প্রথম পাতা রোপা আমন আবাদ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫২০৬ হেক্টর বেশি

কৃষকরা ভালো ফলনের স্বপ্নে বিভোর

প্রকাশিত হয়েছে: ১৪-১০-২০১৯ ইং ০২:৫২:৫৪ | সংবাদটি ১২৯ বার পঠিত

পরিসংখ্যানে চার জেলায় রোপা আমনের আবাদ সিলেটে ১৪১৩৬০ মৌলভীবাজারে ১০০১৫০ হবিগঞ্জে ৭৯১১৫ ও সুনামগঞ্জে ৮১৩৮৭ হেক্টর
সিলেট অঞ্চলে মাঠ জুড়ে রোপা আমন ধানের পাতা বাতাসে দুলছে। গত কয়েক দিনের বৃষ্টিপাতে সবুজ পাতার চাকচিক্যতা আরো গাঢ় হয়েছে। এতে কিছুটা হলেও প্রশান্তি এসেছে ঘর্মাক্ত কৃষকের মনে। তাঁরা এখন ভালো ফলনের স্বপ্নে বিভোর।
এবার এ অঞ্চলে রোপা আমন ধানের আবাদ লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে শুধু বেশি হয়নি, প্রাকৃতিক বিপর্যয় না হলে বাম্পার ফলনেরও সম্ভাবনা রয়েছে। এলক্ষ্যে কৃষি কর্মকর্তারা মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের নানাভাবে উদ্বুদ্ধ করার চেষ্টা করছেন। কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, মধ্য নভেম্বর থেকে স্বল্প জীবনকাল সম্পন্ন ধান কর্তন শুরু হয়ে ডিসেম্বর মাসব্যাপী চলবে। ধান গোলায় তুলতে কৃষকরা সেভাবে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন।
জানা যায়, সিলেট অঞ্চলে চলতি মৌসুমে ৩ লক্ষ ৯৬ হাজার ৮০৬ হেক্টর জমিতে রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। কিন্তু আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় শেষ পর্যন্ত ৪ লক্ষ ২ হাজার ১২ হেক্টর জমিতে রোপা আমন ধান আবাদ হয়েছে। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫২০৬ হেক্টর বেশি। এছাড়া, গত মৌসুমের চেয়ে এবার ৬২৬৯ হেক্টর বেশি জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে। গত বছর একই সময়ে এর পরিমাণ ছিল ৩ লক্ষ ৯৫ হাজার ৭৪৩ হেক্টর। সবমিলিয়ে সিলেট ব্যতীত অপর সব জেলাগুলোতে গতবারের চেয়ে এবার রোপা আমনের আবাদ বৃদ্ধি পেয়েছে।
সিলেট অঞ্চলে এবার রোপা আমনের ভালো ফলনের লক্ষ্যে কৃষি বিভাগ নড়চড়ে উঠেছে। কৃষি কর্মকর্তারা আলোক ফাঁদ তৈরি, নিয়মিত আগাছা পরিষ্কার, সুষম সার প্রয়োগ, পারচিং বা ক্ষেতের মধ্যে ডালপালা পোঁতা, ক্ষেতের পানি ঘাড়তি পূরণসহ বিভিন্ন কৌশল কৃষকদের শিখাতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন। এ ব্যাপারে সিলেটের উপসহকারি কৃষি অফিসার সৈয়দ আব্দুস সবুর সিলেটের ডাক’কে জানান, ধানক্ষেতে ক্ষতিকারক পোকা-মাকড় চিহ্নিত এবং তাদের দমন করতে আলোক ফাঁদ তৈরি করা হয়। এজন্য প্রত্যেক এলাকায় কৃষি কর্মকর্তারা ফাঁদ তৈরি শিখাতে কৃষকদের দলগতভাবে প্রশিক্ষণ দিয়ে উদ্বুদ্ধ করছেন। তিনি আরো বলেন, ধান ক্ষেতের মধ্যে পারচিং বা ডালপালা পোঁতা হলে তাতে পাখিরা বসতে সুবিধা হয়। এছাড়া সহজেই তারা ক্ষেতের পোকা-মাকড় কম সময়ে বেশি ভক্ষণ করতে পারে। ফলে কৃষকরা বেশি উপকৃত হন।
