প্রথম পাতা ৭ই মার্চের সবচেয়ে বড় ম্যুরাল হলো জৈন্তাপুরে

সিলেট বিভাগে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের ম্যুরাল নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে

আহমাদ সেলিম প্রকাশিত হয়েছে: ১৫-০৯-২০১৯ ইং ০২:৪২:৪৪ | সংবাদটি ২১০ বার পঠিত

সিলেট বিভাগে সরকারিভাবে ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ ও ৭ই মার্চের ভাষণের উপর ম্যূরাল নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে সিলেট জেলার কয়েকটি উপজেলায় নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের বিকাশ এবং নতুন প্রজন্মের কাছে মহান মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস তুলে ধরা সম্ভব হবে বলে মনে করছেন প্রশাসনসহ মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ। ২০১৪ সাল থেকে শুরু করে ২০১৮ সাল পর্যন্ত সিলেট সদরসহ জৈন্তাপুর উপজেলা, বিয়ানীবাজার উপজেলায় ১৪টি ম্যূরাল নির্মাণ করা হয়েছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে নিজ নিজ উপজেলা পরিষদ। একইভাবে কাজটি নিয়ে আশাবাদী ম্যূরাল নির্মাণ প্রতিষ্ঠান সমাজসেবা অধিদপ্তর পরিচালিত সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুল। কাজের লভ্যাংশের একটি অংশ অটিস্টিক শিশুদের কল্যাণে ব্যয় করা হবে বলেও তারা জানিয়েছেন।
উপজেলা পর্যায়ে ২০১৮ সাল থেকে ম্যূরাল নির্মাণ কাজ শুরু হয়। ইতিমধ্যে বিয়ানীবাজার এবং জৈন্তাপুর উপজেলায় নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। বর্তমানে উচ্চতার দিক দিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সবচেয়ে বড় ম্যূরাল তৈরী হয়েছে সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার উপজেলা কমপ্লেক্স প্রাঙ্গণে। সিরামিক টাইলস দিয়ে নির্মিত সেই ম্যূরালের নাম দেয়া হয়েছে ‘অমিয় ভাষণ স্বাধীনতা’। ১৪ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ২০ ফুট প্রস্থের এই ম্যূরালের কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের মার্চ মাসে। কাজ শুরুর আড়াই থেকে তিন মাসের মধ্যে পুরো কাজ সম্পন্ন হয়। বর্তমান প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ ২০১৮ সালের ৩১ মে আনুষ্ঠানিকভাবে ম্যূরালটির উদ্বোধন করেন।
‘জৈন্তাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মৌরিন করিম জানান, ম্যূরালটি নির্মিত হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণের উপর। এটি সিলেট বিভাগের মধ্যে সবচেয়ে বড় ম্যূরাল। নির্মাণের পর থেকে ইতিবাচক সাড়া পাচ্ছি আমরা। প্রতিদিন পর্যটকসহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা ম্যূরালটি দেখতে আসছে।’ পরে একই বছরের ডিসেম্বর মাসে শুরু হয় বিয়ানীবাজার উপজেলা কমপ্লেক্সের সামনে ম্যূরালের নির্মাণ কাজ। সেখানে ভাষা আন্দোলন, মহান মুক্তিযোদ্ধা ও বিজয়োল্লাস এর উপর ম্যূরাল নির্মাণ করা হয়। ম্যূরালের নাম দেয়া হয়েছে ‘ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ’। পৃথক ৮টি ম্যূরাল মিলিয়ে ৮০ ফুট দৈর্ঘ্য এবং ৫ ফুট প্রস্থের এই ম্যূরালও নির্মাণ করা হয় সিরামিক টাইলস দিয়ে। চলতি বছরের আগস্ট মাসে ম্যূরালের কাজ শেষ হয়। তবে সেটি উদ্বোধন হয়নি এখনো। আগামী মাসে উদ্বোধনের কথা রয়েছে। ম্যূরালটি প্রসঙ্গে বিয়ানীবাজার উপজেলা নির্বাহী অফিসার কাজী আরিফ রহমান জানান, ‘নতুন প্রজন্মের কাছে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জাগ্রত করতে এই প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। ম্যূরালটি দেখে শিক্ষার্থীদের জানার আগ্রহ তৈরী করছে।’
‘জৈন্তাপুর এবং বিয়ানীবাজার শেষে বর্তমানে কাজ চলছে বালাগঞ্জ এবং গোয়াইন উপজেলায়। চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে উপজেলা দু’টিতে ম্যূরাল নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন, নির্মাণ প্রতিষ্ঠান সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক শিল্পী ইসমাইল গণি হিমন। তিনি জানান, দুই উপজেলার কাজ চলছে। শেষ হলে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হবে। এই দুই উপজেলার ম্যূরালেও একইভাবে থাকবে মহান মুক্তিযুদ্ধ এবং ভাষা আন্দোলন। এভাবে পর্যায়ক্রমে গোটা সিলেট বিভাগের প্রতিটি জেলা সদরের উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে ম্যূরাল নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাণ শিল্পীরা। প্রতিটি কাজই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকীর আগেই সম্পন্ন করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। ম্যূরাল ছাড়াও সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের পক্ষ থেকে মুক্তিযুদ্ধের উপর দেয়াল চিত্র করা হয়েছে আরো অন্তত: দুই শতাধিক। শিল্পী ইসমাইল গণি হিমন বলেন, ম্যূরাল তৈরীর সূচনা হয় ২০১৪ সালে। সে বছর রিকাবীবাজারে ডা. চঞ্চল রোড থেকে পুলিশ লাইন পর্যন্ত ১২২টি দেয়ালচিত্র আঁকা হয়। সেই দেয়াল চিত্রের মধ্যে ছিলো ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধসহ মুক্তিযুদ্ধ সম্পর্কিত নানা বিষয়। সেখানে গুরুত্ব দেয়া হয় মুক্তিযুদ্ধের সময় অবদান রাখা বিদেশী বন্ধুদের। সেই ১২২টি দেয়াল চিত্র পরবর্তীতে ম্যূরাল করার সিন্ধান্ত হয়। বর্তমানে পুলিশ লাইনের ১২টি দেয়ালচিত্র ম্যূরাল করা হয়েছে। বাকিগুলো ম্যূরাল করার প্রক্রিয়া চলছে। একই বছর সিলেট মহিলা কলেজের দেয়ালে মুক্তিযুদ্ধের উপর ২২টি দেয়ালচিত্র করা হয়। যদিও পরবর্তীতে সড়ক বর্ধিতকরণ কাজের জন্য সেই দেয়াল ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে। তারপর ২০১৫ সালে বাগবাড়ি শিশু পরিবারের সেইফ হোমে ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের উপর ৮টি দেয়ালচিত্র করা হয়। এর আগে ২০১৪ সালে এই আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের উদ্যোগে সিলেট প্রেসক্লাবের সীমানা প্রাচীরের অভ্যন্তরে করা হয় মুক্তিযুদ্ধের উপর দেয়ালচিত্র। কথা হয় বিয়ানীবাজার উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মো. আব্দুল কাদির’র সাথে। তিনি বলেন, এটি সরকারের একটি মহৎ কাজ। নতুন প্রজন্ম উপকৃত হচ্ছে। একটি দেশের সঠিক ইতিহাস জানতে পারছে তারা।
সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের প্রধান শিক্ষক ইসমাইল গণি হিমন বলেছেন, শহর থেকে প্রতিটি গ্রামে, প্রত্যন্ত জনপদের মানুষ যাতে মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানতে পারে সেই চিন্তা থেকে এই পরিকল্পনা গ্রহণ। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা কোন উপজেলায় কোন আকারে এবং কোন বিষয়ের উপর ম্যূরাল হবে তার একটি পরিকল্পনা তৈরী করি। পরিকল্পনা তৈরী করে প্রস্তাবটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবহিত করি। তারপর সরকারিভাবে সেই কাজ শুরু হয়। প্রতিটি ম্যূরাল নির্মাণে ইসমাইল গণি হিমন ছাড়াও আরো সাতজন শিল্পী কাজ করেন। তারা হলেন, আলী দেলোয়ার, কাজী জাহিদুল ইসলাম সাদি, ইশিতা রায়, মিতালী দেব, অপু কান্ত, খালেদ আহমদ, আবু হোসেন ও রুমা বেগম।
এ প্রসঙ্গে সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি ইতিহাসের নাম। একটি জাতির গৌরবের নাম। ম্যূরালের মাধ্যমে একটি জাতির গৌরব আর অহংকারের চিত্র নতুন করে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরার প্রয়াস থেকে এই উদ্যোগ। এটি গোটা সিলেটে বাস্তবায়ন হলে প্রজন্মরা উপকৃত হবে।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • পৌরসভায় উন্নীত বিশ্বনাথ
  • ‘রবীন্দ্র শতবর্ষ স্মরণোৎসব’ উদযাপন কমিটি পুনর্গঠন
  • রক্তদান একটি মানবিক কাজ --------দানবীর ড. রাগীব আলী
  • বিভাগীয় শহর হলেই ফরিদপুর সিটি কর্পোরেশন
  • বিএনপির এমপি হারুনকে ৫ বছরের কারাদন্ড
  • আত্মরক্ষার্থে ভোলায় গুলি চালিয়েছে পুলিশ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • সরকারি চাকুরেদের গ্রেফতারের অনুমতির বিধান নিয়ে হাই কোর্টের রুল
  • ওমর ফারুক ও তার পরিবারের ব্যাংক লেনদেন স্থগিত
  • বোরহানউদ্দিনের সেই শুভসহ তিনজন কারাগারে
  • ভোলায় ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম ‘সর্বদলীয় মুসলিম ঐক্য পরিষদের’
  • বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাতে শ্রমিকের নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করছে যুক্তরাষ্ট্র --------------মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল মিলার
  • সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশের অনুমতি পায়নি ঐক্যফ্রন্ট
  • আসামের গুয়াহাটিতে বাংলাদেশ ভারত স্টেক হোল্ডার বৈঠক আজ
  • বাবা ও দুই চাচা ফের রিমান্ডে
  • শাবি’র তৃতীয় সমাবর্তন ৮ জানুয়ারি
  • ওয়ার্ড-ইউনিয়নের সম্মেলন না করেই উপজেলা সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা
  • প্রধানমন্ত্রী ভোলার ঘটনায় ধৈর্য্যরে আহ্বান জানিয়েছেন দেশবাসীর প্রতি
  • ওয়ান স্টপ সার্ভিস একপে, একসেবা ও একশপ উদ্বোধন করেন সজিব ওয়াজেদ জয়
  • ওমর ফারুককে যুবলীগ চেয়ারম্যান থেকে অব্যাহতি
  • ‘জনগণ ভোট দিতে পারেনি’ বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিলেন মেনন
  • Developed by: Sparkle IT