প্রথম পাতা

‘জিয়া-এরশাদকে রাষ্ট্রপতি উল্লেখ করা আদালতের রায় অনুযায়ী বৈধ নয়’

প্রকাশিত হয়েছে: ০৯-০৯-২০১৯ ইং ০৩:৪১:৪৪ | সংবাদটি ১১১ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক ঃ ব্যক্তি এরশাদকে অমায়িক মনের মানুষ হিসেবে অভিহিত করলেও সেনাপ্রধান হয়ে তার রাষ্ট্রপতি হিসেবে ক্ষমতায় আসার সমালোচনা করেছেন সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেন, সামরিক শাসনের মাধ্যমে জিয়াউর রহমান ও এইচ এম এরশাদের ক্ষমতা দখলকে দেশের উচ্চ আদালত অবৈধ ঘোষণা করেছেন। এই রায়ের পর এ দু’জনকে (জিয়া ও এরশাদ) আর রাষ্ট্রপতি হিসেবে উল্লেখ করা যায় না। তাদের রাষ্ট্রপতি হিসেবে উল্লেখ করা হাইকোর্টের রায় অনুযায়ী বৈধ নয়।
গতকাল রোববার রাতে জাতীয় সংসদ অধিবেশনের প্রথম দিন বিরোধী দলীয় নেতা প্রয়াত এইচ এম এরশাদের মৃত্যুতে আনীত শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন। এসময় তিনি আরও বলেন, জেনারেল এরশাদ সাহেব অমায়িক মানুষ ছিলেন, মানুষের প্রতি তার দরদ ছিল। তিনি এইচ এম এরশাদের আত্মার মাগফিরাতও কামনা করেন।
স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমাদেরও অনেক কিছুই বলার আছে। কারণ আমরাই সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী। তারপরও দেশের স্বার্থে, গণতন্ত্রের স্বার্থে, জনগণের উন্নয়নের স্বার্থে অনেক কিছু হজম করে যাচ্ছি।
আশির দশকের রাজনীতির প্রেক্ষাপট তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৮১ সালের নির্বাচনে বিচারপতি সাত্তারকে রাষ্ট্রপতি পদে প্রার্থী করেছিল বিএনপি। কিন্তু একটি বিদেশি পত্রিকায় দেওয়া সাক্ষাৎকারে এরশাদ ঘোষণা দিয়েছিলেন, বিচারপত্তি সাত্তার তার প্রার্থী। আমরা এর বিরোধিতা করেছিলাম। আমরা বিচারপতি সাত্তার সাহেবকে বলেছিলাম, এভাবে প্রার্থী হওয়া উচিত না। বরং গণতন্ত্রের স্বার্থে সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজন করতে বলেছিলাম। কিন্তু তারা তা করেননি।
জিয়াউর রহমানের মৃত্যুর পর এরশাদই খালেদা জিয়াকে দুইটি বাড়ি ও নগদ ১০ লাখ টাকাসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা দিয়েছিলেন বলে উল্লেখ করেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এ কারণে জিয়া হত্যার ঘটনায় যে মামলা হয়েছিল, সেই মামলা বিএনপি কখনো চালায়নি। বহু বছর পর ১৯৯৪ সালের দিকে এসে জেনারেল এরশাদকে তার স্বামী হত্যার জন্য দায়ী করেছেন খালেদা জিয়া। এর আগে কখনো দায়ী করেননি। এগুলো ক্ষমতা তুলে দেওয়ার অংশ। তবে এর বিরুদ্ধে আমরা প্রতিবাদ করেছি।
সংসদ নেতা বলেন, প্রথমে মার্শাল ল’ জারি করে জেনারেল এরশাদ ক্ষমতা দখল করে। এরপর নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করে ক্ষমতা দখল করে নেন। এর আগে জিয়াউর রহমানও তাই করেছিলেন। কিন্তু আদালত তাদের এই ক্ষমতা দখলকে অবৈধ বলে রায় দিয়েছেন।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • আওয়ামী লীগের সম্মেলনে সভাপতি ছাড়া যে কোন পদে পরিবর্তন : কাদের
  • ডাক্তারদের ঘাড়ে কয়টা মাথা যে বলবেন খালেদা জিয়া খারাপ আছেন: ফখরুল
  • বন্ধু ভারত যেন আতঙ্ক জাগানো কিছু না করে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন মোদি, প্রণব ও সোনিয়া
  • সড়কে নামার অপেক্ষায় ‘নগর এক্সপ্রেস’
  • ধর্মপাশায় ১৪৪ ধারা জারি
  • সকল ক্ষেত্রে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা হবে
  • জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নয়া কমিটির প্রতি ইনাম চৌধুরীর অভিনন্দন
  • বালাগঞ্জ ওসমানীনগর মুক্ত দিবস আজ
  • বিজয়ের মাস
  • ছবি
  • লুৎফুর-নাসির জেলার এবং মাসুক-জাকির মহানগর আ.লীগের নেতৃত্বে
  • খালেদার জামিন শুনানি এজলাস কক্ষে নজিরবিহীন হট্টগোল
  • টেন্ডারবাজ, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের কঠোর বার্তা
  • পররাষ্ট্রমন্ত্রীর অভিনন্দন
  • ‘মুশতাককে গণপিটুনি দিয়ে মঞ্চ থেকে বের করে দেই’
  • সিলেটের বিভিন্ন অঞ্চল মুক্ত দিবস আজ
  • প্রতিবন্ধীদের সম্পর্কে ‘নেতিবাচক মানসিকতা’ পরিহার করুন : প্রধানমন্ত্রী
  • বিজয়ের মাস
  • বিশ্ব ইজতেমার ১ম পর্ব শুরু ১০ জানুয়ারি
  • Developed by: Sparkle IT