সাহিত্য

বারবার মৃত্যু এসেছিল

মুকুল চৌধুরী প্রকাশিত হয়েছে: ০২-১২-২০১৮ ইং ০০:১৩:৫৮ | সংবাদটি ৩০ বার পঠিত

জীবনের আরেক নাম মৃত্যু। এবং মৃত্যুই জীবনের নিগূঢ় সারাৎসার।
যেখানে মৃত্যু নেই, সেখানে জীবন নেই। এবং জীবনই মৃত্যুর অস্থির ছায়ানীড়।

জীবনের কাছে মৃত্যু বারবার আসে। যেনো সহসঙ্গীর সাথে লুকোচুরি খেলা।
তবে তার পথ কেউ চেনে না। সে থাকে উত্তরে, সে আছে দক্ষিণে; আছে
পুবে ও পশ্চিমে। ঊর্ধ্বে আছে, অধোতেও থাকে।
আছে ডানে, থাকে বামেতেও। তবে তাকে কেউ ধরতে পারে না।

আমি কয়েকবার দেখেছি তাকে। দূর থেকে চেনা যায় না, বহুরূপী।
নানা পোশাকে ঘুরে। খপ করে ধরে ফেলে।
যেনো ইঁদুর-বিড়াল খেলা।
কাকে ধরবে আর কাকে নেবে সে-ই শুধু জানে, জীবন জানে না।
জীবন বারবার বিভ্রান্ত হয় তার পাতা ফাঁদে।

একবার বৈশাখে আসে উন্মত্ত ঝড়ের রূপে।
অন্যবার চৈত্রের কাঠফাটা বিকেলে মহাবজ্রপাতে। আরেকবার
অকস্মাৎ মহাব্যাধিরূপে হাসপাতালের করিডোর থেকে অন্যদিকে চলে গেছে।

যদিও কোনবারই সঙ্গে নেয়নি। কিন্তু জানি আবারও আসবে।
এবং কোনটা হবে তার শেষবার! এবং সেইবার
কোনদিক থেকে আসে, কার ছায়া ধরে আসে,
কার কাছে রেখে আসে জীবনের অন্তিম শ্বাস?
-এই চিন্তা কুরে কুরে খায়। এই চিন্তা হরদম জীবনকে ভাবায়।

যদি জানা যেতো কোনদিন, কোন ক্ষণে আসবে সে
সেজেগুজে প্রস্তুত থাকা যেতো। কিন্তু
আমি কোন ছার,
মৃত্যুর ফেরেশতা কী আগাম জানেন এ সংবাদ?

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT