প্রথম পাতা টেকসই মৎস্য উৎপাদন বিষয়ে প্রথম আন্তর্জাতিক সম্মেলনের উদ্বোধনীতে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, উন্মুক্ত জলাশয় থেকে মৎস্য আহরণ এখনো কম ॥ মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

কৃষি আমাদের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি

প্রকাশিত হয়েছে: ২৬-০৮-২০১৯ ইং ০২:৩০:৪৯ | সংবাদটি ৯৭ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার ঃ কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, আমাদের অর্থনীতির মূল ইঞ্জিন হচ্ছে কৃষি। কৃষি আমাদের পেশা, নেশা ও আমাদের নিরাপত্তা। মৎস্যসহ কৃষির টেকসই উন্নয়নই দেশের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করবে।
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্যোগে ৩দিনব্যাপী প্রথম টেকসকই মৎস্য উৎপাদন বিষয়ে আন্তর্জাতিক সম্মেলন-২০১৯ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন। গতকাল রোববার সকাল ১০টায় পূর্ব শাহীঈদগাস্থ আমানউল্লাহ কনভেনশন হলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু বলেছেন, মৎস্য উৎপাদনে আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করেছি, আরো উন্নতি করতে চাই। আমাদের উন্মুক্ত জলাশয় বিশেষ করে হওর-বাওর থেকে এখনো মৎস্য আহরণ তুলনামূলকভাবে কম হচ্ছে। অপরিকল্পিত ও অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে বিপুল পরিমাণ মাছ শিকার করায় এই অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে।
সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মতিয়ার রহমান হাওলাদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. মো. কবির ইকরামুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য বিভাগের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনিষ্টিটিউটের মহাপরিচালক ড. ইয়াহিয়া মোহাম্মদ, এফএও এর বাংলাদেশ প্রতিনিধি রবার্ট ডগলাস সিমসন, ওয়ার্ল্ড ফিস এর বাংলাদেশ ও সাউথ এশিয়ার কান্ট্রি ডিরেক্টর ক্রিস প্রাইস। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন গবেষক ও বিজ্ঞানী স্কটল্যান্ডের স্টার্লিং বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. ডেভিড সি লিটল।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে কৃষিমন্ত্রী আরো বলেন, ২০০৮ সালে সরকার ক্ষমতায় এসে ‘সবার জন্য খাদ্য’ নিশ্চিতের যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলো তা পূরণ করেছে। মৎস্যসহ কৃষি ক্ষেত্রে আমরা বিষ্ময়কর উন্নয়ন করতে সক্ষম হয়েছি। তিনি বলেন, আমাদের মোট জিডিপির ৩ দশমিক ৬৬ ভাগ আসে মৎস্য সম্পদ থেকে। বিগত ১০ বছরে মৎস্য খাতে যে উন্নয়ন হয়েছে-তাতে বাংলাদেশ সারা বিশ্বে মৎস্য উৎপাদনে নিজেদের অবস্থান করে নিয়েছে।
সরকার এখন নিরাপদ ও পুষ্টিকর খাদ্যের দিকে জোর দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মাছ নিরাপদ ও পুষ্টিকর। রেডমিটে পুষ্টি আছে ঠিক, কিন্তু তা ক্ষতিকরও বটে। মাছের মধ্যে এ ধরনের কোন ক্ষতির কারণ নেই। তিনি বলেন, ইউরোপে একসময় মাংস বেশি ব্যবহৃত হতো। এখন তারাও মাছ ও সবজিতে গুরুত্ব দিচ্ছে।
