উপ সম্পাদকীয়

সিলেটে অবাধে চলছে বনজ সম্পদের বিনাশ

প্রকাশিত হয়েছে: ১৪-০৫-২০১৯ ইং ০২:৩৯:৫৮ | সংবাদটি ১৩১ বার পঠিত


সিলেটে অতীতে যেসব ফল গাছে গাছে শোভা পেত তার সিংহভাগই বিলুপ্ত হয়ে গেছে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে টেংপইর গ্রামাইর, কাউ, গোলাইল, কেন্দু, মাঠাং, টেকাটুকি, ডেফল, পিঠাখাওরা, খইপুড়া, বন বরই উল্লেখযোগ্য। নতুন প্রজন্ম এগুলোর দেখা তো দূরের কথা, নামও শুনেছে কিনা সন্দেহ। দীর্ঘদিন থেকে এবং সিলেট শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকা থেকে অবাধে গাছ কেটে পরিবেশ ধ্বংস করা হচ্ছে। আশ্চর্যজনক হলেও এটা সত্য যে মানুষ বেঁচে থাকার জন্য প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে উদ্ভিদের উপর নির্ভরশীল। আমাদের চারপাশে বিভিন্ন রকমের গাছ রয়েছে। যেগুলো থেকে আমরা বেঁচে থাকার রসদ পাই। মানুষ বৃক্ষরাজি গাছগাছালিকে সর্বদা গাছের ক্ষতি সাধন করলেই যেন তারা বেঁচে যান। দেশের মোট আয়তনের শতকরা পঁচিশ ভাগ বনাঞ্চল থাকা উচিৎ। আমাদের দেশে দশ শতাংশ বনাঞ্চল আছে কিনা সন্দেহ। যার কারণে এর বিরুপ প্রতিক্রিয়ায় অকাল বন্যা ও খরা ছাড়াও ঝড়ঝঞ্জা লেগেই আছে। আর এর খেসারত দিতে হচ্ছে এদেশের ভাগ্যাহত মানুষকে। কিন্তু দুর্ভাগ্য, আমাদের দুর্দশা দেখার কেউ নেই।
মোঃ বেলাল আহমদ
নূরানী, বনকলাপাড়া,
সুবিদবাজার, সিলেট।

শেয়ার করুন
উপ সম্পাদকীয় এর আরো সংবাদ
  • খাদ্য নিরাপত্তায় বিকল্প চিন্তা
  • জন্মাষ্টমী ও ভগবান শ্রীকৃষ্ণ
  • বৃহত্তর সিলেটবাসীর একটি গৌরবগাঁথা
  • পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণ
  • জলবায়ু পরিবর্তনই আসল সমস্যা
  • কিশোর অপরাধ
  • আ.ন.ম শফিকুল হক
  • হোটেল শ্রমিকদের জীবন
  • বিশেষ মর্যাদা বাতিল ও কাশ্মীরের ভবিষ্যত
  • বাংলাদেশে অটিস্টিক স্কুল ও ডে কেয়ার সেন্টার
  • বেদে সম্প্রদায়
  • গণপরিবহনে শৃঙ্খলা ফেরাতে সুপারিশমালা
  • ত্যাগই ফুল ফুটায় মনের বৃন্দাবনে
  • প্রকৃতির সঙ্গে বিরূপ আচরণ
  • ঈদের ছুটিতেও যারা ছিলেন ব্যস্ত
  • সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের বর্ষপূর্তি : প্রাপ্তি ও প্রত্যাশা
  • আইনজীবী মনির উদ্দিন আহমদ
  • শিশুদের জীবন গঠনে সময়ানুবর্তিতা
  • শাহী ঈদগাহর ছায়াবীথিতলে
  • কিশোর-কিশোরীদের হালচাল
  • Developed by: Sparkle IT