প্রথম পাতা

বিএনপি অফিসে তালা দিয়ে ছাত্রদলের দিনভর বিক্ষোভ

ডাক ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ১২-০৬-২০১৯ ইং ০১:৩৬:০৩ | সংবাদটি ১৮৯ বার পঠিত
Image

মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দেওয়ার প্রতিবাদে নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের ফটকে তালা ঝুলিয়ে দিনভর বিক্ষোভ দেখিয়েছে ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা।
গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে এই বিক্ষোভের মধ্যে তারা ওই কার্যালয়ের বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে দিয়েছে কয়েক দফা।
এক পর্যায়ে তারা ভেতরে ঢুকে অফিস কর্মচারীদের কয়েকজনকে বের করে দিয়। এ সময় ছাত্রদলের ঢাকা মহানগর পূর্ব শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক রবিউল ইসলাম নয়ন বিক্ষুব্ধদের মারধরের শিকার হন বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।
ছাত্রদলের সাবেক কয়েকজন নেতা সকালে কার্যালয়ে এসে বিক্ষুব্ধদের বাধার মুখে ভেতরে ঢুকতে ব্যর্থ হন। পরে তারা গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে গিয়ে লন্ডনে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।
বিক্ষুব্ধ ছাত্রদল নেতাদের একটি প্রতিনিধি দলও বিকালে গুলশানের কার্যালয়ে যান। সেখান থেকে তাদের সঙ্গে তারেকের কথা হবে বলে বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন।
অসুস্থতার কারণে শয্যাশায়ী বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এখনও বিএনপি কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় রয়েছেন। দুইজন অফিস কর্মী এবং চিকিৎসক সেখানে তার সঙ্গে রয়েছেন।
বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতা মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বিকালে নয়া পল্টনে এসে অসুস্থ রিজভীকে দেখে যান।
বেরিয়ে যাওয়ার সময় মির্জা আব্বাস সাংবাদিকদের বলেন,“বিষয়টা সাংবাদিকরা যেভাবে সিরিয়াসলি নিয়েছে বা উপস্থাপন করেছে, আসলে বিষয়টি সেরকম সিরিয়াস না। এটা পোলাপানের কাজ-কর্ম, মান-অভিমানের কাজ।
‘‘কয়েকদিন আগে ঈদ গেছে। মান-অভিমান হয়েছে। এটা ঠিক হয়ে যাবে। কারো কিছু করতে হবে না। কোনো সালিশ, আলোচনা কিছুই করতে হবে না। ওরা রাগ কেের্ছ, সব ঠিক হয়ে যাবে।”
ছাত্রদলের সর্বশেষ কমিটি গঠন করা হয়েছিল ২০১৪ সালের ১৪ অক্টোবর। রাজীব আহসানকে সভাপতি ও আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক করে গঠিত ওই আংশিক কমিটিতে তখন ১৫৩ সদস্য ছিলেন।
দীর্ঘদিন পর সেই কমিটি পূর্ণাঙ্গ করা হলে তাতে ৭৩৬ জনকে পদ দেওয়া হয়। তবে ওই কমিটি নিয়েও সংগঠনে ক্ষোভ-বিক্ষোভ দেখা গিয়েছিল।
গত ৬ জুন ঈদের আগের দিন ছাত্রদলের ওই মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে দেয় বিএনপি। সে সময় দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে নতুন কাউন্সিলে প্রার্থী হওয়ার জন্য তিনটি যোগ্যতা নির্ধারণী শর্তও ঠিক করে দেওয়া হয়।
সেখানে বলা হয়, প্রার্থীকে ছাত্রদলের প্রাথমিক সদস্য হতে হবে, তাকে অবশ্যই বাংলাদেশের কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী হতে হবে এবং ২০০০ সালের পরে এসএসসি/সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
নতুন কাউন্সিল অনুষ্ঠানে সংগঠনটির সাবেক নেতাদের নিয়ে সোমবার তিনটি কমিটি করে দেওয়া হয় বিএনপির পক্ষ থেকে।
কিন্তু কমিটি ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা এবং প্রার্থিতার ক্ষেত্রে বয়সের শর্ত নিয়ে আপত্তি জানিয়ে মঙ্গলবার সকালে বিএনপি অফিসের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করেন বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা।
এ সময় তারা ‘সরকারের দালালেরা হুঁশিয়ার, সাবধান’, ‘আমাদের অধিকার দিতে হবে দিতে হবে’- ইত্যাদি স্লোগান দিতে শুরু করলে উত্তেজনা তৈরি হয়।
রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে কমিটি ভেঙে দেওয়ার বিষয়টি জানানো হয়েছিল বলে তার বিরুদ্ধেও স্লোগান দেন ছাত্রদলের বিক্ষুব্ধরা।
বেলা সাড়ে ১২টার দিকে তারা কার্যালয়ের বিদ্যুতের লাইন কেটে দিলে পুরো অফিস বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে। ওই অবস্থায় বিএনপি নেতারা রিজভীকে সরিয়ে হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি নেন। সেজন্য একটি অ্যাম্বুলেন্সও আনা হয়। কিন্তু সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত কার্যালয়ের তৃতীয় তলায় নিজের কক্ষেই ছিলেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব।
ছাত্রদলের সাবেক নেতা শামসুজ্জামান দুদু, আমানউল্লাহ আমান, আসদুজ্জামান রিপন, ফজলুল হক মিলন, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, এবিএম মোশাররফ হোসেন, মীর সরফত আলী সপু, শফিউল বারী বাবু, আবদুল কাদের ভুঁইয়া জুয়েল, হাবিবুর রশিদ হাবিব বেলা ১১টার দিকে কার্যালয়ের সামনে আসেন। কিন্তু বিক্ষোভের মধ্যে তারা ভেতরে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হন।
সাবেক নেতাদের মধ্যে খায়রুল কবির খোকন ও আজিজুল বারী হেলাল সকালে বিক্ষোভ শুরুর আগেই কার্যালয়ে ঢুকে পড়েছিলেন। বেলা সাড়ে ১২টা দিকে তারা অফিস থেকে বেরিয়ে এলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ‘ভুয়া’ ‘ভুয়া’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন।
কিছু সময় নয় পল্টনে হোটেল ভিক্টোরিয়া সামনে দাঁড়িয়ে থাকার পর ছাত্রদলের সাবেক এই নেতারা গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে যান।
সেখান থেকে তারা লন্ডনে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করে উদ্ভূত পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন বলে দলের একজন জ্যেষ্ঠ নেতা জানান।
এর আগে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, বিশেষ সম্পাদক শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস আদালতে হাজিরা দিয়ে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কার্যালয়ের সামনে এলে বিক্ষুব্ধদের সামনে পড়েন। তাদের দাবির কথা শুনে সেখান থেকে চলে যান তারা।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • গোলাপগঞ্জে আরও ৭ জন করোনা আক্রান্ত
  • কুলাউড়ায় আরো ৭ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত
  • ২৪ ঘণ্টায় ২৬৯৫ জন আক্রান্ত, ৩৭ জনের মৃত্যু
  • জকিগঞ্জে ছেলের হাতে বৃদ্ধা মা খুন ॥ ঘাতক আটক
  • সিলেটে পুলিশ সুপারের অফিসসহ ১১ থানায় জীবাণুনাশক টানেল স্থাপন
  • ‘ভয়ঙ্কর’ মানবপাচারকারী বিশ্বনাথের রফিক দীর্ঘদিন পর বন্দি র‌্যাবের জালে ॥ রয়েছে ৫ মামলা
  • করোনায় প্রখ্যাত ইউরোলজিস্ট ডা. মঞ্জুর রশীদ চৌধুরী’র ইন্তেকাল
  • শামসুদ্দিন হাসপাতালে করোনায় কানাইঘাটের বৃদ্ধের মৃত্যু
  • সারাদেশে সোয়া ছয় কোটি মানুষ ত্রাণ সহায়তা পেয়েছে
  • ৭ দিনের জন্য দিল্লি লকডাউন
  • দোয়ারাবাজারে মাদ্রাসা ভবনে মাদ্রাসা বালু সরবরাহ নিয়ে সংঘর্ষে একজনের মৃত্যু ॥ আহত ১০
  • সিলেটে উর্ধ্বমুখী করোনার থাবা
  • করোনা মোকাবিলায় গুরুত্ব দিয়ে একনেকে ১০ প্রকল্প অনুমোদন
  • কদমতলী বাস টার্মিনাল রণক্ষেত্র আহত অর্ধশতাধিক ॥ গাড়ি ভাঙচুর
  • ছাতকের জাউয়া এলাকায় নতুন ১২ জনের করোনা শনাক্ত
  • দেশে একদিনে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ২৯১১, মৃত্যু ৩৭
  • ভ্যাকসিন সামিটে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী
  • মৃত্যু ৩ লাখ ৭৫ হাজার, আক্রান্ত সাড়ে ৬২ লাখেরও বেশি
  • করোনায় সিলেট জেলায় এপর্যন্ত ১৩জনের প্রাণহানি
  • লিবিয়ায় ২৬ বাংলাদেশি হত্যার ঘটনায় ঢাকায় একজন গ্রেফতার
  • Image

    Developed by:Sparkle IT