সম্পাদকীয়

একটি বাড়ি একটি খামার

প্রকাশিত হয়েছে: ০৯-০৩-২০১৯ ইং ০০:৩৯:৫০ | সংবাদটি ৮৫ বার পঠিত


মুখ থুবড়ে পড়েছে ‘একটি বাড়ি একটি খামার’ প্রকল্প। দারিদ্র্যের হার ২০২০ সালের মধ্যে শতকরা দশ-এ নামিয়ে আনার লক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ উদ্যোগে এই প্রকল্পটি গৃহীত হয়। ক্ষুদ্র সঞ্চয় মডেলের এই প্রকল্পটি এখন বন্ধ হওয়ার উপক্রম। দেশের ৬৪টি জেলার চারশ ৮৫টি উপজেলায় চার হাজার পাঁচশ’টি ইউনিয়নে দুই হাজার সমিতি ইতোমধ্যেই বন্ধ হয়ে গেছে। আরও তিন হাজার সমিতি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। আর যে গুলো এখন চালু রয়েছে, সেগুলোর কার্যক্রমও সংকুচিত হয়ে পড়েছে। এ গুলোর কোন উঠান বৈঠক হচ্ছেনা। একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবরে বলা হয়-সারা দেশে ৪০ হাজার পাঁচশ ২৭টি সমিতির মধ্যে ১১ হাজার সমিতির কার্যক্রম চলছে না।
গ্রামীণ মানুষের জীবনমান উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উদ্যোগে গ্রহণ করা হয় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প। মূলত ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর গ্রহণ করা হয় প্রকল্পটি। কিন্তু তা বাস্তবায়ন হওয়ার আগেই সরকারের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। পরবর্তীতে বিএনপি জোট সরকার প্রকল্পটি বাতিল করে। তারা একই আদলে চালু করে ‘পল্লী প্রগতি প্রকল্প’। কিন্তু এই প্রকল্পও এগোয়নি বেশী দূর। বরং প্রকল্প তালিকা তৈরীতে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকার পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর চালু হয় একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প। এর উদ্দেশ্য হচ্ছে, গ্রামে বসবাসকারী দরিদ্র পরিবারের আত্মকর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে স্বনির্ভরতা অর্জন। প্রথমে নয় হাজার ছয়শ ৪০টি গ্রামের অতিদরিদ্র পাঁচ লাখ ৭৮ হাজার চারশ পরিবারের জন্য চালু হয় এই প্রকল্প। মেয়াদ ছিলো ২০১১ সাল পর্যন্ত। পরবর্তীতে এর মেয়াদ বৃদ্ধি পায়, বাড়তে থাকে সুবিধাভোগীদের সংখ্যাও। প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকারভিত্তিক এই প্রকল্পটির শুরু থেকেই নানা ধরণের অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে। দিন যতো গড়াতে থাকে, দুর্নীতি-লুটপাটের মাত্রাও বাড়তে থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে বেড়েছে দুর্নীতি। জানা গেছে, ২০১৫ সালের পর থেকে এই প্রকল্পটি অনেক ক্ষেত্রে নামেই রয়েছে। এই প্রকল্পের ‘পরিপূরক’ হিসেবে চালু করা হয়েছিলো পল্লী সঞ্চয় ব্যাংক। বর্তমানে এই ব্যাংকও প্রকল্পের টাকা অনলাইনে লেনদেন বন্ধ করে দিয়েছে।
প্রতিটি সরকারই ক্ষমতায় এসে বিশেষ কিছু প্রকল্প গ্রহণ করে মূলত সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করার জন্য। এটি হচ্ছে তেমনি একটি প্রকল্প। তারপরেও বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর কল্যাণে এই প্রকল্পটি ভূমিকা রাখতে সক্ষম। ইতোমধ্যেই এর সুফল কিছুটা হলেও ভোগ করছে সংশ্লিষ্টরা। স্বল্প আয়ের দেশ থেকে মধ্যম আয়ের দেশ-এ উন্নীত হয়েছে বাংলাদেশ। এই সাফল্যকে ধরে রাখার পেছনে অন্যতম অন্তরায় হচ্ছে দারিদ্র্য। আর এই দারিদ্র্য নিরসনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প। দুর্নীতিবাজদের খপ্পর থেকে উদ্ধার করতে হবে এই প্রকল্পকে।

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT