ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের নাগরিকদের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হন চেয়ারম্যান-মেম্বারগণ। বিশেষ করে ইউনিয়ন পরিষদের নানা উন্নয়ন কর্মকা- বাস্তবায়ন করছে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিগণ সুদূর অতীত থেকে। সাম্প্রতিক সময়ে সেই ঐতিহ্য হারিয়ে যেতে বসেছে। জনগণ বিপুল উৎসাহে তাদের চেয়ারম্যান মেম্বার নির্বাচিত করলেও তাদের কাছ থেকে প্রত্যাশিত সেবা তারা পাচ্ছে না। অর্থাৎ চেয়ারম্যান মেম্বারগণ জনগণের জন্য খুব একটা কিছু করার তেমন সুযোগই পাচ্ছে না। উন্নয়ন কর্মকা-ে সম্পৃক্ত হওয়া, কিংবা গ্রাম্য সালিশে ভূমিকা রাখার সুযোগ নেই খুব একটা তাদের। উপজেলা জনপ্রতিনিধিদেরও একই অবস্থা। এই দু’টি প্রতিষ্ঠানের ঐতিহ্যকে ধরে রাখার জন্য এগুলোর ক্ষমতা বৃদ্ধিসহ অন্যান্য সংস্কার জরুরি। বিশেষ করে আর্থিক বরাদ্দ বৃদ্ধি এবং প্রতি বছরের বাজেট জনসমক্ষে প্রকাশ করার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বব্যাংকের পরামর্শে ইউনিয়ন পরিষদের প্রতি আর্থিক বছরের বাজেট উন্মুক্ত সভায় প্রকাশ করার কার্যক্রম ইতোমধ্যেই চালু হয়েছে। কিন্তু ইউনিয়ন পরিষদের বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনার জন্য জনপ্রতিনিধি সহ এলাকার বিভিন্ন স্তরের ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে গঠিত কমিটিগুলোর তৎপরতা নেই বললেই চলে।
স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে শক্তিশালী করা জরুরী। জনগণ অনেক আশা ভরসা নিয়ে উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের প্রতিনিধিদের নির্বাচিত করে। এলাকার সার্বিক উন্নয়ন-অগ্রগতি কিংবা মানুষের সুখে-দুঃখে জনগণের পাশে থাকবেন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিগণ এলাকাবাসীর এমনি প্রত্যাশা। প্রকৃতপক্ষে সেটা হচ্ছে না। উন্নয়ন কর্মকা-ে যেমন তাদের ভূমিকা ক্ষীণ, তেমনি নির্বাচিত হওয়ার পর বেশির ভাগ ক্ষেত্রে জনগণের সঙ্গে তাদের দূরত্ব সৃষ্টি হতে থাকে। এর পেছনে রয়েছে নানা কারণ। অন্যতম হচ্ছে রাজনৈতিক চাপ। এই সবকিছু ছাপিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ ও উপজেলা পরিষদের জনকল্যাণে কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি হোক, এটাই আমরা চাই।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT