প্রথম পাতা চলতি মাসেই শুরু হবে খনন কাজ

সাড়ে ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে পুনঃখনন হচ্ছে খাজাঞ্চী-মাকুন্দা নদী

প্রকাশিত হয়েছে: ১১-১০-২০১৯ ইং ০৪:৩১:৫৮ | সংবাদটি ২৩৬ বার পঠিত
Image

এমদাদুর রহমান মিলাদ, বিশ্বনাথ(সিলেট) থেকে ঃ বিশ্বনাথ উপজেলার মধ্যদিয়ে প্রবাহিত খাজাঞ্চী-মাকুন্দা নদী পুনঃখননের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে নদীর ২৮ কিলোমিটার অংশে শীঘ্রই শুরু হবে খনন কাজ। পুনঃখনন প্রকল্পের দায়িত্বপ্রাপ্ত দুটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান চলতি মাসেই খনন কাজ শুরু করবে এমনটাই জানিয়েছেন সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী।
জানা যায়, সিলেট সদর উপজেলার পশ্চিম সীমান্ত ও বিশ্বনাথ উপজেলার উত্তরপূর্ব সীমান্ত লামাকাজী ইউনিয়নের তিলকপুর এলাকায় সুরমা নদী থেকে খাজাঞ্চী-মাকুন্দা নদীর উৎপত্তি। পরে নদীটি জগন্নাথপুর উপজেলায় কুশিয়ারা নদীতে মিলিত হয়েছে। উপজেলার তিলকপুর থেকে শুরু হয়ে খাজাঞ্চী গাঁও, ফুলচন্ডি, রাজাগঞ্জ বাজার ও আশুগঞ্জ বাজার হয়ে পুরান রাজাগঞ্জ বাজার পর্যন্ত প্রবাহিত নদীটি ‘খাজাঞ্চী নদী’ হিসেবে এবং পুরান রাজাগঞ্জ বাজার থেকে বৈরাগী বাজার, সিংগেরকাছ বাজার ও টুকের বাজার হয়ে জগন্নাথপুরের রসুলগঞ্জ বাজারের পাশ দিয়ে কুশিয়ারা নদীতে মিলিত নদীর অপর অংশটি ‘মাকুন্দা নদী’ হিসেবে খ্যাত।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, এক কালে খর¯্রােতা এই নদী প্রচন্ড স্রোতস্বীনি ছিল। নদীর পার্শ্ববর্তী এলাকার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম ছিল এই নদী। চলাচল করতো লঞ্চ ও পাল তোলা নৌকা। কিন্ত ক্রমশ পলিতে নদী ভরাট হয়ে যাওয়ায় কালের আবর্তে তা আজ হারিয়ে গেছে। পানির অভাবে দু’পারে সেচ কাজ মারাত্মক ভাবে ব্যাহত হচ্ছে। নদীতে পানি না থাকায় মাছ শিকারের উপর নির্ভরশীল অসংখ্য পরিবার দুর্ভোগে পড়ে। বর্তমানে নদীটি ‘মরা গাঙ’ হিসেবে পরিচিত। ভরাট হয়ে যাওয়া নদীর অধিকাংশে চাষাবাদ, খেলার মাঠ ও গোচারণ ভূমি হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এদিকে, নদীর নাব্যতা কমে যাওয়ায় প্রতি বছর বর্ষায় পাহাড়ি ঢল সরাসরি পার্শ্ববর্তী বাড়ি ঘরে আঘাত হানে। ভাসিয়ে নিয়ে যায় ক্ষেতের ফসল, বাড়িঘর ও গাছপালা। এই অবস্থা থেকে বাঁচাতে এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে নদী পুনঃখননের উদ্যোগ গ্রহণ করে কর্তৃপক্ষ।
পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, দু’টি ভাগে খাজাঞ্চী-মাকুন্দা নদী পুনঃখনন করা হচ্ছে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে প্রকল্পের দরপত্র আহবান করা হয়। নদীর ২৮ কিলোমিটার অংশ পুনঃখননে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ কোটি ৪৬ লাখ টাকা। এর মধ্যে ৭ কোটি ৫৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নদীর উৎসমুখ তিলকপুর থেকে নদীর (১ম অংশ) ১৫ কিলোমিটার খননের দায়িত্ব পেয়েছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এসএ এসআই ইসরাত এন্টারপ্রাইজ জেবি এবং ৫ কোটি ৯৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নদীর পরবর্তী (২য় অংশ) ১৩ কিলোমিটার খননের দায়িত্ব পেয়েছে মেসার্স পূবালি এন্টারপ্রাইজ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। ইতিমধ্যে নদীর সীমানা চিহ্নিত করা হয়েছে। প্রথম অংশে মোট ৪ লাখ ৬৫ হাজার ঘনমিটার এবং দ্বিতীয় অংশে ৩ লাখ ২৮ হাজার ঘনমিটার মাটি কাটা হবে। খননকৃত মাটি দিয়ে নদীর তীর সংরক্ষণ এবং খননকৃত মাটি বৃষ্টির পানিতে ভিজে যাতে নদীতে না পড়ে সেজন্য ঘাস লাগানোরও প্রকল্পে নির্দেশনা রয়েছে। এছাড়া যেখানে নদীর তলদেশ খনন করা হবেনা, সে স্থান হিসাবের আওতায় আসবেনা। যদিও গত মার্চ মাসে খনন কাজ শুরু করার নির্দেশনা থাকলেও এখনো তা শুরু হয়নি। তবে সিলেট পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শহিদুজ্জামান দৈনিক সিলেটের ডাককে বলেন, বন্যার কারণে প্রকল্পের সময় মতো পুনঃখনন কাজ শুরু করা সম্ভব হয়নি। চলতি মাসেই খনন কাজ শুরু করা হবে।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • এসএসসির ফল প্রকাশের ব্রিফিংয়ের সময় পরিবর্তন
  • ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর অবস্থা ‘স্থিতিশীল’
  • জৈন্তাপুরে বন্যপ্রাণি হত্যার ঘটনায় বন আইনে মামলা
  • মৌলভীবাজারের হলিমপুরে ইতালী প্রবাসীর স্ত্রীর আত্মহত্যা
  • ৬ মাসের ভাড়া মওকুফের দাবীতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মানববন্ধন
  • নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে ২২ জন, ছাড়পত্র পেয়েছেন ২৫ জন
  • মৃত্যু ৩ লাখ ৬৪ হাজার, আক্রান্ত ৫৯ লাখের বেশি
  • ট্রেনের সব টিকিট অনলাইনে, বাড়ছে না ভাড়া
  • একদিনে আক্রান্ত ১৭৬৪ জন, মৃত্যু ২৮
  • বিয়ানীবাজারে নতুন আরো দু’জনের করোনা শনাক্ত
  • করোনার কাছে হার মানলেন শামসুদ্দিনের নার্সিং কর্মকর্তা রুহুল আমিন
  • শান্তিরক্ষী দিবসে শেখ হাসিনাকে আন্তোনিও গুতেরেসের শুভেচ্ছা
  • যে ১২ শর্তে রোববার থেকে চলবে বাস
  • সিলেট নতুন ৩১ জনের করোনা শনাক্ত
  • ছাতকের দু’পক্ষের সংঘর্ষে শিশুসহ আহত ২৫
  • চুনারুঘাটে ২৫ কেজি গাঁজা উদ্ধার
  • কমলগঞ্জে ত্রাণের দাবিতে পরিবহন শ্রমিকদের মানববন্ধন
  • ভারতীয় নাগরিকদের হাতে মাধবপুরের যুবক খুন : ৬ দিন পর লাশ হস্তান্তর
  • মাধবপুরে শুক্কুর আলী নিহতের ঘটনায় মামলা : গ্রেফতার ২
  • সুনামগঞ্জে নতুন করে হোম কোয়ারেন্টাইনে ৩৬ জন
  • Image

    Developed by:Sparkle IT