বিয়ানীবাজারের দাসউরা গ্রামের প্রান্তিক চাষি আব্দুর রহমান অনেকটা ক্ষোভের সুরে বলেন, আমরা কৃষিক্ষেত করে আর বাঁচতে পারব না। কয়েক মাস হলো, বোরো ধান বেশি পেলেও ফরিয়াদের কারণে ন্যায্য দাম পাইনি। এখন কষ্ট করে রোপা আমন চাষ করেছি। খুব ভালো হয়েছে, ধান ঘরে তুলতে পারলে এবং ন্যায্য দাম পেলে অনেক অনেক খুশি হবো।
সম্প্রতি কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের চূড়ান্ত এক প্রতিবেদনে দেখা গেছে, সিলেট জেলায় এবার রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লক্ষ ৪০ হাজার ১৮৫ হেক্টর। এরমধ্যে উফশী ৯২ হাজার ৪৪১ এবং স্থানীয় জাতের ৪৭ হাজার ৭৪৪ হেক্টর। তবে, চূড়ান্ত আবাদ হয়েছে উফশী ৯৮ হাজার ৪২৫ এবং স্থানীয় জাতের ৪২ হাজার ৯৩৫ হেক্টর। অর্থাৎ এক লক্ষ ৪১ হাজার ৩৬০ হেক্টর যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১১৭৫ হেক্টর বেশি জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে।
এর মধ্যে সিলেট সদরে লক্ষ্যমাত্রা ৯২৫০ হলেও আবাদ হয়েছে ৯৩৬০ হেক্টর, দক্ষিণ সুরমায় ৯৩৫০ এর স্থলে ৯৫৫৯ হেক্টর, গোয়াইনঘাটে ১৫১৫০ এর স্থলে ১৫৭০০ হেক্টর, বালাগঞ্জে ১৬৫৪৫ এর স্থলে ১৫৭১৬ হেক্টর, কোম্পানীগঞ্জে ৯৯৫০ এর স্থলে ৯২২০ হেক্টর, বিশ্বনাথে ১৩১৮৯ এর স্থলে ১৩০১০ হেক্টর, ফেঞ্চুগঞ্জে ৫৩১১ এর স্থলে ৫২০০ হেক্টর, গোলাপগঞ্জে ১১২৬৫ এর স্থলে ১১৪০০ হেক্টর, জৈন্তাপুরে ১০৮৪৫ এর স্থলে ১১৪১০ হেক্টর, কানাইঘাটে ১৫৭৮০ এর স্থলে ১৫৬২৫, জকিগঞ্জে ১৪৩৬৫ এর স্থলে ১৫৯০০ হেক্টর, বিয়ানীবাজারে ৯১৫৫ এর স্থলে ৯২৪০ হেক্টর এবং সিলেট মেট্রোপলিটন এলাকায় লক্ষ্যমাত্রা ৩০ এর স্থলে ২৯ হেক্টর জমিতে রোপা আমান আবাদ হয়েছে। গত বছর একই সময়ে আবাদের পরিমাণ ছিল এক লক্ষ ৪১ হাজার ৪৩০ হেক্টর। সবমিলিয়ে এবার সিলেট জেলায় গতবারের চেয়ে ৭০ হেক্টর কম জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে। কৃষি বিভাগ এর কারণ হিসেবে, বাসা-বাড়ি ও ইন্ডাস্ট্রি নির্মাণকে দায়ি করেছে।
মৌলভীবাজার জেলায় লক্ষ্যমাত্রা ছিল ১ লক্ষ ১ হাজার ৪৫৬ হেক্টর। এরমধ্যে উফশী ৯৯ হাজার ৮৭৩ হেক্টর এবং স্থানীয় জাতের ১৫৮৩ হেক্টর। তবে, চূড়ান্ত আবাদ হয়েছে উফশী ৯৮ হাজার ৪৮৬ এবং স্থানীয় জাতের ১৬৬৪ হেক্টর। অর্থাৎ ১ লক্ষ ১৫০ হেক্টর যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৩০৬ হেক্টর বেশি। গত বছর একই সময়ে আবাদের পরিমাণ ছিল ৯৭ হাজার ৯৮৫ হেক্টর। তুলনামূলকভাবে এবার মৌলভীবাজারে গতবারের চেয়ে ২১৬৫ হেক্টর বেশি জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে।
একইভাবে হবিগঞ্জ জেলায় এবার রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৮ হাজার ৯২১ হেক্টর। এরমধ্যে উফশী ৭৫ হাজার ৯৪৬ হেক্টর এবং স্থানীয় জাতের ২৯৭৫ হেক্টর। কিন্তু চূড়ান্ত আবাদ হয়েছে উফশী ৯৬ হাজার ৪৩০ হেক্টর এবং স্থানীয় জাতের ২৬৮৫ হেক্টর। অর্থাৎ ৭৯ হাজার ১১৫ হেক্টর যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৯৪ হেক্টর বেশি। গত বছর একই সময়ে আবাদের পরিমাণ ছিল ৭৮ হাজার ১৪৫ হেক্টর। যা গতবারের চেয়ে ৯৭০ হেক্টর বেশি জমিতে আবাদ হয়েছে।