আমরা স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করলেও পর্যাপ্ত নয় উল্লেখ করে বলেন, চাষী উৎপাদন করে বিক্রি করতে পারে না বা কম মূল্যে বিক্রি করতে বাধ্য হয়। উৎপাদন করেও তারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আবার অনেকে উৎপাদন করছে। কিন্তু তার পরিবারকে খাওয়াতে পারছে না। তাই উৎপাদিত মৎস্যসহ কৃষি পণ্যের বহুমুখী ব্যবহার এবং নতুন নতুন বাজার সৃষ্টির উপর বিশেষ গুরুত্ব দিতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ ও সুচিন্তিত নেতৃত্বে কৃষি ও মাৎস্যখাতে বাংলাদেশ স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করছে। আমাদের বিজ্ঞানীরা নতুন জাত উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি উন্নয়নে কাজ করছেন। তিনি বলেন, বাইরে গেলে মানুষ জানতে চায় এতো দ্রুত বাংলাদেশ কিভাবে উন্নতি করলো। তোমাদের হাতে আলাদিনের চেরাগ আছে কিনা। আমি বলি আমাদের রয়েছেন-‘ডায়নামিক লিডার বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা’।
সরকারের স্লোগান ‘গ্রাম হবে শহর’ এর বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, গ্রামে এখন মানুষ বিদ্যুৎ ব্যবহার করছে। চলছে ফ্রিজ, টেলিভিশন, ইন্টারনেট। রান্নার কাজে ব্যবহার হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস। সড়ক যোগাযোগ, খাদ্য নিরাপত্তাসহ গ্রামগুলো এখন স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়ে উঠেছে। মাছ উৎপাদনে আমাদের ভবিষ্যত চ্যালেঞ্জ ও কৌশল কি হবে সে বিষয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই সেমিনার থেকে আমাদের মৎস্য খাতের উন্নয়ন, নতুন প্রযুক্তি ও পদ্ধতি এবং উন্নত জাত উদ্ভাবনের মাধ্যমে বাংলাদেশ মৎস্য উৎপাদনে নতুন নির্দেশনা পাবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। অর্থনৈতিকভাবে সাশ্রয়ী, পরিবেশগত ও সামাজিক ভাবে গ্রহণযোগ্য এবং চাষীদের জন্য সুবিধাজনক প্রযুক্তি উদ্ভাবনে বিশেষজ্ঞদের প্রতি আহবান জানান তিনি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ মন্ত্রী মো. আশরাফ আলী খান খসরু আরো বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমুদ্রে বিশাল অঞ্চল জুডে আমাদের অধিকার পেয়েছি। এখন সেখানে মৎস্য জরিপ কাজ চলছে। জরিপ শেষ হলে মৎস্য আহরণে পরবর্তী কাজে হাত দেয়া হবে। তিনি বলেন, উন্মুক্ত জলাশয় থেকে মাছ আহরণ বাড়াতে সরকার প্রচুর পরিমাণে পোনা মাছ অবমুক্ত করছে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ কৃষি গবেষনা কাউন্সিলের নির্বাহী চেয়ারম্যান ড. মো. কবির ইকরামুল হক বলেন, জলবায়ুর পরিবর্তনের কারণে পানি ও পানির গুনাগুন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। তাছাড়া, হাওরে অধিক মাছ আহরণে মাছের বংশবৃদ্ধি বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।
বাংলাদেশ মৎস্য বিভাগের মহাপরিচালক আবু সাইদ মো. রাশেদুল হক বলেন, বাংলাদেশ মৎস্য উৎপাদনে বিশ্বে ৪র্থ স্থান অধিকার করেছে এবং প্রাকৃতিক উৎস থেকে মাৎস্য আহরণে ৩য় স্থান অধিকার করেছে। ইলিশ মাছ সংরক্ষণে সরকারের কার্যক্রম একটি বিশেষ কার্যক্রম যা প্রশংসিত হয়েছে এবং উৎপাদনও বৃদ্ধি পেয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মৎস্য অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তরিকুল আলম ও শেষে ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন সম্মেলনের আয়োজন কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ড. মৃত্যুঞ্জয় কুন্ডু।
