শেষের পাতা শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় গোলাপগঞ্জ ॥ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

১০ বছরে নতুন ৩টি সাব স্টেশন ও ৬৫৬ কিলোমিটার বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন

ইউনুছ চৌধুরী প্রকাশিত হয়েছে: ১১-১০-২০১৮ ইং ০৩:০১:৫৪ | সংবাদটি ৩১৩ বার পঠিত

শত ভাগ বিদ্যুতায়নের আওতায় এসেছে সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলা। গোলাপগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ডিজিএম মামুন আর রশিদ এ তথ্য জানিয়ে বলেন, গত ১০ বছরে এই উপজেলায় ৩টি নতুন সাব স্টেশন ও ৬৫৬ কিলোমিটার বিদ্যুত লাইন স্থাপিত হয়েছে। এর মাধ্যমে উপজেলার সর্বত্র সার্বক্ষনিক বিদ্যুৎ সেবা পৌঁছে দেয়া হয়েছে। স্থানীয় এমপি শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় প্রায় ৮ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত নালিউরি বিদ্যুৎ সাব স্টেশনও উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে বলে জানান তিনি।
১০৫.৫৭ বর্গমাইল আয়তনের গোলাপগঞ্জ উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের কালিকৃষ্ণপুর ও বাঘা ইউনিয়নের এখলাসপুর(আগলসপুর) দুটি গ্রাম। এই দুই গ্রামের দূর্গম এলাকায় বিদ্যুৎ পৌঁছানো ছিলো একটি বড় চ্যালেঞ্জ। শিক্ষামন্ত্রীর প্রচেষ্টায় বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া হয়েছে ওই দুই গ্রামেও। গ্রাম দুটির ঘরে ঘরে এখন বিদ্যুতের আলো। এখলাসপুর(আগলসপুর)ও কালিকৃষ্ণপুর বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়াকে বিদ্যুত বিভাগের উন্নয়নের মাইলফলক হিসেবে দেখছেন সংশ্লিষ্টরা।
গোলাপগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা য়ায়, ২০০৮ সাল পর্যন্ত উপজেলার গ্রাহক সংখ্যা ছিল ৩০ হাজার ২১২ জন। ২০১৮ সালে এসে গ্রাহক সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৮ হাজার ৯৩১-এ। অর্থাৎ ১০ বছরে গ্রাহক বেড়েছে ২৮ হাজার ৭১৯ জন। একই সময় বিদ্যুতের চাহিদা ৮ মেগাওয়াট থেকে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯ মেগাওয়াটে। একইভাবে গত ১০ বছরে নতুন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন নির্মিত হয়েছে ৬৫৩ কিলোমিটার। ২০০৮ সালে এ উপজেলায় মাত্র ৭০৫ কিলোমিটার বিদ্যুত লাইন ছিল। বর্তমানে তা হয়েছে ১ হাজার ৩৫৮ কিলোমিটারে।
বিদ্যুত বিভাগের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যে জানা গেছে, এ উপজেলায় স্বাধীনতার পর থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিভাগের উন্নয়নে ব্যয় হয়েছিল ১০৫ কোটি টাকা। সেখানে মাত্র ১০ বছরে ব্যয় হয়েছে প্রায় ১শ কোটি টাকা। এছাড়া, ২০০৮ সাল পর্যন্ত পুরো উপজেলায় বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র ছিল ১টি। বর্তমানে আরো ৩টি উপকেন্দ্র নির্মিত হয়েছে এবং বাঘা ইউনিয়নে আরো একটি উপকেন্দ্র নির্মাণের কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানান তারা।
সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, সরকার শতভাগ বিদ্যুতায়নের উপর সর্বাধিক গুরুত্ব আরোপ করেছেন। এক সময় বিদ্যুৎ সংযোগের ক্ষেত্রে রাজস্ব নীতি কার্যকর ছিল। ফলে কোথাও বিদ্যুৎ লাইন স্থাপনের ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ বিভাগের লাভ হবে না-এমন এলাকায় বিদ্যুৎ লাইন স্থাপন করা হতো না। অধিক বিদ্যুৎ ব্যবহারের মাধ্যমে লাইন স্থাপন লাভজনক হলেই কেবল সেখানে লাইন স্থাপন করা হতো। ২০১০ সালে সরকার এই রাজস্ব নীতি তুলে দিয়ে ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিতে ‘যেখানেই গ্রাহক সেখানেই বিদ্যুৎ’ পৌঁছে দেয়ার নীতি গ্রহণ করেন।
গোলাপগঞ্জ পল্লী বিদ্যুতের ডিজিএম মো. মামুন আর রশিদ আরো জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিগগিরই গোলাপগঞ্জ উপজেলার শতভাগ বিদ্যুতায়ানের উদ্বোধন করবেন। তিনি জানান, এ উপজেলাসহ সারাদেশের আরো ১৫৯টি উপজেলার শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি চেয়েছে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। বিদ্যুত সংযোগ থেকে বাদ পড়াদের শিগগিরই সংযোগ নিতে উপজেলায় মাইকিং করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সকল ইউনিয়ন চেয়াম্যানের পাশাপাশি পৌর মেয়রের সাথে বৈঠক করা হয়েছে। মেম্বার-কাউন্সিলরদের নিয়ে তাদেরকে এলাকায় প্রচারণা চালাতে বলা হয়েছে।
কিছু কিছু পরিবার এখনো বিদ্যুৎ পায়নি এমন বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে মো. মামুন আর রশিদ বলেন, পারিবাারিক বিরোধ, ভূমির মালিকানা সমস্যাসহ নানা কারণে কেউ কেউ বিদ্যুৎ প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত রয়েছে। বিদ্যুৎ না দিতে একপক্ষ অপর পক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগও দিয়ে রেখেছেন। ফলে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া যাচ্ছে না। তবে তারা বিরোধ নিষ্পত্তি করে আবেদন করলেই সাথে সাথে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হবে বলে জানান তিনি।
শতভাগ বিদ্যুতায়ন হওয়ায় গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা শাহাবউদ্দিন আহমদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, শুধু শিক্ষার আলোই নয়, বিদ্যুদের আলোতেও আজ আলোকিত আমাদের গ্রাম থেকে শহর। তিনি বলেন, পরিসংখ্যান থেকে দেখা যাায়, উপজেলায় বিগত দিনে বিদ্যুৎ খাতে যে উন্নয়ন হয়েছিল গত ১০ বছরে তার চেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়েছে।
গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মামুনুর রহমান বলেন, বর্তমান সরকারের ১০টি বিশেষ উদ্যোগের মধ্যে একটি হলো ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেয়া। যারা এখনো সংযোগ নেননি তারা আবেদন করলে অতি দ্রুত সংযোগ দেয়া হবে। এ কাজে প্রশাসন সর্বাত্মক সহযোগিতা করবে বলেও জানান তিনি।#

