প্রথম পাতা

স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা: নুরুন্নাহার ফাতেমা সিলেটের কৃতী সন্তান

প্রকাশিত হয়েছে: ১৫-০৩-২০১৯ ইং ০৪:১৮:১৪ | সংবাদটি ৯২ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক: বাংলাদেশের শিশু হৃদরোগ চিকিৎসার পথিকৃত ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম ২০১৯ সালের স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হয়েছেন। নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম সিলেটেরই কৃতী সন্তান। তিনি ১৯৬২ সালে সিলেটের একসম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বাবা মরহুম এম এ ওয়াদুদ শুল্ক বিভাগের কর্মকর্তা এবং মা মরহুম ময়য়ুন্নেছা খাতুন ছিলেন গৃহিনী। ঐতিহ্যবাহী কিশোরী মোহন বালিকা বিদ্যালয়ে শিক্ষাজীবন শুরু করেন এবং ১৯৭৭ সালে এস.এসসি, ১৯৭৯ সলে সিলেট এমসি কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে ভর্তি হন ওসমানী মেডিকেল কলেজে। মেধা তালিকার ২য় স্থান লাভ করে এম বিবিএস পাশ করেন ১৯৮৫ সালে। ১৯৮৭ সালে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস্ এন্ড সার্জনস থেকে শিশুরোগ এর উপর এফসিপিএস ডিগ্রী লাভ করেন। ১৯৯৭ ও ১৯৯৯ সালে সৌদি আরবের কিং সুলতান হাসপাতালে বিভিন্ন বিদেশী চিকিৎসকগণের সংস্পর্শে তিনি শিশু হৃদরোগ চিকিৎসায় বিশেষ পারদর্শিতা অর্জন করেন। দেশে ফিরে ১৯৯৮ সালে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে প্রতিষ্ঠা করেন শিশু হৃদরোগ বিভাগ, যা বাংলাদেশের প্রথম শিশু হৃদরোগ চিকিৎসা কেন্দ্র। শিশু হৃদরোগ চিকিৎসার দিগন্ত উন্মোচনের জন্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম বাংলাদেশ “মাদর অব পেডিয়ার্ট্রিক কার্ডিওলোজি” হিসেবে অভিহিত করা হয়।
বাংলাদেশে শিশু চিকিৎসার অন্যতম দিকপাল মরহুম অধ্যাপক এম.আর খানের সাথে প্রতিষ্ঠা করেন চাইল্ড হার্ট ট্রাষ্ট বাংলাদেশ। জটিল হৃদরোগ আক্রান্ত গরিব ও প্রান্তিক শিশুদের জন্য বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদানের মাধ্যমে অসংখ্য শিশুর রোগ নিরাময় করে তাদের জীবনকে অর্থবহ করে তুলতে নিরন্তর কাজ করে যাচ্ছে এই ট্রাস্ট।
পরিবারে সদস্যদের সঙ্গে নিয়ে ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠা করেন “ওয়াদুদ- ময়নুন্নেছা ফাউন্ডশন”। মরহুম মা বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত এ ফাউন্ডেশন তাঁর গ্রামের বাড়ি বড়লেখা উপজেলার বর্ণী ইউনিয়নের পাকশাইল গ্রামে ফ্রি ফাইডে ক্লিনিক, ফ্রি খৎনা প্রদান ও ফ্রি হৃদরোগ সনাক্তকরনের মত সেবা প্রদান করে আসছে।
ব্যক্তিগত জীবন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম একজন সফল মা হিসেবেও পরিচিতি পেয়েছেন। তাঁর দুই মেয়ে। বড় মেয়ে মার্জিয়া তাবাসসুম অঘত ব্যাংকে ঐবধফ ড়ভ জরংশ গধহধমবসবহঃ ঊঁৎড়ঢ়বধহ ঙঢ়বৎধঃরড়হং হিসাবে কর্মরত। ছোট মেয়ে মাশিয়াত মাইশা আহমদ ¯œাতক সম্পন্ন করে বর্তমানে যুক্তরাজ্যে চিকিৎসা শা¯্রে অধ্যয়নরত।
নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগমের স্বামী সেনা চিকিৎসা মহাপরিদপ্তরের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কর্ণেল আজহার উদ্দীনও পেশায় চিকিৎসক। ৭ ভাইবোনের মধ্যে তিনি ৬ষ্ঠ। তাঁর পৈত্রিক বাসা সিলেট নগরীর মীরাবাজারের মৌসুমী আবাসিক এলাকায়।
দক্ষিণ এশিয়ায় প্রথমবারের মত নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম পালমোনারি ভাল্ব প্রতিস্থাপন করেন ২০১২ সালে ডিসেম্বরে। যা এদেশের এবং দক্ষিণ এশিয়ার শিশু হৃদরোগের চিকিৎসায় অনন্য নজির । তার প্রতিষ্ঠিত চিকিৎসা পদ্ধতি অবলম্বন করে চঁষসড়হঁধৎু ঐুঢ়বৎঃবহংরঁহ ধহফ চবৎংরংঃবহঃ ভবঃধষ পরৎপঁষঃধঃরাৎ এর চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে। শিশুর হৃদযন্ত্রের ছিদ্র বন্ধসহ বিভিন্ন চিকিৎসার ক্ষেত্রে তাঁর প্রবর্তিত পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে দেশে এবং দেশের বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে।
পরিশ্রমী, মেধাবী এবং অধ্যাবসাী ব্রিগেডিয়ার ফাতেমা একে একে অর্জন করেছেন ঋজঈচ (ঊফরহ), ঋঅঈঈ (ঊফরহ), ঋঅঈঈ (টঝঅ), ঋঝঈঅও (টঝঅ) ডিগ্রী। নিরন্তর সাধনার মাধ্যমে তিনি দেশ ও বাংলাদেশ সেনাবাহীর জন্য বয়ে এনেছেন গৌরবময় সব অর্জন। নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম জন্ম মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার বর্ণী ইউনিয়নের পাকশাইল গ্রামে। তার শশুরের বাসা সিলেট নগরীর জালালাবাদ আবাসিক এলাকায় এবং তাদের গ্রামের বাড়ি সিলেটের গোলাগঞ্জ উপলেরার চন্দরপুর গ্রামে। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা: নুরুন্নাহার ফাতেমা বেগম এবছর স্বাধীনতা পদকে ভুষিত হয়েছেন।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের প্রথম ভোট ৫ মে
  • এইচএসসি: ১ এপ্রিল থেকে সব কোচিং সেন্টার বন্ধ
  • স্বাধীনতা পুরস্কার-২০১৯ হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • গণহত্যার আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি আদায়ের তাগিদ
  • মহান স্বাধীনতা দিবস আজ
  • মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে সিলেটে সমরাস্ত্র প্রদর্শনী শুরু
  • ওয়াসিম হত্যার ঘটনায় মৌলভীবাজার থানায় মামলা
  • সিলেটী বিমান যাত্রীদের হয়রানি বন্ধ করতে হবে
  • এ এম এ মুহিত আহ্বায়ক, সদস্য সচিব আরিফ
  • দেশে শুধু দুর্নীতির উন্নয়ন হচ্ছে: ফখরুল
  • কালরাত স্মরণে ব্ল্যাকআউট
  • কমলগঞ্জে কলেজ ছাত্র নিহত হওয়ার ঘটনায় শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ
  • নন এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের কর্মসূচি স্থগিত
  • কূটনৈতিক জোনের নিরাপত্তা জোরদার
  • প্রখ্যাত সঙ্গীত শিল্পী শাহনাজ রহমত উল্লাহর দাফন সম্পন্ন
  • যক্ষ্মা নির্মূলে প্রয়োজন সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও অঙ্গীকার
  • খুলে দেওয়া হয়েছে ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদ
  • যেভাবে হত্যা করা হয় ওয়াসিমকে-
  • প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে চালক ও সহকারীর দায় স্বীকার
  • ভয়াল ২৫ মার্চ, জাতীয় গণহত্যা দিবস আজ
  • Developed by: Sparkle IT