বিশেষ সংখ্যা

বাংলাদেশ, বাংলাদেশ

ঝরনা বেগম প্রকাশিত হয়েছে: ১৬-১২-২০১৮ ইং ০২:২১:০৫ | সংবাদটি ১৫৬ বার পঠিত

‘আই মি মাইন’ একটি আত্মজীবনীমূলক গ্রন্থ। আর বইটি ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ-এর সঙ্গে জড়িয়ে পড়া বিদেশী বন্ধু জর্জ হ্যারিসন-এর বই। যাঁর গানের সুরে বিশ্বের মানুষের কাছে ওপেন হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের নিরন্ত্র জনগণের ওপর দিয়ে চলা পাকিস্তানী বাহিনীর গণহত্যার চিত্র।
গণহত্যার ফলে বাংলার প্রায় এক কোটি মানুষ ভারতে আশ্রয় নেয়। আর এত শরণার্থীর ভরণ-পোষণ করতে গিয়ে ত্রাণসামগ্রীর অভাব দেখা দেয়। এই অবস্থায় সেতারবাদক পন্ডিত রবিশংকর কথা বললেন জর্জ হ্যারিসনের সাথে যুক্তরাষ্ট্রে দাতব্য সংগীতানুষ্ঠানের আয়োজনের ব্যাপারে। হ্যারিসন প্রিয় বন্ধুর প্রস্তাব ফেলে দিতে পারেননি। তাই তাঁর অন্য বন্ধুদের ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনে যোগদানের আমন্ত্রণ জানান। ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এ জর্জ হ্যারিসন ৮টি গান গেয়েছিলেন। একটি গান ছিল বব ডিলানের সাথে। আর বব ডিলান গেয়েছিলেন ৫টি গান। রিঙ্গোস্টার এবং বিলি প্রেস্টন ১টি করে গান গেয়েছিলেন। লিওন রাসেল ১টি একক ও ডন প্রেস্টনের সাথে ১টি ডুয়েট গান গেয়ে দর্শক শ্রোতার কান ঝালাপালা করছিলেন যখন, ঠিক সেই সময় অনুষ্ঠানের শেষ পরিবেশনা ছিল জর্জ হ্যারিসনের সে-ই অমর গান ‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ।’ পুরো গানটি সাজ্জাদ শরিফ বাংলা অনুবাদ করেছেন এভাবে-
বন্ধু আমার এল একদিন/ চোখ ভরা তার ধূ ধূ হাহাকার/ বলল কেবল সহায়তা চাই/ বাঁচাতে হবে যে দেশটাকে তার/ বেদনা যদি বা না-ও থাকে তবু/ জানি আমি, কিছু করতেই হবে/ সকলের কাছে মিনতি জানাই আজ/ আমি তাই/ কয়েকটি প্রাণ এসো না বাঁচাই/ বাংলাদেশ, বাংলাদেশ/ দেখছি সেখানে সকলই ধ্বস্ত/ কত শত প্রাণ মরে নিঃশেষ/ দেখিনি এমন বেদনা অশেষ/ তোমরা সবাই দুহাত বাড়াও আর/ বুঝে নাও / মানুষগুলোকে সহায়তা দাও/ বাংলাদেশ, বাংলাদেশ/ দেখিনি কখনো এত দুর্যোগ/ দেখছি সেখানে সকলই ধ্বস্ত/ দেখিনি কখনো এত দুর্ভোগ/ দোহাই তোমরা ফিরিওনা মুখ, বলো/ এই কথা/ মানুষগুলোকে দেব সহায়তা/ বাংলাদেশ, বাংলাদেশ/ মনে হবে সে তো কোন সীমানায়,/ আমরা কোথায়/ কী করে বা একে ছুড়ে দিই ফেলে/ দেবে না তোমরা ক্ষুধিতকে রুটি/ সামান্য দুটি/ মানুষগুলোকে সহায়তা দাও।
জর্জ হ্যারিসন তাঁর ‘আই মি মাইন’-বইয়ে লিখেছেন, মোদ্দা কথা হচ্ছে, বাংলাদেশের ঘটনাবলীর ব্যাপারে আমরা দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছিলাম। আমরা যখন কনসার্টের প্রস্তুতি নিচ্ছি, মার্কিনরা তখন পাকিস্তানে অস্ত্র পাঠাচ্ছে। প্রতিদিন হাজার মৃত্যু হচ্ছে, কিন্তু সংবাদপত্রে শুধু কয়েক লাইন, ‘ও হ্যাঁ, এখনো এটা চলছে।’ আমরা ব্যাপক মনোযোগ আকর্ষণ করতে পেরেছিলাম। এখনো বাঙালি রেস্তোঁরায় এমন সব ওয়েটারের সঙ্গে আমার দেখা হয়, যাঁরা বলেন, ‘ওহ মিস্টার হ্যারিসন, আমরা যখন জঙ্গলে লড়াই করছিলাম, তখন বাইরে কেউ আমাদের কথা ভাবছে, এটা জানাটাও আমাদের জন্য ছিল অনেক কিছু।’
‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ’- গানটি লিখেছেন জর্জ হ্যারিসন এবং সুরটি তাঁরই করা বিরল কাজ। সে জন্য গানটির সুর আজও আমাদের উজ্জীবিত করে। ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এর পর সারা বিশ্বে মানবতার কল্যাণে কত বড় বড় কনসার্ট হয়েছে। কিন্তু সকল কনসার্টেরই পথিকৃৎ হয়ে আছে অনেক বছর আগের সে-ই আসর! এই কনসার্ট থেকে সংগৃহীত দুই লাখ পঞ্চাশ হাজার ডলার বাংলার উদ্বাস্তুদের জন্য দেওয়া হয়েছিল। এবং সভ্যতার ভয়াবহ গণহত্যা ও ধ্বংসের মধ্যে দাঁড়িয়ে মুক্তির জন্য লড়ছে দক্ষিণ এশিয়ার একটি দেশ, বাংলাদেশ- ম্যাডিসন স্কয়ার গার্ডেনের ওই কনসার্ট-এর মাধ্যমে বিশ্ববাসী পরিস্কারভাবে জেনেছিল। তাই বিজয়ের এই মাসে আমরা শ্রদ্ধাভরে স্মরণ কলছি বাঙালি জাতির বিদেশী বন্ধু জর্জ হ্যারিসনকে। জর্জ হ্যারিসন যখন গাইছিলেন বাংলাদেশ, বাংলাদেশ,- গানটি তখন তাঁর মাঝে কোনো ভড়ং ছিল না, কোনো মেকিপনা ছিল না। মুক্তমনা মানুষ জর্জ হ্যারিসন সে-ই মুহূর্তটায় একদম আদি ও অকৃত্রিম ভঙ্গিতে গাইছিলেন- বাংলাদেশ, বাংলাদেশ/ মনে হবে সে তো কোন সীমানায়-/ - - - - -
গানটির কথায় এমন আবেদন ছিল যে, কোনো সময়েই তা ম্লান হবার নয়। আজও প্রেরণার উৎস হয়ে আছে। আমরা যতবার শুনি বা দেখি চোখ দিয়ে বহে নদীর ধারা। আজও বাংলাদেশে সক্রিয় পন্ডিত রবিশংকর, জর্জ হ্যারিসন এবং ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ। বিশেষ করে জর্জ হ্যারিসন- এর নামটি। জয়তু জর্জ হ্যারিসন! জয়তু বাংলাদেশ! বাংলাদেশ, বাংলাদেশ...।
লেখক : আইনজীবী, কলামিস্ট।