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • জুনে পদত্যাগ করবেন থেরেসা মে
  • সিলেটে ১৯ উপজেলার সহকারী শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত দ্বিতীয় ধাপের পরীক্ষা ৩১ মে
  • ১৪ বাংলাদেশিসহ ভূমধ্যসাগরে ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার
  • ১৪ বাংলাদেশিসহ ভূমধ্যসাগরে ২৯০ অভিবাসী উদ্ধার
  • পবিত্র রমজান মানুষের অন্তরে খোদা ভীতি তৈরি করে
  • জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের ইফতার মাহফিল কাল
  • কমলগঞ্জে প্রায় তিন হাজার একর আউশ ক্ষেত নিমজ্জিত
  • জগন্নাথপুরে ছাত্রীকে পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগে স্কুল শিক্ষক গ্রেফতার
  • হরিপুর বাজারের ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যানসহ নিরীহ মানুষজনকে ছেড়ে দিয়েছে র‌্যাব
  • খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঈদের পর আন্দোলনে নামবে বিএনপি ---কলিম উদ্দিন মিলন
  • তোমাদেরকে দেশ-জাতির কল্যাণে অবদান রাখতে হবে
  • একাদশে ভর্তি হতে আবেদন করেননি ২৪২০৪২ শিক্ষার্থী
  • কুলাউড়ায় পিত্রালয় থেকে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার
  • ফেঞ্চুগঞ্জে নদীতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
  • বিশ্বনাথের ইফতেখার আলম মুকুল নরউইচ সিটির কাউন্সিলর নির্বাচিত
  • কমলগঞ্জে ইফতারের বাজার
  •   কানাইঘাটে সরকারি ধান ক্রয়ে অব্যবস্থাপনা
  • অবুঝ সন্তানদের আর্তনাদ-আমরারে রাখি কই গেলায় গো আব্বা!
  • রাজনগরে বিরল রোগে আক্রান্ত বাবা-মেয়ে
  • রমজান চরিত্র গঠনের হাতে কলমে শিক্ষা
  • Developed by: Sparkle IT