সহযোগী অধ্যাপক ড. এমএম মাহবুব আলম ও সহকারী অধ্যাপক তানই দেব এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন হাফিজ মাওলানা মো. হারুন উর রশিদ ও পবিত্র গীতা পাঠ করেন প্রফেসর ড. জিতেন্দ্র নাথ অধিকারী।
অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে যুক্তরাজ্যের স্টার্লিং বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. ডেভিড সি লিটল বলেন, বাংলাদেশ একটি নদী ভিত্তিক নিচু ভূমির দেশ। এখানে পরিকল্পিত ভাবে মৎস্য আহরণ করলে বাংলাদেশে ‘মৎস্য বিপ্লব’ ঘটবে। ভবিষ্যতে বিশ্বব্যাপী কৃষি গবেষণায় বাংলাদেশ উৎকৃষ্ট গবেষণার স্থান হয়ে উঠছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
জলজ চাষ ও পুষ্টি, জলজ সম্পদ ব্যবস্থাপনা, সমুদ্রবিজ্ঞান ও ব্লু ইকোনোমি, মাছের কৌলিতত্ত্ব, জলজ স্বাস্থ্য, জলবায়ু পরিবর্তন, আর্থসামাজিক প্রেক্ষাপট, মাৎস্যখাত টেকসই করণের কৌশল ও পরিকল্পনা ইত্যাদি বিষয় সম্মেলনের আলোচনায় স্থান পেয়েছে। বাংলাদেশসহ মোট ১৪টি দেশের ২৯ জন বিশেষজ্ঞ ও বিজ্ঞানী সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও সিকৃবির বিভিন্ন অনুষদের ডিন, রেজিস্ট্রার, দপ্তর প্রধানসহ শিক্ষক ও কর্মকর্তাবৃন্দ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন।
২৭ আগস্ট সুনামগঞ্জের মৎস্য ভান্ডার খ্যাত টাঙ্গুয়ার হাওরে মাঠ পর্যায়ের ভ্রমণের মধ্য দিয়ে সম্মেলন শেষ হবে।

 

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • মাধবপুরে ট্রাক ও বাসের সংঘর্ষ নিহত ১, আহত ২
  • বাংলাদেশ শান্তি ও সম্প্রীতির দেশ
  • যুক্তরাজ্যে সন্ত্রাসী হামলায় গুলিবিদ্ধ হয়ে বিশ্বনাথের হিরণ আলী নিহত
  • আদালতে সালাম মেম্বারের স্বীকারোক্তি
  • ঘণ্টা বাজিয়ে ‘গোলাপি টেস্ট’ উদ্বোধন করলেন হাসিনা-মমতা
  • রোহিঙ্গা প্রত্যাবসনে আন্তর্জাতিক চাপ বাড়াবে তুরস্ক
  • বর্তমান সরকার সব ‘খেয়ে ফেলতে’ শুরু করেছে: ফখরুল
  • বাতিল হচ্ছে আসামের বিতর্কিত এনআরসি
  • টাঙ্গুয়ার পর রামসার মর্যাদা পাচ্ছে হাকালুকি হাওর
  • বিএনপির মুখের ওপর নিয়ন্ত্রণ নেই -------কাদের
  • শীত পড়তে শুরু করেছে
  • অপপ্রচারে কান না দিতে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান
  • প্রাথমিকের পরীক্ষায় ‘বহিষ্কার’ কেন অবৈধ নয়: হাই কোর্ট
  • জকিগঞ্জ মুক্ত দিবস পালিত মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি স্তম্ভ স্থাপন করুন
  • শাবি’র হল বন্ধের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
  • এ.এস.আই জাহাঙ্গীরসহ ৪জন ৩ দিনের রিমান্ডে
  • জেলা পুলিশেরজেলা পুলিশের ব্রিফিং
  • তিন বাহিনীর প্রধানের রাষ্ট্রপতির সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ
  • সিলেটে শিথিল পরিবহন ধর্মঘটেজনদুর্ভোগ
  • লুকিয়েও শেষ রক্ষা হলোনা বানরটির
  • Developed by: Sparkle IT