 

শেয়ার করুন
বিশেষ সংখ্যা এর আরো সংবাদ
  • মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযোদ্ধা এবং স্বাধীনতা
  • পেছন ফিরে দেখা
  • মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের ভূমিকা
  • স্বাধীন বাংলাদেশের অভ্যুদয়
  • ভাষার ব্যবহারের শুরু ও একুশ
  • প্রসঙ্গ : ভাষার উদ্ভব ও বিকাশ
  • ভাষা আন্দোলন থেকে স্বাধীনতা
  • বাংলাদেশে প্রচলিত নানান ভাষা
  • বর্ষ গণনা ও ক্যালেন্ডারের ইতিকথা
  • নতুন বছরে নতুন শপথ
  • সালতামামি ২০১৮ : প্রত্যাশার ২০১৯
  • বাংলাদেশ, বাংলাদেশ
  • বিজয় দিবসের তাৎপর্য
  • ছেলেবেলার ঈদ
  • রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশির ঈদ
  • সার্বজনীন উৎসবের দিন
  • ঈদের আনন্দ হোক সবার ঘরে
  • ঈদ : ভ্রাতৃত্বের ফোয়ারায় উদ্ভাসিত হোক জীবন
  • ঈদ, আনন্দের ঝর্ণাধারা
  • হিমশীতল স্পর্শ
  • Developed by: Sparkle IT