শেষের পাতা থানায় মামলা দায়ের

কোম্পানীগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ

প্রকাশিত হয়েছে: ২৬-০৮-২০১৯ ইং ০৩:০৭:৫৩ | সংবাদটি ২৬৮ বার পঠিত

কোম্পানীগঞ্জ (সিলেট) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা : কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইছাকলস গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষের জের ধরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা-ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় প্রতিপক্ষের হামলায় তিন ব্যক্তি আহত হয়েছেন। আহতদের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান কুটি মিয়ার ছেলে মিজানুর রহমান বাদী হয়ে শনিবার রাতে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা (নং-১৫) করেছেন। মামলায় ৭৩ জনের নামোল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ৪০-৪৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলায় ইছাকলস নিজগাঁও পশ্চিমপাড়ার ওলি মিয়ার পুত্র মইনুল ইসলামকে (৩২) প্রধান আসামী করা হয়েছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার বিকেলে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ইছাসকল নিজগাঁও গ্রামের আব্দুস শহিদের লোকজনের সাথে একই গ্রামের সামছুল ইসলামের লোকজনের মারামারি হয়। ঘটনার পর ইছাকলস ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুটি মিয়া বিষয়টি সালিশ-বিচারে নিষ্পত্তির উদ্যোগ নেন। কিন্তু, উভয়পক্ষ তা না মেনে থানায় পৃথক অভিযোগ দাখিল করেন। এ ঘটনায় চেয়ারম্যানের ভূমিকা নিরপেক্ষ ছিল না বলে অভিযোগ আনে একটি পক্ষ। এ অভিযোগে গত শনিবার সকাল ৮টার দিকে নিজগাঁও গ্রামের মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে শতাধিক ব্যক্তি দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে চেয়ারম্যানের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় চেয়ারম্যানকে বাড়িতে না পেয়ে ব্যাপক ভাংচুর চালায় তারা।
চেয়ারম্যানের সহোদর সুজন মিয়া জানান, চেয়ারম্যান পক্ষপাতিত্ব করেছেন অভিযোগ এনে সন্ত্রাসীরা বাড়ির সামনের ফটকের লাইট, গ্রীল ও দরজা-জানালা ভাংচুর করেছে। ঘটনার সময় চেয়ারম্যান গ্রামের পূর্বপাড়ার ধোপাঘাটে নির্মিতব্য নতুন মসজিদ নির্মাণ কাজ নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন বলে জানান তিনি।
চেয়ারম্যানের ছেলে মিজানুর রহমান জানান, সন্ত্রাসীরা আমার পিতার অবস্থান জানতে পেরে সেদিকে যেতে শুরু করলে সাবেক ইউপি সদস্য সোনা মিয়াসহ গ্রামের মুরুব্বিরা তাদের থামানোর চেষ্টা করেন। এসময় তাদের মারধরের শিকার হয়ে শরিফ উদ্দিন, আলিম হোসেন ও আব্দুছ ছোবহান আহত হন। সন্ত্রাসীরা যাওয়ার সময় বাড়ির সামনে থাকা স্টোন ক্রাশারের ওয়াশিং প্ল্যান্টের একটি জেনারেটর মেশিন পরস্পরের সহায়তায় নিয়ে যায় বলে জানান মিজানুর রহমান।
চেয়ারম্যান কুটি মিয়া জানান, দুইপক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনাটি মামলা-মোকদ্দমায় না নিয়ে বিচার সালিশে নিষ্পত্তি করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু, বিষয়টি উভয় পক্ষ মানেনি। এখানে আমি কারও পক্ষাবলম্বন করিনি। কিন্তু, কিছু লোক না বুঝে আমার বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়েছে। তিনি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।
এ ব্যাপারে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় দায়ের করা মামলার তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • সুনামগঞ্জে মুদি ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন
  • সিসিকের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন লিপন বক্স
  • কমলগঞ্জে দুই সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশু নিহত ঃ আহত-৫
  • সিলেটের সম্ভাবনাময় পর্যটন নিয়ে সরকার আন্তরিক
  • মাধবপুরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন
  • নদী রক্ষায় সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে
  • স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পিযুষের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর
  • টেলিনর হেলথ-এর সব ধরণের সেবা এখন সিলেটবাসীর হাতের নাগালে
  • জামালগঞ্জে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
  • বদলে গেছে ঢাকা দক্ষিণ বাজারের ভাদেশ্বর রোড
  • রোহিঙ্গাদের জন্য আরও ৮ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ড দেবে যুক্তরাজ্য
  • মোহামেডানসহ চার ক্লাবে ক্যাসিনোর সরঞ্জাম
  • ছবি
  • রেলগেইট মারকাজ পয়েন্টে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৯জন আহত
  • জীবনে বহুমাত্রিক বিকাশের জন্য শিক্ষার কোন বিকল্প নেই -সেক্টর কমান্ডার কর্নেল এ এম এম খায়রুল কবীর
  • লিডিং ইউনিভার্সিটিতে আইন বিভাগের সেমিনার অনুষ্ঠিত
  • এনআইডি জালিয়াতি জয়নালের জবানবন্দিতে ‘আরও নাম’
  • ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২০ শতাংশ কমেছে : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
  • দুর্নীতিবাজ কেউ রেহাই পাবে না --------------স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • টিআইবির চিঠিতে বেক্সিমকোর প্রশংসা শুদ্ধাচারের প্রত্যাশা
  • Developed by: Sparkle IT