প্রথম পাতা

বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের নতুন গতির সঞ্চার হয়েছে : প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত হয়েছে: ১০-১০-২০১৯ ইং ০২:৪৫:১৫ | সংবাদটি ৪০ বার পঠিত

 

ডাক ডেস্ক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এক সাংবাদিক সম্মেলন বলেছেন, তাঁর ভারত সফরের মাধ্যমে সামগ্রিকভাবে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নতুন গতির সঞ্চার এবং ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এক বিশেষ উচ্চতায় উন্নীত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সম্প্রতি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগদান এবং ভারত সফর শেষে দু’টি সফরের কার্যক্রম এবং ফলাফল নিয়ে গতকাল বুধবার গণভবনে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
জাতিসংঘের ৭৪তম সাধারণ অধিবেশনে অংশ নিতে গত ২২-এ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্ক যান। নিউইয়র্ক থেকে ফেরার একদিন পরই তিনি সরকারি সফরে ভারত গিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘে এবারের অধিবেশনে জলবায়ু পরিবর্তন, দারিদ্র্য দূরীকরণ, মানসম্মত শিক্ষা ও অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন সংক্রান্ত বিষয়গুলো প্রাধান্য পেয়েছে। এ ছাড়া, টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট তথা এসডিজি ও সর্বজনীন স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অন্যান্যবারের মত এবারও তিনি বাংলায় ভাষণ দেন। তাঁর ভাষণে বিগত ১০ বছরে বাংলাদেশের অভাবনীয় আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি দারিদ্র্য দূরীকরণ, সামাজিক সুরক্ষা, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসেবাসহ বিভিন্ন খাতে সরকারের গৃহীত উদ্যোগ ও অর্জিত সাফল্যের বিষয়গুলো তুলে ধরেন। এ ছাড়া, পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহার, জলবায়ু পরিবর্তন এবং শান্তির সংস্কৃতি প্রতিষ্ঠায় বাংলাদেশের অগ্রণী ভূমিকা ইত্যাদি বিষয় বক্তব্যে স্থান পায়।
এই অধিবেশন চলাকালে বাংলাদেশ পরমাণু অস্ত্র সম্পূর্ণ নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক চুক্তি অনুস্বাক্ষর এবং মানব পাচার সংক্রান্ত পালেরমো প্রোটোকল অনুসমর্থন করেছে। শেখ হাসিনা বলেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে আমি নতুন করে ৪ দফা প্রস্তাব পেশ করেছি। প্রস্তাবগুলো হচ্ছে:
১। রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসন এবং মিয়ানমারে তাদের আত্মীকরণে মিয়ানমারকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে রাজনৈতিক সদিচ্ছার পূর্ণ প্রতিফলন দেখাতে হবে।
২। বৈষম্যমূলক আইন ও রীতিসমূহ বিলোপ করে মিয়ানমারের প্রতি রোহিঙ্গাদের আস্থা তৈরি করতে হবে এবং রোহিঙ্গা প্রতিনিধিদের উত্তর রাখাইন সফরের আয়োজন করতে হবে।
৩। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে উত্তর রাখাইন রাজ্যে বেসামরিক পর্যবেক্ষক মোতায়েনের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তা ও সুরক্ষার নিশ্চয়তা প্রদান করতে হবে।
৪। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অবশ্যই রোহিঙ্গা সমস্যার মূল কারণসমূহ বিবেচনায় আনতে হবে এবং মানবাধিকার লঙ্ঘন ও অন্যান্য নৃশংসতার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের দায়বদ্ধতা নিশ্চিত করতে হবে।
ভাষণে প্রধানমন্ত্রী একটি শান্তিপূর্ণ ও বাসযোগ্য পৃথিবী নিশ্চিত করতে অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে সকল রাষ্ট্রকে একযোগে কাজ করার জন্য আহ্বান জানান।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, গত ২৩-এ সেপ্টেম্বর আমি স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ‘হাই লেভেল পে¬নারি অন ইউনিভারসেল হেলথ কভারেজ’ সভার একটি প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ করি। স্বাস্থ্য খাতে আমাদের অসামান্য সাফল্য বিশেষ করে কমিউনিটি ক্লিনিক ব্যবস্থার মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়ার বিষয়টি উলে¬খ করি। এই প্যানেল আলোচনায় অংশগ্রহণ ছাড়াও ইউনিভারসেল হেলথ কভারেজ বিষয়ক এই সভার মূল পে¬নারিতে আমি বক্তব্য দিই।
