স্বাস্থ্য কুশল

শ্বাসকষ্ট কোনো রোগ নয়!

ডাঃ মোহাম্মদ আজিজুর রহমান প্রকাশিত হয়েছে: ০৪-০২-২০১৯ ইং ০০:৪৯:৫৮ | সংবাদটি ২১৬ বার পঠিত

নিঃশ্বাস ছাড়া মানুষ স্থবির, মৃতপ্রায়। শ্বাসকষ্ট মানুষের নিঃশ্বাস কেড়ে নিয়ে তাকে মৃত্যুর কোলে ফেলে দেয়। তাই যাদের শ্বাসকষ্ট রোগ রয়েছে, তাদের বাড়তি সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত।
শ্বাসকষ্ট শ্বাস বন্ধ হয়ে যাওয়া, শ্বাস নিতে না পারা, শ্বাস নিতে সমস্যা হওয়া, রেসপিরাটরি ডিসট্রেস (জবংঢ়রৎধঃড়ৎু ফরংঃৎবংং) নামেও পরিচিত। এই অনুভূতির কোনো শরীরবৃত্তীয় কারণ না থাকলেও শ্বাসকষ্টের কারণে একজন ব্যক্তির এমন অনুভূতি হতে পারে।
কী কারণে শ্বাসকষ্ট হতে পারেÑ হাঁপানি বা অ্যালার্জি থাকলে। ঠা-া লাগলে অনেকের শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। অবস্ট্রাক্টিভ স্লিপ অ্যাপনিয়া থাকলে। সাইনোসাইটিস, হার্ট ফেইলিওর, নিউমোনিয়া ইত্যাদি রোগ দেখা দিলে। ক্রনিক অবস্ট্রাক্টিভ পালমোনারি ডিজিজ (সিওপিডি)। এছাড়াও বহুবিধ কারণে শ্বাসকষ্টের অনুভূতি হতে পারে। জ্বরসহ বেশ কিছু শারীরিক রোগেও শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গগুলোর দহন বা মেটাবলিজম বেড়ে যাওয়ার জন্য নিশ্বাসের হার বেড়ে যায়। হাইপারভেন্টিলেশন সিন্ড্রোমের কারণটা যদিও খুব স্পষ্ট নয়, তবে এটার সঙ্গে উৎকণ্ঠা আর এক ধরনের ভয় পাওয়ার রোগের (প্যানিক ডিসঅর্ডারের) সম্পর্ক আছে। সেই অর্থে এটা মনের রোগ। ঘুমানোর জন্য বিছানায় শোয়ার পর কিছু ব্যক্তির শ্বাস নিতে অসুবিধা হয়। নাকের সমস্যা ও অবস্ট্রাক্টিভ স্লিপ অ্যাপনিয়ার কারণে এমন হতে পারে। শ্বাসকষ্ট থেকে আরাম পেতে কী কী পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায়। ধূমপান পরিহার করুন। পরোক্ষ ধূমপানও শ্বাসকষ্টের জন্য ক্ষতিকর। হাঁপানি থাকলে হাঁপানির চিকিৎসা করান। অ্যালার্জি থাকলে অ্যালার্জি সৃষ্টি করে এমন বস্তু (যেমন- ধূলাবালি) ও খাবার (যেমন- গরুর মাংস, ইলিশ মাছ, বাদাম ইত্যাদি) এড়িয়ে চলুন। শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। ঘর গোছানোর সময় বা বাইরে গেলে ডাস্ট মাস্ক পরে বের হবেন। বেশি পশমওয়ালা পালিত পশু রাখবেন না। ঘরবাড়ি সব সময় পরিষ্কার এবং ধূলামুক্ত রাখুন।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT