শেষের পাতা

সুনামগঞ্জে মুদি ব্যবসায়ী হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত হয়েছে: ২৩-০৯-২০১৯ ইং ০৪:০৪:২৭ | সংবাদটি ২৪৪ বার পঠিত
Image

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জে মুদি ব্যবসায়ী ফেরদৌস মিয়া হত্যা মামলায় সানি মিয়া(৩১) নামের এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদ- অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদ- দিয়েছেন আদালত। গতকাল রোববার দুপুর পৌণে ১২ টায় এ রায় ঘোষণা করেন সুনামগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন।
যাবজ্জীবন কারাদ- প্রাপ্ত সানি মিয়া জগন্নাথপুর উপজেলার ঘোষগাঁও এর মৃত আব্দাল মিয়ার ছেলে।
আদালত সূত্র জানায়, জগন্নাথপুর শিবগঞ্জ রোডে রাস্তার পূর্ব পাশে শাহরিন ভেরাইটিজ স্টোর নামক মুদি দোকান ছিল ফেরদৌস মিয়ার। ২০০৮ সালের ১৪ জুন দিনগত রাত অনুমান সোয়া ৮ টার দিকে ফেরদৌসের বড় ভাই রাজন মিয়া দোকান থেকে চাচাতো ভাই নাজমুল ও প্রতিবেশী জাহের মিয়াসহ বাড়ি ফিরছিলেন। এই পথের কোনাপাড়া জালাল উদ্দিন রোড নামক কাচা রাস্তার মধ্যবর্তী স্থানে পৌছলে জ্যোৎ¯œার আলোতে রাস্তায় দেখতে পান তার ছোট ভাই ফেরদৌসের দোকানের চাবি পড়ে আছে। দেখে সঙ্গে থাকা নাজমুল ও জাহেরকে ছোটতে ভাইয়ের দোকানের চাবির ঝুমটা দেখান। সঙ্গে সঙ্গে পাশের ঝোপে গিয়ে দেখেন ফেরদৌস রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে ও তার শরীরে ধারালো অস্ত্রের অসংখ্য আঘাত এবং পাশেই ধারালো অস্ত্র হাতে ঘোষগাঁও গ্রামের মৃত আবদাল মিয়ার ছেলে সানি মিয়া দাড়িয়ে আছে। সঙ্গে সঙ্গে ফেরদৌসের বড় ভাই রাজন মিয়া ঘাতক সানি মিয়াকে ধরতে গেলে হাতে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে রাজনকেও আঘাত করলে রাজন চিৎকার দিয়ে মাটি পড়ে যান। এসময় সঙ্গে থাকা নাজমুল ও জাহের এবং আশে পাশের লোকজন এগিয়ে এলে ঘাতক সানি পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেরদৌস ও রাজনকে তাদের বাড়িতে নিয়ে এলে ফেরদৌস মারা যায় এবং রাজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়। এ ঘটনায় নিহত ফেরদৌস ও আহত রাজনের বড় ভাই শাহীন মিয়া বাদি হয়ে ১৫ জুন জগন্নাথপুর থানায় সানি মিয়া, সাজ্জাদ মিয়া, আনোয়ার মিয়া, মো.নূর আলম, আজম মিয়া ও রবির বিরুদ্ধো হত্যা মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ সানি মিয়ার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে।
দীর্ঘ শুনানী শেষে আদালত সানি মিয়াকে যাবজ্জীবন কারাদ- ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৩ মাসের কারাদ- প্রদান করেন এবং সাজ্জাদ মিয়া, আনোয়ার মিয়া, মো.নূর আলম, আজম মিয়া ও রবিকে বেখসুর খালাস প্রদান করেন।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, এডভোকেট সৈয়দ জিয়াউল ইসলাম ও আসমি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন, এডভোকেট মো. আজাদুল ইসলাম ও এডভোকেট আজমল হোসেন।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • " দ্য সাইকোলজি অব ল্যাংগুয়েজ লার্নিং " বিষয়ে শিক্ষক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন"
  • বন বিভাগের বাধায় বিদ্যুৎহীন কমলগঞ্জের দুই গ্রাম
  • বৃহত্তর জৈন্তায় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার দাবিতে সিলেটে মানববন্ধন
  • চৌহাট্টা-কোর্ট পয়েন্ট রাস্তায় দৃষ্টিনন্দন রোড ডিভাইডার হবে
  • রাতের আঁধারে মধ্যবিত্তদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দিচ্ছেন মৌ’বাজারে পুলিশ সুপার
  • সরকারি সহযোগিতা থেকে কেউ বঞ্চিত হবে না : ডিসি, সুনামগঞ্জ
  • তিনি ছিলেন বিনয়ী-সজ্জন রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক
  • রাষ্ট্রীয় পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত বাতিল করুন
  • প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের ঋণ প্রাপ্তি সহায়তায় সিলেট চেম্বারে হেল্প ডেস্ক চালু
  • করোনায় মৃত্যু ও আক্রান্তদের জন্য সিলেট চেম্বারের শোক প্রস্তাব ও দোয়া
  • শায়েস্তাগঞ্জে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক খানাখন্দে ভরপুর!
  • কানাইঘাটে শিশু পাশবিক নির্যাতন মামলার আসামী গ্রেফতার
  • স্বাস্থ্যখাতে অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতি বন্ধের দাবি
  • এমএ হকের মাগফেরাত কামনায় মহানগর বিএনপির মিলাদ ও দোয়া
  • চুনারুঘাট উপজেলা মডেল উপজেলায় রূপান্তরিত হবে
  • কানাইঘাটের মাওলানা ওয়ালিউল্লাহর দাফন সম্পন্ন
  • ধর্মপাশায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ব্যবসায়ীর মৃত্যু
  • জগন্নাথপুরে হাওর থেকে নিখোঁজ ব্যক্তির লাশ উদ্ধার
  • অন্ধকারে আলো দেবে নাইট ভিশন গগল্স
  • শ্রীমঙ্গলে জ্বর-শ্বাসকষ্ট নিয়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
  • Image

    Developed by:Sparkle IT