একই দিন আমি ক্লাইমেট এ্যাকশন সামিট শীর্ষক একটি সভায় অংশগ্রহণ করি। এতে আমি জলবায়ু পরিবর্তনে বিশ্বব্যাপী সাম্প্রতিককালে সৃষ্ট সমস্যাগুলোর কথা উলে¬খ করেছি। পাশাপাশি ডেল্টাপ¬্যান-২১০০-সহ জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবিলায় বাংলাদেশের সার্বিক কার্যক্রম ও পরিকল্পনা তুলে ধরি।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ২৪-এ সেপ্টেম্বর আমি গে¬াবাল কমিশন অন এডাপটেশনের আয়োজনে একটি উচ্চ পর্যায়ের সাইড ইভেন্টে অংশগ্রহণ করি। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে সৃষ্ট নানা সমস্যা এবং করণীয় নিয়ে এই সভায় আলোচনা হয়। ঢাকায় গ্লোবাল কমিশন অন এডাপটেশনের একটি আঞ্চলিক কেন্দ্র উদ্বোধনের ঘোষণা দিয়েছি।
তিনি আরো বলেন, এদিন বাংলাদেশ এবং ওআইসি-এর যৌথ আয়োজনে অনুষ্ঠিত ‘রোহিঙ্গা ক্রাইসিস : এ ওয়ে ফরোয়ার্ড’ শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ের একটি সাইড ইভেন্টেও আমি অংশগ্রহণ করি। এতে ওআইসি-এর সদস্য রাষ্ট্রসমূহ ছাড়াও অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডাসহ বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন। এ সভায় মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ এবং ওআইসি’র মহাসচিব বক্তৃতা করেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওইদিন সন্ধ্যায় আমি মহাত্মা গান্ধীর ১৫০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের অংশ হিসেবে আয়োজিত ‘লিডারশিপ মেটার্স- রিলিভেন্স অফ মহাত্মা গান্ধী ইন দ্য কনটেম্পরারি ওয়ার্ল্ড’ শীর্ষক উচ্চ পর্যায়ের সাইড ইভেন্টে মূল আলোচক হিসেবে অংশগ্রহণ করি। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীসহ বেশ কয়েকজন রাষ্ট্র ও সরকার প্রধান এতে অংশগ্রহণ করেন।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ২৫ সেপ্টেম্বর আমি ‘লিডারস্ ডায়লগ ফোর অন লোকালাইজিং দ্যা এসডিজি’স’ শীর্ষক সভায় অংশগ্রহণ করি। আমি আর ক্রোয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী যৌথভাবে এই সভা পরিচালনা করি। এই সভায় আমি এসডিজি বাস্তবায়নে আমাদের অঙ্গীকার, চলমান কার্যক্রম এবং ভবিষ্যৎ পরিকল্পনাসমূহ তুলে ধরি।
একই দিনে আমি কাউন্সিল অন ফরেন রিলিশন্স-সিএফআর-এর সদস্যগণের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় অংশগ্রহণ করি।
তিনি বলেন, আমার বক্তব্যে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক খাতে অভাবনীয় উন্নয়নের বর্ণনা প্রদানের পাশাপাশি, শান্তিরক্ষায় বাংলাদেশের অবদান, ডিজিটাল বাংলাদেশ, জলবায়ু পরিবর্তন, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমন এবং রোহিঙ্গা সমস্যাসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোকপাত করি। এছাড়া, গত ২৫ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশের স্থায়ী মিশনে রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়ে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী জানান, গত ২৬ সেপ্টেম্বর আমি ইউএস চেম্বার অফ কমার্স আয়োজিত একটি গোলটেবিল বৈঠকে তিনি অংশগ্রহণ করেন। বৈঠকে বাংলাদেশ হতে আগত ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ ব্যবসায়ীগণ উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে তিনি বাংলাদেশের বিদ্যমান ব্যবসা-বান্ধব পরিবেশ তুলে ধরে যুক্তরাষ্ট্রের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ২৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ সূচনা ফাউন্ডেশন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং ইউনিসেফ-এর সহযোগিতায় ‘মেন্টাল হেলথ এন্ড ডিজিবিলিটিজ’ বিষয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের সাইড ইভেন্ট আয়োজন করে। এই অধিবেশনে তাঁর সঙ্গে ভূটানের প্রধানমন্ত্রী ও নেপালের উপ-প্রধানমন্ত্রী অংশগ্রহণ করেন। এই সভায় সকলের জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বিশেষ করে মানসিক স্বাস্থ্য ও প্রতিবন্ধীদের স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সরকারের বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরি।
ইভেন্টের দ্বিতীয় পর্বে সূচনা ফাউন্ডেশনের সভাপতি এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানসিক স্বাস্থ্য ও অটিজম বিষয়ক উপদেষ্টা সায়মা ওয়াজেদ হোসেইনের সঞ্চালনায় বিশেষজ্ঞ পর্যায়ের একটি প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ৩ অক্টোবর ওয়ার্ল্ড ইকোমোমিক ফোরাম (্ডবি¬উইএফ)-এর আয়োজনে ইন্ডিয়া ইকোমোমিক সামিট-এর ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস কাউন্সিল-এর নির্বাচিত প্রতিনিধিদের সঙ্গে কান্ট্রি স্ট্রাটেজি ডায়লগে আমি অংশগ্রহণ করি।
তিনি বলেন, ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস কাউন্সিল বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ১০০টি বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ফোরাম। এ সময় আমি বাংলাদেশের সমসাময়িক আর্থ-সামাজিক সাফল্যের বিভিন্ন দিক তুলে ধরি এবং বাংলাদেশের বিদ্যমান বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশের কথা উলে¬খ করে এখানে বিনিয়োগের আহ্বান জানাই।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ৪ অক্টোবর আমি বাংলাদেশ-ভারত বিজনেস ফোরামের উদ্বোধন করি। এ সময়ে ভারতের বাণিজ্য ও রেলমন্ত্রী পিযুশ গয়ালসহ ভারতের শীর্ষস্থানীয় ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এখানেও আমি ভারতের বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বেশি করে বিনিয়োগের আহ্বান জানাই।
তিনি বলেন, ওইদিন বিকেলে আমি ইন্ডিয়া ইকোমোমিক সামিট-এর সমাপনী অধিবেশনে অংশগ্রহণ করি। এ অধিবেশনে আমি দক্ষিণ এশিয়ার দেশসমূহের মধ্যে সম্পর্ক সুসংহত করতে আঞ্চলিক, উপ-আঞ্চলিক ও দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের ক্ষেত্রে যৌথ প্রচেষ্টা আরও জোরদার করার প্রয়োজনীয়তার উপর আলোকপাত করেছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ওইদিন সন্ধ্যায় সিঙ্গাপুরের উপ-প্রধানমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী হ্যাঙ সুয়ি কিয়েত আমার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। দ্বিপাক্ষিক বিষয় ছাড়াও রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয় আমাদের আলোচনায় স্থান পায়। তিনি রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।
শেখ হাসিনা বলেন, গত ৬ অক্টোবর ভারতীয় কংগ্রেসের সভাপতি সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে আমার আলোচনা হয়। ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং, ভারতীয় কংগ্রেসের উত্তর প্রদেশের পূর্বাঞ্চলের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী এবং বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা আনন্দ শর্মা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
তিনি বলেন, এর আগে গত ৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় নয়াদিল¬ীস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন আয়োজিত এক সংবর্ধনা সভায় আমি যোগদান করি। এ সংবর্ধনা সভায় বাংলাদেশে সমবর্তী দায়িত্বপ্রাপ্ত নয়াদিলি¬তে অবস্থিত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • কোম্পানীগঞ্জে পাগলা মহিষের গুঁতোয় ৩০ জন আহত
  • গ্রাম্য ‘কোন্দল’র শেষ বলি তুহিন
  • ছদ্মবেশে মৌলভীবাজার জেলা কারাগারে দুদকের অভিযান
  • জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে বিশ্ব এনেস্থেসিয়া দিবস পালিত
  • খাদ্য উৎপাদনে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের রোল মডেল
  • র‌্যাগিংয়ের শিকার হলে নালিশ করুন, বিচার হবে: আইনমন্ত্রী
  • সড়ক ব্যবহারের ক্ষেত্রে সকলকে যত্নবান হওয়ার পরামর্শ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার
  • রাষ্ট্রপতির সাথে প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ
  • সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ ডেকেছে ঐক্যফ্রন্ট
  • বুয়েটে সন্ত্রাস-সাম্প্রদায়িকতা রুখে দেয়ার শপথ
  • একাদশ জাতীয় সংসদের পঞ্চম অধিবেশন শুরু ৭ নভেম্বর
  • কানাইঘাটে ১১টি ভারতীয় গরু আটক
  • সিলেটে বন বিভাগের পুনঃঅরণ্যায়নসহ ১০ প্রকল্প
  • আবারো সক্রিয় হয়ে উঠেছে পাথরখেকোরা
  • প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে বাবা ও চাচারাই শিশু তুহিনকে খুন করে
  • স্বাস্থ্য, শিক্ষা, শিশুমৃত্যু ও জীবনমানের ক্ষেত্রে সিলেট নগরী অনেক এগিয়ে
  • মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, উত্তীর্ণ ৪৯,৪১৩
  • গাইবান্ধার রঞ্জু মিয়াসহ পাঁচজনের মৃত্যুদন্ড
  • ‘দৃষ্টিহীন বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মানুষের সহায়তায় সকলকে এগিয়ে আসতে হবে’
  • আজ বিশ্ব খাদ্য দিবস
  • Developed by: Sparkle IT