শেষের পাতা

জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে ট্রাক আটকে ৭ ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ॥ জনভোগান্তি

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা প্রকাশিত হয়েছে: ১০-০৯-২০১৯ ইং ০৪:১৪:১১ | সংবাদটি ৩৯ বার পঠিত

জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়কে গত চার মাস ধরে গর্তে পড়ে মালবাহী ট্রাক আটকে যান চলাচল বিঘিœত হওয়ার ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত। সর্বশেষ গতকাল সোমবার ভোররাতে দুইটি মালবাহী ট্রাক জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কের জগন্নাথপুর পৌর শহরের হামজা কমিউনিটি সেন্টারের সামনের গর্তে আটকে সাত ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ ছিল। ফলে ওই সড়কে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হয়। তবে, দুপুর দুইটার দিকে দুইটি ট্রাক অপসারণ করা হয়েছে। এর আগের দিন রোববার বিকেলে একই স্থানে আরেকটি ট্রাক আটকে তিন ঘন্টা যান চলাচল বিঘিœত হয়।
স্থানীয়রা জানান, বিভাগীয় শহর সিলেটের সঙ্গে জগন্নাথপুর উপজেলাবাসীর সরাসরি যোগাযোগের একমাত্র সড়ক হচ্ছে জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদপুর সড়ক। এ সড়ক দিয়ে বিভাগীয় শহর সিলেট ও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে আসছেন। দীর্ঘদিন ধরে সড়কে বেহালদশা বিরাজ করায় চরম জনভোগান্তি বেড়েছে। সড়কজুড়ে ভাঙাচোরা, খানাখন্দ ও বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এসব গর্তে বৃষ্টির পানি জমে একাকার হয়ে যায়। গত জুন মাস থেকে চলতি মাস সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় প্রতিদিনই সড়কের গর্তে পড়ে ভারী যানবাহন আটকে পড়ে। কোন কোন দিন ৬ থেকে ৭ ঘন্টা পর্যন্ত যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। সিলেট থকে উপজেলা সদরের জগন্নাথপুর বাজারের উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসা মালবাহী দুইটি ট্রাক সোমবার ভোররাতে ওই সড়কের শহরের হামজা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে গর্তে আটকে পড়ে। ফলে মিনিবাসসহ বড় আকারের যানবাহন চলাচল ৭ থেকে ৮ ঘন্টা বন্ধ হয়ে যায়। দুপুরের দিকে ট্রাক দুইটি অপসারণ করার পর যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক হয়ে উঠে।
এ সড়ক দিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়াতকারী তোফাজ্জল হোসেন বলেন, প্রায় প্রতিদিনই এ সড়ক সৃষ্টি গর্তে মালামাল বোঝাইকৃত ভারী যানবাহন আটকে যায়। দীর্ঘদিন ধসে সড়কটি অভিভাবকহীন পড়ায় জগন্নাথপুরবাসি সীমাহীন ভোগান্তির শিকার হচ্ছে।
জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ-রশিদ-সিলেট সড়কের পরিবহন মালিক সমিতির সভাপতি নিজামুল করিম বলেন, বর্তমানে সড়কে যানবাহন চলাচল অনুপযোগি হয়ে পড়েছে। সড়কে বিরাজমান অসংখ্য গর্তে যানবাহন পড়ে আটকে যায়। নষ্ট হচ্ছে গাড়ীর যন্ত্রাংশ। সংস্কারের জন্য একাধিকবার সংশিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তারপরও কোন কাজ হচ্ছে না। দ্রুত সংস্কারের উদ্যেগ গ্রহণ করা না হলেও আমরা আন্দোলনের কর্মসূচি গ্রহণ করবো।
স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী গোলাম সারোয়ার বলেন, জগন্নাথপুর-বিশ্বনাথ সড়কে সংস্কার কাজের জন্য ২০ কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বর্তমান কাজটি দরপত্রের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • সুনামগঞ্জে মুদি ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন
  • সিসিকের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করলেন লিপন বক্স
  • কমলগঞ্জে দুই সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষে শিশু নিহত ঃ আহত-৫
  • সিলেটের সম্ভাবনাময় পর্যটন নিয়ে সরকার আন্তরিক
  • মাধবপুরে ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন
  • নদী রক্ষায় সবাইকে আরও সচেতন হতে হবে
  • স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পিযুষের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর
  • টেলিনর হেলথ-এর সব ধরণের সেবা এখন সিলেটবাসীর হাতের নাগালে
  • জামালগঞ্জে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু
  • বদলে গেছে ঢাকা দক্ষিণ বাজারের ভাদেশ্বর রোড
  • রোহিঙ্গাদের জন্য আরও ৮ কোটি ৭০ লাখ পাউন্ড দেবে যুক্তরাজ্য
  • মোহামেডানসহ চার ক্লাবে ক্যাসিনোর সরঞ্জাম
  • ছবি
  • রেলগেইট মারকাজ পয়েন্টে সিএনজি অটোরিক্সা শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষে ৯জন আহত
  • জীবনে বহুমাত্রিক বিকাশের জন্য শিক্ষার কোন বিকল্প নেই -সেক্টর কমান্ডার কর্নেল এ এম এম খায়রুল কবীর
  • লিডিং ইউনিভার্সিটিতে আইন বিভাগের সেমিনার অনুষ্ঠিত
  • এনআইডি জালিয়াতি জয়নালের জবানবন্দিতে ‘আরও নাম’
  • ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ২০ শতাংশ কমেছে : স্বাস্থ্য অধিদপ্তর
  • দুর্নীতিবাজ কেউ রেহাই পাবে না --------------স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • টিআইবির চিঠিতে বেক্সিমকোর প্রশংসা শুদ্ধাচারের প্রত্যাশা
  • Developed by: Sparkle IT