প্রথম পাতা   এক সপ্তাহের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

সিলেট সাব রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল জালিয়াতি লিখিত বরখাস্ত নকলনবিশ মাহমুদ ও উমেদার নাহিদসহ ৪ জন

প্রকাশিত হয়েছে: ২২-১০-২০১৮ ইং ০২:৫৭:৪৬ | সংবাদটি ৩৬১ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ॥ লিখিতভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসে ১৪ বছর আগের ভলিয়মে অসম্পাদিত দলিল সংযোজনের অভিযুক্ত দুই উমেদার ও ২ নকলনবিশকে। গতকাল রোববার জেলা সাব রেজিস্ট্রার মো: ইলিয়াছ হোসেন এক স্মারকে তাদের বরখাস্তের নির্দেশ দেন। একই সাথে ঘটনা তদন্তের জন্য জকিগঞ্জের সাব রেজিস্ট্রারকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। জেলা রেজিস্ট্রার জানিয়েছেন- ‘অপরাধী যেই হোক, কেউ ছাড় পাবে না’। অন্য একটি সূত্রের অভিযোগ- কেবল অভিযুক্ত চারজনই নয়, এই ঘটনার সাথে শক্তিশালী একটি সিন্ডিকেট জড়িত রয়েছে। এ চক্র ঘটনাটিকে ধামাচাপা দেয়ারও চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বরখাস্তকৃতরা হচ্ছে-ঘটনার মূল হোতা নকলনবিশ মাহমুদ ও উমেদার নাহিদ আকবর। এর সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগে অন্য উমেদার নবজিত ও নকলনবিশ নুরুজ্জামানকে বরখাস্ত করা হয়ছে।
সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসে ২০০৩ সালের একটি ভলিয়মে নগরীর দক্ষিণ সুরমার মুমিনখলা এলাকার বাসিন্দা পিতা ও কন্যাকে দাতা- গ্রহীতা দেখিয়ে একটি অসম্পাদিত দলিল সংযোজন করা হয়। এর মধ্যে পিতা আব্দুর রহমান মারা গেছেন এবং কন্যা নূরী ওয়াদুদ যুক্তরাজ্যে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। দলিল জালিয়াতির বিষয়টি ধরা পড়ার পর তোলপাড় শুরু হয়। তাৎক্ষণিকভাবে মৌখিক নির্দেশে উমেদার নাহিদ আকবর, নবজিত ও নকলনবিশ মাহমুদ এবং নুরুজ্জামানকে কাজ থেকে বিরত রাখাসহ সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। অপেক্ষা করা হয় ছুটিতে থাকা জেলা সাব রেজিস্ট্রারের। গতকাল রোববার জেলা রেজিস্ট্রার অফিসে যোগ দিয়ে মৌখিক নির্দেশে বরাখাস্ত চারজনকে লিখিতভাবে বরখাস্ত করেন। জেলা রেজিস্ট্রার অফিসের স্মারক নং ৩১৭২ ও ৩১৭৩।
সাব রেজিস্ট্রি অফিসে দলিল জালিয়াতির সংবাদ গত ১৬ অক্টোবর দৈনিক সিলেটের ডাক-এ প্রকাশের পর সর্বত্র আলোচনার ঝড় উঠে। জড়িত অভিযোগে অফিস সহায়ক (প্রচলিত শব্দ উমেদার) নাহিদ আকবর, নবজিত, নকল নবিশ মাহমুদ ও নুরুজ্জামান এবং দালাল কালামের বাইরে কারা জড়িত থাকতে পারে-এ নিয়ে নড়ে চড়ে বসে প্রশাসন। তবে সবাই অপেক্ষা করছিলেন জেলা রেজিস্ট্রারের। রেকর্ড রুম থেকে ভলিয়ম কার হাত ধরে বেরিয়ে এসেছে সিসি ক্যামেরা দেখে তা সনাক্ত করা হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকেও বিষয়টি বেশ গুরুত্বের সাথে দেখা হচ্ছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত বলে যাদের নাম উঠে আসছে-তারা বিভিন্ন সময়ে দলিল জালিয়াতি ও রেকর্ড ধ্বংসের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বরখাস্তও হয়েছিলেন বলেও একটি সূত্র জানিয়েছে। অভিযোগ রয়েছে, প্রায় দুই কোটি টাকা মূল্যের ৩০ শতক ভূমির এই দলিল জালিয়াতির সাথে শক্তিশালী একটি চক্র জড়িত রয়েছে। তাদের সহযোগিতা করেছে সাবরেজিস্ট্রি অফিসেরই একটি চক্র। বিভিন্ন সময়ে তাদের বিরুদ্ধে বদলীসহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়। নতুন করে দলিল জালিয়াতির ঘটনা প্রকাশ পাওয়ার পর জড়িতদের বাঁচাতে ওই চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ রয়েছে।
