স্বাস্থ্য কুশল

থানকুনির রোগ নিরাময় গুণ

মুন্সি আব্দুল কাদির প্রকাশিত হয়েছে: ২২-০৭-২০১৯ ইং ০০:৪২:০৫ | সংবাদটি ৮৭ বার পঠিত

থানকুনি একটি পরিচিত ভেষজ। গ্রামাঞ্চলের পুকুর পাড়ে, রাস্তার ধারে এটি প্রায়ই চোখে পড়ে। বসন্তকালে থানকুনি গাছে ফুল আসে আর গ্রীষ্মকালে ফল পাকে। বীজ এবং কান্ড দুটোর মাধ্যমেই থানকুনি বংশ বৃদ্ধি করে। থানকুনি আদ্র মাটিতে ভাল জন্মে তবে জলাবদ্ধতায় পচে যায়। ছোট কালে পেটে ব্যথা হলে মা বলতেন টাকা মানকি পাতা নিয়ে আয়। এটি খেলে পেট ব্যথা ভাল হয়ে যায়। টাকা মানকি আমাদের এলাকায় থানকুনির আঞ্চলিক নাম। আবার কোথায় একে টাকা পাতাও বলে। থানকুনি অত্যন্ত বলকারক, রুচি বর্ধক, হজম বৃদ্ধিকারক ভেষজ। আমরা রোগ নিরাময়ে থানকুনি পাতার বিবিধ ব্যবহার জানবÑ
১। আমাশয় : আমাশয় হলে থানকুনি পাতার রস ৫-৬ চামচ একটু গরম করে খেলে অথবা পাতা থেঁতো করে একটু ভেজে খেলে উপকার পাওয়া যায়।
২। বদহজম : বদহজম হলে আমাশয়ের চিকিৎসার মত থানকুনি পাতার রস ৫-৬ চামচ একটু গরম করে খেলে অথবা পাতা থেঁতো করে একটু ভেজে খেলে উপকার পাওয়া যায়।
৩। শরীরের ক্ষত : শরীরের যে কোন স্থানে ক্ষত হলে থানকুনি পাতা সিদ্ধ করে সেই পানি দ্বারা ক্ষত স্থান ধুয়ে দিলে উপকার হবেই। আর থানকুনি পাতার রস দিয়ে ঘি তৈরী করে সেই ঘি ক্ষতে লাগালে খুব তাড়াতাড়ি ক্ষত শুকিয়ে যাবে।
৪। স্মরণ শক্তি : কোন কিছু মুখস্ত করার পর আজ মনে আছেতো কাল মনে নেই। কোন ভাবেই মনে থাকে না। মনে করা যাচ্ছে না। স্মৃতি শক্তি হ্রাস পেয়েছে। স্মৃতি শক্তি দুর্বল। চিন্তা না করে আল্লাহ তায়ালার উপর ভরসা করে থানকুনি পাতার রস ২-৩ তোলা, আধাকাপ দুধ এবং ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে প্রতিদিন একবার করে সেবন করুন বা করান উপকার পাওয়া যাবে। তবে এসময় টক, ঝাল, লবন, ঘি, ডিম খেতে নেই।
৫। অনিয়মিত ¯্রাব : অনিয়মিত ঋতু ¯্রাব হলে থানকুনি পাতার রস ৩-৪ চা চামচ প্রতিদিন একবার করে কয়েকদিন খেলে ভাল হয়ে যাবে।
৬। দেহের লাবণ্য : থানকুনি পাতার রস ৫-৬ চা চামচ একটু গরম করে এক কাপ দুধের সাথে খেলে দেহের লাবণ্য ও কান্তি ফিরে আসে।
৭। চুল উঠা : দেহের অপুষ্টি জনিত কারণে মাথার চুল উঠে গেলে থানকুনি পাতার রস ৫-৬ চা চামচ একটু গরম করে এক কাপ দুধের সাথে খেলে চুল উঠা বন্ধ হবে।
৮। থেতলে যাওয়া : কোন স্থান আঘাতে থেতলে গেলে থানকুনি গাছ বেটে অল্প গরম করে থেতলানো জায়গায় প্রলেপ দিলে থেতলানো ভাল হয়ে যায়।
৯। বাচ্চাদের কথা বলতে দেরি : অনেক বাচ্চার কথা বলতে দেরী হয়। পরিস্কার করে কথা বলতে পারে না। এমতাবস্থায় এক চামচ থানকুনি পাতার রস সামান্য গরম করে ঠান্ডা হলে ২০-২৫ ফোঁটা মধু মিশিয়ে ঠান্ডা দুধের সাথে কিছুদিন খাওয়ালে উপকার হবে।
১০। ঘামের দুর্গন্ধ : যাদের বেশী ঘাম হয় এবং ঘামে দুর্গন্ধ তাদের থানকুনি পাতার রস ৫-৬ চা চামচ একটু গরম করে এক কাপ দুধের সাথে খেলে উপকার পাওয়া যাবে।
১১। পায়খানায় সমস্যা : কফ যুক্ত পায়খানা, বারবার পায়খানায় যেতে হয়। পেট পরিস্কার হচ্ছে না, পেটে বায়ু জমা মাঝে মাঝে মাথা ব্যথাও হয় এমতাবস্থায় থানকুনি পাতার রস ৩-৪ চামচ সামান্য গরম করে কাঁচা গরুর দুধ মিশিয়ে কয়েকদিন খেলে উপকার পাওয়া যাবে।
১২। পেটের পিড়ায় : থানকুনি পাতা বেটে ভর্তা বানিয়ে খেলে অথবা ঝোল রান্না করে ভাতের সাথে খেলে পেটের বিভিন্ন অসুখ, বদহজম, ডায়রিয়া, আমাশয় পেট ব্যথা সেরে যায়। এর রস আলসার একজিমা রোগ সারাতেও উপকারী।

শেয়ার করুন
স্বাস্থ্য কুশল এর আরো সংবাদ
  • এডিস মশা ডেঙ্গু ছড়ায়
  • রোগ প্রতিরোধে আনারস
  • স্থূলতা : এখনই ব্যবস্থা জরুরি
  • মেহেদীর কতো গুণ
  • যে সব খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর
  • শিশুকে ওষুধ দিন বয়স ও ওজন অনুযায়ী
  • জ্বর কমার পরের সময়টা ঝুঁকিপূর্ণ
  • কম্পিউটারজনিত চক্ষু সমস্যা
  • ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া জ্বরের লক্ষণ
  • ডেঙ্গু প্রতিরোধের উপায়
  • সুস্থ থাকতে ওজন নিয়ন্ত্রণ
  • স্মার্টফোনের প্রতি শিশুদের আসক্তিতে ভয়ানক ঝুঁকি!
  • বন্যায় স্বাস্থ্য সমস্যা : করণীয়
  • কম বয়সেও স্ট্রোক হতে পারে
  • থানকুনির রোগ নিরাময় গুণ
  • সাপের কামড় : জরুরী স্বাস্থ্য সমস্যা
  • প্রাকৃতিক মহৌষধ মধু
  • চোখ দিয়ে পানি পড়া
  •   তরুণদের মনোরোগ ও পরিবার
  • ঘাড় ব্যথায় করণীয়
  • Developed by: Sparkle IT