প্রথম পাতা

পাস হল ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল

ডাক ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ২০-০৯-২০১৮ ইং ০২:২৮:২২ | সংবাদটি ১৭৬ বার পঠিত

 তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ব্যাপক সমালোচিত ৫৭সহ কয়েকটি ধারা বাতিল করে নতুন ডিজিটাল নিরাপত্তা বিল সংসদে পাস হয়েছে।
তবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের বাতিল হওয়া ধারাগুলো নতুন আইনের বিভিন্ন ধারায় রয়ে গেছে বলে তা নিয়ে উদ্বেগ রয়ে গেছে আগের মতোই।
প্রস্তাবিত আইনটিকে ‘স্বাধীন সাংবাদিকতা ও গণতন্ত্রের জন্য হুমকি’ হিসেবে চিহ্নিত করে তা পাস না করতে এক সপ্তাহ আগেও আহ্বান জানিয়েছিল সম্পাদক পরিষদ।
এর মধ্যেই গতকাল বুধবার সংসদে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার বিলটি পাসের প্রস্তাব করেন। এটি কণ্ঠভোটে পাস হয়।
এর আগে বিলের উপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করা হয়।
গত ২৯ জানুয়ারি ‘ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন-২০১৮’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। এরপর গত ৯ এপ্রিল তা সংসদে উত্থাপন করেন মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার।
আইনটি মন্ত্রিসভায় ওঠার পর থেকেই এর বিভিন্ন ধারা নিয়ে সমালোচনা করে আসছে গণমাধ্যম সংশ্লিষ্টরা। তাদের দাবি, এই আইনের ফলে ‘স্বাধীন’ সাংবাদিকতা বাধাগ্রস্ত হবে।
খসড়া আইনটি সংসদে তোলার পর তা পরীক্ষা করে প্রতিবেদন দিতে সংসদীয় কমিটিতে পাঠানো হয়। সংসদীয় কমিটিকে প্রথমে চার সপ্তাহ দেওয়া হলেও পরে দুই দফায় তিন মাস সময় বাড়িয়ে নেয় তারা। তবে শেষ দফায় এক মাস সময় নিলেও একদিনের মধ্যে দিন পরেই বৈঠক করে প্রতিবেদন চূড়ান্ত করে সংসদীয় কমিটি।
গত ১৭ সেপ্টেম্বর বিলটি পরীক্ষা করে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেয় সংসদীয় কমিটি। সংসদীয় কমিটির সুপারিশ অনুযায়ীই বিলটি সংসদে পাস হয়েছে।
প্রতিবেদন চূড়ান্ত করার আগে দুই দফায় সম্পাদক পরিষদ, টেলিভিশন মালিকদের সংগঠন অ্যাটকো, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সঙ্গে বৈঠক করে সংসদীয় কমিটি; তবে তাতেও উদ্বেগ প্রশমিত হয়নি।
সংসদীয় কমিটি প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে সম্পাদক পরিষদ এক বিবৃতিতে বলে, “এই আইন স্বাধীন সাংবাদিকতা ও বাংলাদেশের গণতন্ত্রকে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে।”
সংসদীয় কমিটির বৈঠকে সম্পাদক পরিষদ খসড়া আইনের ৮, ২১, ২৫, ২৮, ২৯, ৩১, ৩২, ৪৩ ধারার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল।
২০০৬ সালের তথ্যও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে সমালোচনা ছিল। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণয়নের সময় থেকে সরকার তরফ থেকে বলা হয়েছিল ওই আইনের ৫৭ ধারা বাতিল করে নতুন আইনে বিষয়গুলো স্পষ্ট করা হবে।

 

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • সিলেট জেলা বিএনপির বিশেষ জরুরী সভা আজ
  • বিশ্ব মেট্রোলজি দিবস আজ
  • বোরো ধান যেনো কৃষকের গলার কাঁটা
  • এবার ‘দ্বিতীয় ইনিংস’ খেলবো: কাদের
  • এতিমদের সঙ্গে ইফতার করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • কৃষক রক্ষা না করলে অভিশাপ নেমে আসবে: রিজভী
  • গোয়াইনঘাটের তোয়াকুলে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১ ॥ আহত ২০
  • কৃষক বাঁচাতে চাল আমদানি বন্ধ করা হবে: অর্থমন্ত্রী
  • মন্ত্রিসভার দপ্তর পুনর্বিন্যাস
  • রমজানুল মোবারক আস-সালাম
  • বালির দূষণে ধুঁকছে জীবন
  • রবীন্দ্রনাথের সিলেট আগমনের শতবর্ষ উদযাপনে নানা আয়োজন
  • রোহিঙ্গাদের আশ্রয় মানবতার অন্যতম উদাহরণ
  • আজ থেকে অফিস করবেন ওবায়দুল কাদের
  • খালেদা জিয়ার অবস্থা সংকটাপন্ন ------------জমির উদ্দিন
  • সিলেটের প্রথম মহিলা জেলা শিক্ষা অফিসার নূর রওশন চৌধুরী আর নেই॥ আজ জানাজা
  • রমজানুল মোবারক আস-সালাম
  • কাজিরবাজার এলাকা থেকে বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার
  • আবুসিনা ছাত্রাবাস ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা হিসেবে ঘোষণা করার সুযোগ নেই --------- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি
  • ভুয়া ট্রাভেল এজেন্সির ব্যাপারে সতর্ক থাকুন
  • Developed by: Sparkle IT