শেষের পাতা মাছ ধরা নিয়ে হামলায় যুবক মৃত্যুপথযাত্রী

মুক্তিপনের জন্য লাখাই’র শিশু বরিশালে খুন : মামা আটক

প্রকাশিত হয়েছে: ১৮-০৬-২০১৯ ইং ০২:৩০:২২ | সংবাদটি ২৬৫ বার পঠিত
Image

হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় সিয়াম আহমেদ নামে ৯ বছরের এক শিশুকে অপহরণের পর মুক্তিপণ না পেয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহত শিশুর মামা সাফায়াত হোসেনকে (২২) আটক করেছে পুলিশ। নিহত সিয়াম উপজেলার জিরুন্ডা গ্রামের হাফেজ নূর উদ্দিনের পুত্র। গত শনিবার বরিশাল জেলার হিজলা উপজেলার চর আবুপুর গ্রামের দুর্গম চর থেকে নিহত সিয়ামের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ। পরে ময়নাতদন্ত শেষে তার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হলে গত রোববার গ্রামের বাড়ি জিরুন্ডায় সিয়ামের মরদেহ কবর দেয়া হয়।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, সিয়ামের বাবা নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলার করারচর বেসিক শিল্পনগরী এলাকায় হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টের ব্যবসা করেন। ব্যবসার সুবাদে তারা সপরিবারে সেখানেই থাকেন। সিয়াম সেখানকার একটি কিন্ডার গার্টেনে তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ে। গত ২ জুন সিয়াম বাড়ির বাইরে গেলে তার চাচাতো মামা সাফায়াত হোসেন তাকে অপহরণ করে। এ ঘটনায় সিয়ামের বাবা শিবপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। এরপর নরসিংদী জেলার গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) বিভিন্ন স্থানে সিয়ামকে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে সন্দেহজনক হিসেবে গত ১৩ জুন ঢাকার সায়েদাবাদ থেকে সাফায়াতকে আটক করে। সাফায়াত ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার মাছমা গ্রামের হাবীব মিয়ার পুত্র।
পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে সাফায়াত জানায়, মুক্তিপণের জন্যই মূলত সে ও তার কয়েকজন সহযোগী সিয়ামকে অপহরণ করে। সাফায়াত কন্ঠ পরিবর্তন করে নিহত সিয়ামের মায়ের কাছে ৫০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। কিন্তু সিয়ামের পরিবার তা দিতে অনীহা প্রকাশ করে। পরদিন আবার ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করলে তা বিকাশের মাধ্যমে দিয়ে দেন নিহত সিয়ামের পরিবার। কিন্তু পরিচয় জেনে যাওয়ার ভয়ে সিয়ামকে নিয়ে ঢাকার সদরঘাট থেকে লঞ্চে বরিশালে চলে যায় সাফায়াত। পরে তাকে বরিশাল জেলার হিজলা উপজেলার চর আবুপুর গ্রামের দুর্গম চরে নিয়ে হত্যা করে মরদেহ ফেলে রেখে চলে আসে। পরে তার দেয়া তথ্যমতে গত শনিবার নিহত সিয়ামের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে ডিবি পুলিশ।
লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. এমরান হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শিশু সিয়াম হত্যার ঘটনায় তার চাচাতো মামা সাফায়াতকে আটক করা হয়েছে। ইতিমধ্যে সিয়ামের মরদেহ দাফন করা হয়েছে।
অপরদিকে, একই উপজেলার শিবপুর গ্রামের দুলাল মিয়া এবং আনোয়ার হোসেন স্থানীয় হাওরে মাছ ধরতে গিয়ে বিরোধে জড়ায়। এক পর্যায়ে আনোয়ার টেটা (দেশীয় প্রাণ নাশক অস্ত্র) দিয়ে দুলালের বুকে আঘাত করে। তাকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেনকে আটকে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালানো হচ্ছে। আহত দুলালের অবস্থা আশংকাজনক বলে পুলিশ জানিয়েছে।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকীতে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন
  • শিল্পপতি আব্দুল মোনেমের ইন্তেকাল
  • সব কর্মীকে একসঙ্গে কাজে না ফেরাতে আইএলও’র সতর্কতা
  • দুই মাস বন্ধের পর মসজিদ খুলে দিয়েছে সৌদি আরব
  • জিয়া্উর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীতে দক্ষিণ সুরমায় খাবার বিতরণ
  • তিলপাড়া ইউনিয়নে বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকে’র আর্থিক সহায়তা প্রদান
  • জগন্নাথপুরে নলজুর সেতুর সংযোগ সড়ক উদ্বোধন
  • বিয়ানীবাজারের ৪ ইউনিয়নে থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকের আর্থিক সহায়তা প্রদান
  • যুক্তরাজ্য বিএনপির উদ্যোগে পূর্ব লন্ডনের নিউহ্যাম হসপিটালের এনএইচএস ষ্টাফদের জন্য খাদ্য বিতরণ
  • সিলেটে ৮৫০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে দক্ষিণ সুরমা সমাজ কল্যাণ সমিতি
  • ওয়ার্ল্ড বিডি হিউম্যান হেল্প এসোসিয়েশনের কমিটি গঠিত
  • রাধাকান্ত দেবনাথের শ্রাদ্ধানুষ্ঠান আজ
  • ব্যবসায়ী গৌসুল আলম গেদু’র ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
  • মাধবপুরের আবাবিল সোসাইটির ত্রাণ বিতরণ
  • করোনায় অসহায় ১৮১ পরিবারের পাশে প্রজন্ম প্রত্যাশা
  • হাতিম চৌধুরী ইসলামিয়া হাফিজিয়া দাখিল মাদ্রাসার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ
  • শাল্লায় কমিউনিস্ট পার্টির হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ
  • আরও একশ পরিবারে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিল বন্ধন সমাজ কল্যাণ যুব সংঘ
  • অসহায় পরিবারদের উপহার সামগ্রী দিল সিলেট জেলা ছাত্রলীগ
  • মাধবপুরে সুরমা চা বাগানে ত্রাণ বিতরণ
  • Image

    Developed by:Sparkle IT