তেমনিভাবে, সুনামগঞ্জ জেলায় এবার রোপা আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ৭৬ হাজার ২৪৪ হেক্টর। এরমধ্যে উফশী ৫৯ হাজার ৪৪০ হেক্টর এবং স্থানীয় জাতের ১৮ হাজার ৮০৪ হেক্টর। তবে, চূড়ান্ত আবাদ হয়েছে উফশী ৬৪ হাজার ৫১৫ হেক্টর এবং স্থানীয় জাতের ১৬ হাজার ৮৭২ হেক্টর। অর্থাৎ ৮১ হাজার ৩৮৭ হেক্টর যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫ হাজার ১৪৩ হেক্টর বেশি। গত বছর একই সময়ে ৭৮ হাজার ১৮৩ হেক্টর জমিতে আবাদ হয়েছিল, যা গতবারের চেয়ে ৩ হাজার ২০৪ হেক্টর বেশি আবাদ হয়েছে।
সার্বিক বিষয়ে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সিলেট অঞ্চলের উপ-পরিচালক মজুমদার মোঃ ইলিয়াস বলেন, আমাদের আশার চেয়ে রোপা আমনের আবাদ বেশি হয়েছে। এখন পর্যন্ত ধান ক্ষেতের অবস্থা খুবই ভালো। কৃষি কর্মকর্তারা প্রতিনিয়ত ধানের পরিচর্যা করতে কৃষকদের নানাভাবে উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছেন। তিনি আরো বলেন, অসময়ে বন্যা কিংবা প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এবার রোপা আমন ধানের ভালো ফলন হবে।

শেয়ার করুন
প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • সিলেট বিভাগে গতবারের চেয়ে কম ৪০ হাজার ৬৮৯ পরীক্ষার্থী
  • পেঁয়াজ নিয়ে হৈ চৈ ॥ দাম ১৮০-২২০ টাকা সবজির দাম স্থিতিশীল
  • আজ থেকে ইবতেদায়ী সমাপনী পরীক্ষা শুরু
  • দুবাই পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
  • আগামী দু’দিনের মধ্যে পেঁয়াজ ভর্তি বিমান পৌঁছবে
  • আগামী দু’দিনের মধ্যে পেঁয়াজ ভর্তি বিমান পৌঁছবে প্রধানমন্ত্রীর আশাবাদ
  • মওলানা ভাসানীর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ
  • সিটি কর্পোরেশনের পরিধি বাড়লে উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ গঠনের সুযোগ সৃষ্টি হবে
  • সৌদি থেকে ফিরলেন নির্যাতিত সেই সুমি
  • দক্ষিণ সুরমায় ১১টি মোবাইলসহ চার ছিনতাইকারী গ্রেফতার
  • দেশকে এগিয়ে নিতে অর্থনৈতিক উন্নয়নের পাশাপাশি প্রয়োজন সাংস্কৃতিক গণজাগরণ .... ড. এ কে আব্দুল মোমেন
  • সিলেট অঞ্চলে রোপা আমন ধান কর্তনে ব্যস্ত কৃষক
  • ছড়ারপারের একটি কলোনি থেকে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
  • মুজিববর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা মোদি
  • পেঁয়াজ সিন্ডিকেটের সাথে সরাসরি মন্ত্রী-এমপি জড়িত : রিজভী
  • ঘুষ লেনদেনে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে বাংলাদেশ!
  • এখনই নেতৃত্বে আসতে ‘চান না’ জয়: কাদের
  • রাষ্ট্রপতি দেশে ফিরেছেন
  • প্রধানমন্ত্রী দুবাই এয়ারশেতে যোগ দিতে আমিরাত যাচ্ছেন আজ
  • তূর্ণার ট্রেনচালক ও সহকারী চালককে দায়ী করা হয়েছে
  • Developed by: Sparkle IT