উপ সম্পাদকীয় চিঠিপত্র

সংযোগ সেতু চাই

প্রকাশিত হয়েছে: ১৯-০৯-২০১৮ ইং ০০:৩৮:৫৬ | সংবাদটি ১০৫ বার পঠিত

বরমচাল থেকে কুলাউড়া উপজেলা সদরের দূরত্ব কতটুকু, এমন প্রশ্ন অনেকের। অতীতে ভাটেরা, বরমচাল ও কুলাউড়ার মধ্যে যোগাযোগের একমাত্র ভরসা ছিলো রেলপথ। পরবর্তীতে ১৯৯২ সালে ফেঞ্চুগঞ্জ-বরমচাল-ব্রাহ্মণবাজার সড়ক সংস্কার ও চালু হলে ফেঞ্চুগঞ্জ থেকে ভাটেরা, বরমচাল ও ব্রাহ্মণবাজার হয়ে কুলাউড়া উপজেলা সদরের সাথে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা স্থাপিত হয়। কিন্তু এই সড়কপথে বরমচাল থেকে ব্রাহ্মণবাজার হয়ে কুলাউড়া উপজেলা সদরের দুরত্ব দাঁড়ায় ১৫ কিলোমিটার। অথচ চরমচাল-কুলাউড়া রেলপথের উত্তর দিকে নন্দনগর রেলক্রসিং থেকে ছকাপন রেলস্টেশনের মধ্য দিয়ে উত্তর কুলাউড়া রেলক্রসিং পর্যন্ত একটি সংযোগ সড়ক নির্মাণ করলে কুলাউড়া উপজেলা সদরের সাথে বরমচালের দুরত্ব দাঁড়াবে মাত্র ছয় কিলোমিটারে। অর্থাৎ ভাটেরা ও বরমচাল থেকে কুলাউড়া উপজেলা সদরের দূরত্ব ৯ কিলোমিটার কমে যাবে। ভাটেরা, বরমচাল, কাদিপুর ও ভুকশিমইল এই চারটি ইউনিয়ন হয়ে যাবে কুলাউড়া উপজেলা সদরের পাশের বাড়ী, পাশের ঘর। তাছাড়া ফেঞ্চুগঞ্জ তথা সিলেটের সাথে কুলাউড়া ও জুড়ি এই দুই উপজেলার সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজতর হবে। সংশ্লিষ্ট এলাকার জনপ্রতিনিধিরা উদ্যোগী ও তৎপর হলেই এই ছয় কিলোমিটার সড়ক নির্মাণ ও বাস্তবায়ন সম্ভব হবে।
রতœজিৎ রায় চৌধুরী
কুলাউড়া, মৌলভীবাজার।

শেয়ার করুন
উপ সম্পাদকীয় এর আরো সংবাদ
  • মৃত্যুঞ্জয়ী বীর জেনারেল ওসমানী
  • বই পড়ার আনন্দ
  • যে মৃত্যু স্বাভাবিক মৃত্যুর প্রতিদ্বন্দ্বী
  • প্রসঙ্গ : শিক্ষা ও নৈতিকতা
  • শিক্ষার গুণগত মান
  • ভ্যালেন্টাইনস ডে
  • রোহিঙ্গা সমস্যা ও বাংলাদেশ
  • চীনে মানবাধিকার বঞ্চিত উইঘুর সম্প্রদায়
  • সিলেটে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বপ্ন ও শাবির ২৮ বছর
  • উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ও কিছু ভাবনা
  • ঋণ খেলাপি এবং অন্যান্য প্রসঙ্গ
  • স্বীকৃতি যেন জীবদ্দশাতেই হয়
  • অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় এগিয়ে যাক দেশ
  • আমাদের ভাষাপ্রীতি ও বাস্তবতা
  • ভিক্ষা বৃত্তিতে শিশু, কর্মক্ষম নারী ও পুরুষ
  • সড়ক দুর্ঘটনা বন্ধ করতে হলে-
  • পুলিশ সপ্তাহ ও জনগণের প্রত্যাশা
  • বিদ্যাদেবী বীণাপাণি
  • নারীর মর্যাদা : একাল সেকাল
  • দৃষ্টির বাইরে, অনুভূতির নিরিখে
  • Developed by: Sparkle IT