শেষের পাতা স্থগিত করলেন চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তা

  কানাইঘাটে সরকারি ধান ক্রয়ে অব্যবস্থাপনা

প্রকাশিত হয়েছে: ২৪-০৫-২০১৯ ইং ১৭:৩৬:৫৯ | সংবাদটি ১১৮ বার পঠিত

কানাইঘাট (সিলেট) থেকে নিজেস্ব সংবাদদাতা ঃ কানাইঘাটে সরকারিভাবে ধান, চাল ক্রয়ের শুরুতে অব্যবস্থাপনা ও অনিয়ম পরিলক্ষিত হওয়ায় কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। কৃষকদের সাথে যথাযথ যোগাযোগ না করা এবং সংশ্লিষ্টদের সম্পৃক্ত না করায় উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মুমিন চৌধুরী ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা কার্যক্রমের উদ্বোধন স্থগিত করেন। এসময় কানাইঘাট খাদ্যগুদাম অফিস কর্তৃপক্ষকে ভৎসনা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান ও নির্বাহী কর্মকর্তা। অনেক জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকরা এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। জানা যায়, সরকারিভাবে সারা দেশে উপজেলা পর্যায়ে ধান, চাল ক্রয় অভিযান শুরু হয়েছে। এর অংশ হিসাবে গতকাল বৃহস্পতিবার কানাইঘাট খাদ্যগুদাম অফিসের উদ্যোগে প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে ধান ও মিল মালিকদের কাছ থেকে চাল ক্রয়ের উদ্বোধনী ছিল। স্থানীয় প্রশাসন ধান, চাল ক্রয়ের উদ্বোধনী দিনে কৃষকদের জমায়েত করার নির্দেশ দেন খাদ্যগুদাম অফিসের কর্মকর্তাদের। কিন্তু‘ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুমিন চৌধুরী সকাল ১১টায় খাদ্যগুদাম অফিসে উপস্থিত হয়ে দেখতে পান সেখানে যাদের কাছ থেকে ধান ক্রয় করা হবে সেই কৃষকদের মোটেও উপস্থিতি নেই। এসময় নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানাও সেখানে উপস্থিত হন। কৃষকদের উপস্থিতি না পেয়ে তারা ধান ক্রয়ের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান স্থগিত করেন। পরে বিকেল ৩টায় নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে এ নিয়ে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান মুমিন চৌধুরী, নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানার উপস্থিতিতে সেখানে উপজেলা খাদ্যগুদাম অফিসের কর্মকর্তাদের কৃষি অফিস থেকে কৃষকদের তালিকা নিয়ে প্রকৃত কৃষকদের নিকট থেকে ধান ক্রয়ের নির্দেশ দেন। এসময় আগামী ৪/৫ দিনের মধ্যে কোনো ধরনের অনিয়ম দুুর্নীতি ছাড়াই ১৩৬ টন ধান কৃষকদের কাছ থেকে প্রতি কেজি ২৬ টাকা ধরে ক্রয় শুরু করতে বলা হয়। এ সময় সভায় উপস্থিত সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মামুন রশিদ, বড়চতুল ইউনিয়ন চেয়াম্যান মাওলানা আবুল হোসাইন, বানীগ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মাসুদ আহমদ বলেন, কানাইঘাটে সরকারিভাবে ধান, চাল ক্রয় করা হবে এব্যাপারে তারা কিছুই জানেন না। খাদ্যগুদাম অফিস কর্তৃপক্ষ কে জনপ্রতিনিধিদের ধান ক্রয়ে সম্পৃক্ত করার আহ্বান জানান এবং সিন্ডিকেটের মাধ্যমে ধান ক্রয় না করে কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহের দাবি জানান। উপজেলা চেয়ারম্যান মুমিন চৌধুরী ও নির্বাহী কর্মকর্তা তানিয়া সুলতানা ধান ও চাল ক্রয়ে কোন ধরনের অনিয়ম দুর্নীতি ও সিন্ডিকেট করতে দেওয়া হবে না বলে কঠোর ভাষায় বক্তব্য দিয়েছেন। প্রসঙ্গত, কানাইঘাটে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত কৃষি অফিসের তালিকা অনুযায়ী খাদ্যগুদাম কর্র্তৃপক্ষ বিধি মোতাবেক প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে ১৩৬ টন ধান ক্রয় করবে। একজন কৃষক সর্বোচ্চ ৩ টন ও নি¤েœ ৩ বস্তা ধান সরকারি মূল্য অনুযায়ী বিক্রি করবেন। এছাড়া ইতিমধ্যে মিল মালিকদের কাছ থেকে ২৭৭ টন সিদ্ধ চাল প্রতি কেজি ৩৬ টাকা ধরে ও ৩৭৫ টন আতপ চাল কেজি প্রতি ৩৫ টাকা দামে ক্রয় করা হয়েছে বলে উপজেলা অতিরিক্ত খাদ্য কর্মকর্তা মোস্তাক আহমদ জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • বাংলাদেশে ১০০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে আমিরাত
  • শিল্পায়নের ক্ষেত্রে সিলেট সম্ভাবনাময় অঞ্চল
  • হাকালুকি হাওরে নারীসহ আটক ৭ জরিমানা দিয়ে মুক্তি
  • সিলেট-৩ নির্বাচনী এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে ------ মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী এমপি
  • নবীগঞ্জ ও আজমিরীগঞ্জে অগ্নিকান্ডে ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ভস্মীভূত
  • ২১ ঘণ্টা পর স্কুল ছাত্রের লাশ উদ্ধার
  • কেমুসাস’র ৮৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী কাল
  • ন্যায় বিচার প্রাপ্তিতে বিচারকার্যে জড়িত সরকারের সকল দপ্তরের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ ----------------------কাউছার আহমেদ
  • নবীগঞ্জে পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় আরো ১ জন গ্রেফতার
  • দুঃশাসনের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে
  • ভারত থেকে আসছে না পেঁয়াজ
  • সাহিত্য ও সংস্কৃতি চর্চা মানুষকে কখনও খালি হাতে ফেরায় না ---------শফিক চৌধুরী
  • শ্রীমঙ্গলে বিপন্ন প্রজাতির হনুমান বিদ্যুৎস্পৃষ্ট
  • ২১ বছরেও বানিয়াচং সাগরদিঘীকে ঘিরে গড়ে উঠেনি পর্যটনকেন্দ্র
  • ৯ম দিনে নগরীতে ‘সিলেট ব্যবসায়ী পরিষদ’র নির্বাচনী প্রচারণা
  • সম্মিলিত ব্যবসায়ী পরিষদকে পেট্রোলিয়াম ডিলার ও পেট্রোল পাম্প এসোসিয়েশনের সমর্থন
  • ছবি
  • শারদীয় দুর্গোৎসব সফলের লক্ষ্যে পূজা উদযাপন পরিষদের প্রতিনিধি সভা 
  • ডুবে যাওয়া এমভি গলফ আরগোর ১৪ নাবিক উদ্ধার
  • কানাইঘাটে বাল্যবিয়ে পন্ড : জরিমানা
  • Developed by: Sparkle IT