সম্পাদকীয়

নিরাপদ সড়ক সপ্তাহ

প্রকাশিত হয়েছে: ১১-০৫-২০১৯ ইং ০০:১৯:৪৯ | সংবাদটি ১২৪ বার পঠিত

দেশব্যাপী পালিত হচ্ছে বিশ্ব নিরাপদ সড়ক সপ্তাহ। মূলত সড়কপথ নিরাপদ রাখার লক্ষে এই সপ্তাহ পালিত হচ্ছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশের চেয়ে আমাদের দেশে দিবসটি পালনের গুরুত্ব বেশি। কারণ এই কথাটি নির্দ্বিধায় বলা যায় যে, অন্য যেকোন দেশের তুলনায় আমাদের দেশে সড়কপথ অনিরাপদ। প্রতিনিয়ত এখানে সড়কপথের নানা বিশৃঙ্খলা বাড়ছে। সড়কপথের দুর্ঘটনার মাত্রা ও ভয়াবহতা বাড়ছে দিনের পর দিন। দুর্ঘটনার পরিসংখ্যান দেয়া আজকাল হয়ে ওঠেছে দূরূহ। প্রতিদিন এতো দুর্ঘটনা ঘটছে যে, এর হিসাব রাখাও সম্ভব হচ্ছে না। এই প্রেক্ষাপটে দেশে পালিত হচ্ছে বিশ্ব নিরাপদ সড়ক সপ্তাহ। এছাড়াও দেশে জাতীয় পর্যায়েও পালিত হয় নিরাপদ সড়ক সপ্তাহ। এই সপ্তাহ’র উদ্দেশ্য হচ্ছে নিরাপদ সড়কপথ সৃষ্টিতে সর্বমহলে সচেতনতা সৃষ্টি করা।
আমাদের সড়কপথ দিন দিন অনিরাপদ হয়ে উঠছে। যানবাহনে চলাচলে জীবনের ঝুঁকি শুধুই বাড়ছে। বাড়ছে সড়কপথে লাশের মিছিল। আমাদের সড়কপথকে অনেকে ‘মৃত্যুফাঁদ’ বলেও অভিহিত করছেন। সড়কপথ দিন দিন অনিরাপদ হয়ে ওঠার কারণ অনেক। এর মধ্যে রয়েছে-সড়কপথের ধারণ ক্ষমতার চেয়ে বেশি যানবাহন চালানো, অদক্ষ চালকের বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে ওভারটেকিং করা, সড়ক দুর্ঘটনার জন্য দায়ীদের উপযুক্ত শাস্তি প্রদান না করা ইত্যাদি। জানা গেছে, সারাদেশেই বিভিন্ন রুটে অপরিকল্পিতভাবে যানবাহনের অনুমতি দেয়া হচ্ছে। যার ফলে সড়ক মহাসড়কে যানজট নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হচ্ছে না। সেই সঙ্গে বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনার হারও। একটি জাতীয় দৈনিকে প্রকাশিত খবরে বলা হয়-পৃথিবীর প্রায় সব উন্নত শহরেই রাস্তা অনুযায়ী কতো যানবাহন চলাচল করতে পারবে, সেই হিসাব করে নিবন্ধন দেয়া হয়। একটি গাড়ি বিকল না হওয়া পর্যন্ত নতুন একটি গাড়ির নিবন্ধন দেয়া হয় না। কিন্তু আমাদের দেশে যে কেউ যখন তখন যানবাহন চালানোর অনুমতি পাচ্ছে। বিআরটিএ ঢালাওভাবে অবৈধ সুবিধা গ্রহণের মাধ্যমে যানবাহনের নিবন্ধন দিচ্ছে।
সড়কপথের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে নানা সময় নানা উদ্যোগ গ্রহণ করে সরকার। কিন্তু কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। সড়কপথে থামছে না লাশের মিছিল। তবে বেশিরভাগ দুর্ঘটনার জন্য যে দায়ী চালক-হেলপার এটা আজ আর নতুন করে বলার প্রয়োজন নেই। কিন্তু এদেরকে আইনের আওতায় নিয়ে আসা সম্ভব হচ্ছে না। বরং দুর্ঘটনার জন্য চালক-হেলপারদের দায়ী করার প্রতিবাদে সংশ্লিষ্টরা বিভিন্ন সময় আন্দোলনেরও ডাক দেয়। আর প্রায় সময়ই পরিবহন শ্রমিকদের অনাকাংখিত ধর্মঘটের সময় সড়কপথে নৈরাজ্যের সৃৃষ্টি করা হয়। সড়কপথ নিরাপদ করতে হলে এই নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।

 

শেয়ার করুন

Developed by: Sparkle IT