সম্পাদকীয়

সিগারেটের ‘কৌশলী প্রচারণা’

প্রকাশিত হয়েছে: ২৭-১০-২০১৮ ইং ০০:২৪:০৮ | সংবাদটি ৮৬ বার পঠিত

বিজ্ঞাপনটি প্রকাশিত হয়েছে কিছুদিন আগে বিভিন্ন জাতীয় পত্রিকায়। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড এর এই বিজ্ঞাপনে ‘অবৈধ সিগারেট পরিবহন, পরিবেশন, বিক্রয় এবং ক্রয় করা আইনত দন্ডনীয় অপরাধ’ বলে সতর্ক করা হয়েছে জনসাধারণকে। বিজ্ঞাপনে একটি সিগারেটের প্যাকেটের ছবি প্রদর্শিত হয়েছে; যাতে দেখা যাচ্ছে কয়েকটি সিগারেটের অংশ বিশেষ। পাশে বড় অক্ষরে রিভার্স করে লেখা রয়েছে সিগারেটের প্যাকেটের দাম। বলা হয়েছে সরকার নির্ধারিত প্রতি প্যাকেট সিগারেটের সর্বনি¤œ দাম এটি। আরও বলা হয়েছে সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামের ও স্ট্যাম্প-ব্যা-রোল বিহীন সকল সিগারেট অবৈধ হিসেবে গণ্য হবে। আর বিজ্ঞাপনের নীচের অংশে রয়েছে ‘অবৈধ সিগারেট বর্জন করুন রাজস্ব আদায়ে সহযোগিতা করুন’ -এই শ্লোগানটি। পুরো বিজ্ঞাপনটিকে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ‘সিগারেটের প্রচারণা’ বলেই অনেকে অভিহিত করেছেন।
অতীতে বিড়ি-সিগারেটের বিজ্ঞাপন প্রচার হতো ব্যাপকভাবে বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে। পত্র-পত্রিকা, বেতার-টিভি কিংবা বিভিন্ন সাইন-বিলবোর্ডে সিগারেট-বিড়ির প্রচারণায় ছিলোনা কোন রাখঢাক। দেশের প্রথম সারির অভিনয় শিল্পী-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বগণ হয়েছেন সিগারেট-বিড়ির বিজ্ঞাপনের মডেল। তাদের কন্ঠে যখন উচ্চারিত হলো- ‘ শেষ পর্যন্ত সিগারেটটা ধরেই ফেললাম’- তখন ওই মডেল তথা অভিনেতার ভক্ত অনুরাগীরাতো অবশ্যই পুরো একটা জেনারেশনই ধূমপানের প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়ে। সত্যি বলতে কি, সেই সময়টিতে ধূমপানকে অনেকেই ‘আভিজাত্যের প্রতিক’ বলেই মনে করতেন। কে কতো দামী ব্রা-ের সিগারেট জ্বালিয়ে সুখটান দিচ্ছেন আর ধোঁয়ার কু-লী বাতাসে ছাড়ছেন, সেটাই যেন ছিলো দেখার বিষয়। কিন্তু সেই সময়টি এখন আর নেই। ধূমপানের বিরুদ্ধে গড়ে ওঠেছে সচেতনতা অনেকটাই। বিগত প্রায় তিন যুগ ধরেই সরকার পর্যায়ক্রমে সিগারেট-বিড়ির বিজ্ঞাপন সব ধরণের মিডিয়ায় প্রচার বন্ধ করাসহ জনসমক্ষে ধূমপানে জরিমানার আইন করেছে। প্রতি বছর জাতীয় বাজেটে সিগারেট-বিড়ির ওপর ট্যাক্স এর পরিমাণ বাড়ানো হচ্ছে। সব মিলিয়ে সম্প্রতি ধূমপানের বিরুদ্ধে একটা মুভম্যান্ট তৈরী হয়েছে, এটা বলতেই হয়।
কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, ধূমপান বিরোধী প্রচারণার আড়ালে একটা মহল সুকৌশলে ধূমপানে উদ্বুদ্ধ করছে মানুষদের। বিড়ি সিগারেট প্রস্তুতকারী কোম্পানীগুলো বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মকে ধূমপানে আকৃষ্ট করতে নানা ফন্দি আটছে। তাদের এই কৌশল অনেকটাই সফল হচ্ছে বলে মনে হয়। কারণ অতি সম্প্রতি নতুন প্রজন্মের একটা অংশ সিগারেটের প্রতি ঝুঁকে পড়েছে। এছাড়া, ইদানিং ছোট বড় অনেক দোকানের সামনে সাদা কাগজে বিভিন্ন ব্রা-ের সিগারেটের দাম লিখা পোষ্টার শোভা পাচ্ছে। এটাও সিগারেটের এক ধরণের প্রচারণা। এইসব কৌশলী প্রচারণা বন্ধ করতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা, সিগারেটের প্যাকেটের ছবি ছাপিয়ে ও দাম লিখে বিজ্ঞাপন দেয়া অনেকটাই সিগারেটের প্রচারণারই নামান্তর; যেটা করছে খোদ সরকারী প্রতিষ্ঠান।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT