সম্পাদকীয়

ওজন নিয়ন্ত্রণে ‘ওজনবন্ধু’

প্রকাশিত হয়েছে: ২৫-১০-২০১৮ ইং ০০:৩৫:৫৫ | সংবাদটি ৮৬ বার পঠিত

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণে চালু হচ্ছে ‘ওজনবন্ধু’ সেবা। দেশের সর্বত্র ভোক্তা-ক্রেতারা নানাভাবে প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। অসাধু ব্যবসায়ীরা একদিকে নানা অজুহাতে পণ্যের দাম বাড়িয়ে দেয়, অপরদিকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ওজনে কম দিচ্ছে ক্রেতাদের। এভাবেই নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসহ অন্যান্য পণ্য কিনতে গিয়ে ঠকছেন ক্রেতা-ভোক্তারা। এই প্রেক্ষাপটে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ক্রেতা সাধারণের স্বার্থ সংরক্ষণের উদ্যোগ নিয়েছে। ইতোপূর্বে তারা ক্রেতাদের স্বার্থে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় এবার ক্রেতারা যাতে ওজনে না ঠকেন, সেই ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে। ওজনবন্ধু নামক এই কর্মসূচির আওতায় ওজনে প্রতারণা ঠেকানোর পাশাপাশি এ ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং অসাধু ব্যবসায়ীদের শাস্তির আওতায় নিয়ে আসা হবে। ভোক্তা সাধারণ এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন। তবে তাদের বক্তব্য হলো, এই পদক্ষেপ যাতে বাস্তবায়িত হয় যথাযথভাবে সেদিকে নজর দিতে হবে কারণ সরকারের অনেক উদ্যোগই এভাবে ঘোষণায়ই সীমাবদ্ধ থেকে যায়।
একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত হয় খবরটি। এদেশের ক্রেতা-ভোক্তাসাধারণ প্রতারিত হচ্ছেন নানাভাবে। ভেজাল ও নি¤œমানের পণ্য কিংবা মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রী হচ্ছে সর্বত্র। জীবন রক্ষাকারী ওষুধসহ বলা যায় সব ধরণের দ্রব্যের ক্ষেত্রে এমন ঘটনা ঘটছে। আর ওজনে কম দেওয়ার বিষয়টিও তেমনি। সম্পূর্ণ ক্রেতাদের অজান্তেই ঘটে চলেছে এই ‘নীরব’ প্রতারণা। সরকারের নির্দেশনা থাকা সত্ত্বেও বেশিরভাগ ব্যবসায়ী এখনও পুরনো দাঁড়িপাল্লা বাটখারা ব্যবহারেই ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। আর যারা ডিজিটাল মেশিন ব্যবহার করছে তারাও বিশেষ কৌশলে ডিজিটাল স্কেলে চুরির মাধ্যমে মোটা অংকের মুনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে। বিশেষ করে মুরগী ও মাছের দোকানগুলোতে এই ধরণের প্রতারণা হচ্ছে বেশি। গরু, খাসি ও তরিতরকারীর দোকানে ঘটছে একই ধরনের ঘটনা। এই অবস্থা থেকে ক্রেতাদের উদ্ধার করার জন্য চালু হচ্ছে ‘ওজন বন্ধু’ কর্মসূচি। আগামী ডিসেম্বর মাসে চালু হবে এটি। এর মাধ্যমে ক্রেতারা বাজারে পণ্য কিনে সেখানেই ওজন যাচাই করতে পারবেন। প্রতিটি বাজারে থাকবে ওজনবন্ধু মেশিন। এর পাশে থাকবে একটি অভিযোগ বাক্স। ভোক্তারা ওজনে কম পেলে তাৎক্ষণিক এ ব্যাপারে অভিযোগ করতে পারবেন।
আমাদের বাজার ব্যবস্থায় চলছে বিশৃংখল অবস্থা। পণ্যমূল্য বাড়ানো হয় যখন-তখন; আর তা বিনাকারণেই। বাজারে পণ্যের পর্যাপ্ত সরবরাহ থাকা সত্ত্বেও বৃদ্ধি পায় দাম। সরকারের এ ব্যাপারে সকল পদক্ষেপই ইতোপূর্বে ব্যর্থ হয়েছে। ভেজাল-নি¤œমানের দ্রব্য বিকিকিনি বন্ধেও সমর্থ হয়নি সংশ্লিষ্ট দপ্তর। বাজার নিয়ন্ত্রণে ‘প্রতিযোগিতা কমিশন’ গঠনের কথা এক সময় শোনা গেলেও এব্যাপারে কোন অগ্রগতি নেই। সঠিক ওজন নিরূপনের জন্য ওজনবন্ধু মেশিনের কার্যক্রম চালুর সঙ্গে সঙ্গে পণ্যের সঠিক মান নিয়ন্ত্রণেরও ব্যবস্থা করতে হবে। কারণ কোন পণ্যের গুণগতমান নিশ্চিত না হলে এর সঠিক ওজন নিশ্চিত হলেও কোন লাভ নেই।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT