প্রথম পাতা মেয়ে শিশুটি এখনো সেইফ হোমে

শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনকারী ডাক্তার দম্পতির বিরুদ্ধে মামলা

প্রকাশিত হয়েছে: ১০-১০-২০১৯ ইং ০২:৩৬:৫৪ | সংবাদটি ১০৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ নগরীর সুবিদবাজারে হোমিও ডাক্তার দম্পতির বাসায় চুরির অপবাদ দিয়ে শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতন এর ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করেছেন নির্যাতিত শিশুর মা আমিনা বেগম। গতকাল বুধবার ডাক্তার দম্পতি সাবিহা সুলতানা ও মুসলিম আলীর বিরুদ্ধে সিলেটের অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। অন্যদিকে নির্যাতিত শিশুটি এখনো সেইফ হোমে রয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার নারী ও শিশু আদালতে তার জামিনের শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে। এঘটনায় অভিযুক্ত কতোয়ালী থানার এসআই জুবায়েদ খানকে ক্লোজড করে পুলিশ লাইনে যুক্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে।
রোববার দুপুরে নগরীর সুবিদবাজার এক্সেল টাওয়ারের ৯ম তলায় (ফ্ল্যাট নম্বর-এ) পুলিশ কর্তৃক শিশু ও মা নির্যাতনের ঘটনা ঘটে হোমিও চিকিৎসক ডা: সাবিহা সুলতানা ও ডাঃ মুসলিম আলীর নামের দম্পতির ফ্ল্যাটে। নির্যাতিত মেয়ে ও মায়ের পরিবারের এই অভিযোগ সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের (এসএমপি) কতোয়ালী থানার এস আই জুবায়েদ খানের বিরুদ্ধে। এরপর নির্যাতিত পরিবারের সদস্যদের নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে সোমবার দৈনিক সিলেটের ডাক-এ একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। বিষয়টি পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে এলে তাৎক্ষণিকভাবে তদন্ত কমিটি গঠন করে অভিযুক্ত পুলিশের এসআই জুবায়েদ খানকে ক্লোজড করে তাকে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।
অন্যদিকে, শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, রোববার বেলা ১১টা থেকে শিশু গৃহকর্মী ও তার দুই ভাইকে ডাক্তার দম্পতির বাসায় প্রথম দফা ও পরে থানায় নিয়ে অমানবিক নির্যাতন করেন এসআই জুবায়েদ। সোমবার দুপুরে আগের দিন বিকেলে ৯৯৯ এর ফোনের সূত্র ধরে ভিকটিম ও তাদের দুই ভাইকে ধরে নিয়ে আসার তথ্য দিয়ে আদালতে চালান দেয় পুলিশ। এছাড়া ডাঃ সাবিহা সুলতানা বাদী হয়ে স্বর্ণের চেইন চুরির অপরাধে শিশু মেয়েটি ও তার দুই ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
কতোয়ালী থানার এসআই শাহনাজ আক্তার অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট মো: হাফিজুর রহমান ভুইয়ার আদালতে তিন ভাই বোনকে চুরির মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে হাজির করেন। এতে গৃহকর্মী মেয়েটির বয়স দেখানো হয় ১৫ বছর। মামলার বাদী করা হয় ডাঃ সাবিহা সুলতানাকে। মামলা নং-১০ (০৬/১০/১৯)। ঐদিনই দুই ভাই আদালত থেকে জামিন পেলেও এখনো মেয়েটি সেইফ হোমে রয়েছে। গতকাল বুধবার নির্যাতিত মেয়েটির মা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।
আসামী পক্ষের আইনজীবী এডভোকেট কামাল হোসেন জানান, নির্যাতিত মহিলার মা বাদী হয়ে আদালতে একটি এজাহার দিয়েছেন।
পুলিশী নির্যাতনের শিকার ভিকটিমের মা আমিনা বেগম জানান, ডাক্তার দম্পতির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন। এবার তিনি পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবেন বলে জানান। আমিনার অভিযোগ, মেয়ের সাথে তার দুই ছেলেকেও ‘চোর’ বানানো হয়েছে। ‘আমি আদালতের কাছে আমাকে ও আমার সন্তানদের নির্যাতনের বিচার প্রার্থনা করছি’।

 

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • বিএনপির গণজোয়ার ‘দিবাস্বপ্ন’ : কাদের
  • ক্ষণ গণনার শুভযাত্রায় মহাকালের ‘শ্রাবণ ট্র্যাজেডি’ নাটকের বিশেষ প্রদর্শনী আজ
  • নিজ হাতে পিঠা তৈরি করে জাতীয় পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • বিচার বহির্ভূত হত্যাকান্ড নিয়ে ঢালাও অভিযোগ করা হয় -----পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • সবাইকে সঞ্চয়ের মানসিকতা গড়ে তোলার আহ্বান
  • সরকার দেশের শিক্ষাব্যবস্থার উন্নয়নে নানা প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে -------প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমদ এমপি
  • বগুড়ার এমপি আব্দুল মান্নান আর নেই
  • নেতৃত্বের প্রতি অনুগত থাকুন, সশস্ত্র বাহিনীর প্রতি রাষ্ট্রপতি
  • বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে মুসল্লির ঢল
  • ঢাকার দুই সিটির ভোটগ্রহণ ১ ফেব্রুয়ারি
  • সড়ক দুর্ঘটনায় আহত প্রখ্যাত অভিনেত্রী শাবানা আজমি
  • পেছালো এসএসসি পরীক্ষা শুরু ৩ ফেব্রুয়ারি
  • মৌলভীবাজারে প্রাইভেটকারের ধাক্কায় মা নিহত
  • সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে জেলা বিএনপির সভা আজ
  • টিলাগড়ে প্রাইভেট কার দুর্ঘটনা এপর্যন্ত দুই ছাত্রের মৃত্যু
  • সরকার স্বাস্থ্যসেবার মান আধুনিক ও সমৃদ্ধ করতে চায় ................... পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান
  • ‘আলোকিত উন্নত সিলেট’ গড়তে চাই
  • ‘চীন সর্বোচ্চ সম্মানের সাথে মুজিববর্ষ উদযাপন করবে’
  • সিটি নির্বাচনে তারিখ নিয়ে কমিশন গ্রহণযোগ্য সমাধানে পৌঁছাবে : কাদের
  • হঠকারী সিদ্ধান্ত নিয়ে নিশ্চিহ্ন হতে চাই না: ফখরুল
  • Developed by: Sparkle IT