সিলেট সদর সাব রেজিস্ট্রি অফিসের রেকর্ড কিপার কামরান চৌধুরী জানান, ঘটনার দিন থেকে সদর সাব রেজিস্ট্রারের মৌখিক নির্দেশে অভিযুক্তদের কাজ থেকে বিরত রাখা হয়েছিল। তারা মৌখিক নির্দেশে সাময়িক বরখাস্তও ছিলেন। এবার লিখিতভাবে তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে বলে জানান তিনি।
জেলা রেজিস্ট্রার মোঃ ইলিয়াছ হোসেন জানান, সংরক্ষিত এলাকা থেকে ২০০৩ সালের ভলিয়ম বের করে এনে ১৪ বছর পর অসম্পাদিত দলিল সংযোজনের মত দুঃসাহসিক কাজে অফিসের কারা জড়িত তা গুরুত্বের সাথে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, একজন সাব রেজিস্ট্রারকে বিষয়টি তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। পত্র-প্রাপ্তির এক সপ্তাহের মধ্যে এ সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। মোঃ ইলিয়াছ হোসেন বলেন, জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। এটা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ বলেও মন্তব্য করেন সাব রেজিস্ট্রার।
উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সকালে রেকর্ড রুম থেকে সিলেট সাব রেজিস্ট্রি অফিসের সিনিয়র দলিল লেখক মুহিবুর রহমান জিলুর নামে একটি দলিলের নকলের জন্য আবেদন করা হয়। এই খবর জিলু মিয়ার কাছে গেলে তিনি এসে জানান, ওই দলিলের নকলের জন্য তিনি আবেদন করেননি। এরপর বিষয়টি খুঁজতে গিয়ে ধরা পড়ে ২০০৩ সালের একটি ভলিয়মে অসম্পাদিত দলিল সৃষ্টি করেছে কোন এক চক্র। এরপর দলিলের জন্য আবেদনকারী কালামকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে একে একে বেরিয়ে আসে জড়িতদের নাম। এ ঘটনায় ৪জনকে তাৎক্ষণিকভাবে বরখাস্ত করেন সদর সাব রেজিস্ট্রার। দালাল কালামকেও আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • বন্দুকের জোরে আ’লীগ ক্ষমতায়: মির্জা ফখরুল
  • প্রধানমন্ত্রী আজ ব্রুনাই যাচ্ছেন
  • পবিত্র শব-ই-বরাত আজ
  • তামাবিল স্থল বন্দরের অবকাঠামোর উন্নয়ন শিগগিরই শুরু হবে
  • হাওরবাসীর হতাশার কোনো কারণ নেই ----এলজিআরডিমন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম
  • প্রবীণ আলেম মাওলানা শফিকুল হক আমকুনীর ইন্তেকাল
  • সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল মজিদ মাস্টার আর নেই
  • শাবিতে তৈরি হবে আর্টিফিসিয়াল ইন্টিলিজেন্স ল্যাব
  • এইচএসসি পরীক্ষায় সিলেট বোর্ডে বহিষ্কার ৫
  • হতাশ হবেন না, হতাশার কথাও বলবেন না: ফখরুল
  • ‘আওয়ামী লীগ সরকারের জনপ্রিয়তা বেড়েছে’
  • প্রশ্নপত্রে পর্ণ তারকার নামের ঘটনায় ব্যবস্থা ----------শিক্ষামন্ত্রী
  • পদ্মা সেতুর রেলওয়ের গার্ডার স্থাপন শুরু
  • ‘আমার পিতা শেখ মুজিব’ উৎসবের উদ্বোধন আজ
  • কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দীর চিকিৎসার সার্বক্ষণিক খোঁজ রাখছেন প্রধানমন্ত্রী
  • শাল্লায় পণ্যবাহী নৌকায় আগুন বিপুল পরিমাণ মালামাল পুড়ে ছাই
  • বানিয়াচংয়ে মসজিদসহ ৫ প্রতিষ্ঠানে আগুন
  • নুসরাত হত্যায় ‘অংশ নেওয়া’ মণিকে নিয়ে ঘটনাস্থলে পিবিআই
  • তারেকের ব্যাংক হিসাব জব্দের আদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • সাধারণ রোগীর মত টিকিট কেটে চিকিৎসাসেবা নিলেন প্রধানমন্ত্রী
  • Developed by: Sparkle IT