শেষের পাতা আটাবের আইএসএস পদ্ধতি বিষয়ক কর্মশালা

আগামী ১৫ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত দেশের কাতারে চলে যাবে ------আবুল মাল আবদুল মুহিত

স্টাফ রিপোর্টার প্রকাশিত হয়েছে: ২২-১০-২০১৯ ইং ০৩:৪৬:৫২ | সংবাদটি ১৫৮ বার পঠিত
Image

 সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, বাংলাদেশ উন্নয়নের যে ধারায় অগ্রসর হচ্ছে, তাতে আগামী ২০৩০ থেকে ২০৩৫ সালের মধ্যে আমরা উন্নত দেশের লক্ষ্য অর্জন করতে সক্ষম হবো। এই সময়ের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নত ২৫টি দেশের তাদের কাতারে চলে যাবে। গতকাল সোমবার এসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশ আটাব ও ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট এসোসিয়েশন (আইএটিএ) এর উদ্যোগে আয়োজিত ‘নিউ জেনারেশন পদ্ধতি (আইএসএস) চালুকরণ বিষয়ক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।
বিকলে ৩টায় নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে আয়োজিত কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আটাব বাংলাদেশের সভাপতি মঞ্জুর মুর্শেদ মাহবুব, আইএটিএ’র বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার পারভেজ ইব্রাহিম, আটাব বাংলাদেশের মহাসচিব আব্দুস সালাম আরেফ। আটাব সিলেট অঞ্চলের সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আটাব বাংলাদেশ-এর সভাপতি এস এন মঞ্জুর মোর্শেদ, সহ-সভাপতি আসলাম খান, মহাসচিব আব্দুস সালাম আরেফ, আইএটিএ-এর বাংলাদেশের ব্যবস্থাপক পারভেজ ইব্রাহীম, বিসিসিবি’র পরিচালক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। আইএটিএ নিউ জেনারেশন আইএসএস চালুকরণ বিষয়ক কর্মশালায় বিষয়ভিত্তিক আলোচনা উপস্থাপন করেন আইএটিএ সিংগাপুরের কনসালটেন্ট কাস্টমার সার্ভিস জাহিদুল করিম।
বাংলাদেশ বিগত ১০ বছরে অসাধারণ দ্রুত গতিতে এগিয়ে গেছে উল্লেখ করে সাবেক অর্থমন্ত্রী বলেন, আমাদের পরিচয় ছিল ভিক্ষুক। সেখান থেকে আমরা এখন রোল মডেলে পরিণত হয়েছি। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার একটি বিষয়েই মনোযোগ ছিল তা হলো জনগণের কল্যাণ। সে লক্ষ্যে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপ জনগণের মনপুত হয়েছে বলে জনগণ উন্নতি করতে সক্ষম হয়েছে।
প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে আরো বলেন, আমরা সহায়তা নির্ভরশীল দেশ ছিলাম। সহায়তা চাওয়ার জন্য আমাদের দাতাদের নিকট যেতো হতো। এখন তারা আমাদের দেশে আসে। এখন যেটা সহায়তা তা সম্পূর্ণ বাণিজ্যিক। আমাদের উন্নয়নকে দুই ভাগে ভাগ করা যায় উল্লেখ করে প্রধান অতিথি বলেন, বঙ্গবন্ধু ও তার কন্যা এবং অপরাংশ। বঙ্গবন্ধু সাড়ে ৩ বছরে দেশ পুনঃগঠনের একটি প্রক্রিয়া শুরু করে গেছেন। এরপর ১৬ বছর সামরিক শাসন ছিল-যা ছিল জঙ্গি শাসন। ফলে উন্নয়নের গতিকে সীমাবদ্ধ করে দেয়। বিনা রক্তপাতে আমরা আবারো গণতন্ত্রে ফিরে আসি। এর পর অর্থনীতি মন্থর গতিতে ছিল। কিন্তু, বর্তমান সরকারের সময় ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছে। তিনি বলেন, নি¤œ আয়ের দেশ থেকে আমরা এখন মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি। হতভাগার দেশ থেকে অনুকরণীয় দেশে পরিণত হয়েছি-যা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বের গুণে।
আমাদের মানুষ অত্যন্ত পরিশ্রমী উল্লেখ করে তিনি বলেন, কৃষি জমি এক তৃতীয়াংশ হ্রাস পেয়েছে। তারপরও উৎপাদন ৪ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। শাকসবজি উৎপাদনেও আমরা এখন বিশ্বের শীর্ষস্থানীয়। মৎস্য উৎপাদনে আমরা এখন বিশ্বে ৪র্থ। এভাবে প্রত্যেক ক্ষেত্রে আমাদের জনগণের প্রচেষ্টা, উদ্যম-উদ্যোগ অসাধারণ। তিনি বলেন, আমাদের যে উন্নয়ন তার কৃতিত্ব আমাদের জনগণের। আমরা পলিসি বা নীতি নির্ধারণ করে দিয়েছি। জনগণ তা বাস্তবায়ন করেছেন। ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনাকে বাস্তবায়ন হয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নের সাথে সাথে আকাশ পথে ভ্রমণ দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই এই ক্ষেত্রে উন্নত সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করতে হবে। কর্মশালায় সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত ব্যবসায়ীরা অংশ গ্রহণ করেন।
কর্মশালায় জানানো হয়, সকল ট্রাভেলস এজেন্সির গো স্ট্যান্ডার্ড লাইসেন্স ছিল। এখন নিউ জেনারেশন পদ্ধতির কারণে সেটি ৩ ক্যাটাগরির করা হয়েছে। গো স্ট্যান্ডার্ড, গো লাইন ও গো ওয়ার্ল্ড। গোলাইনার পদ্ধতি গ্রহণ করলে আমাদের আগের মতো ৩০ লক্ষ টাকা কোন জামানত দিতে হবে না। গো স্ট্যান্ডার্ড পদ্ধতি থাকলে জামানত লাগবে। তবে এর চেয়ে বেশি টিকেট ক্রয় করতে হলে কার্ডের মাধ্যমে বা আএটিএ ইজি পে এর মাধ্যমে টিকেট ক্রয় করা যাবে।
তারা জানান, এর ফলে সকল আটাব সদস্য বিমানের টিকেট ইস্যুকরণের দীর্ঘদিনের দাবি পূরণ হতে যাচ্ছে। এজন্য এখনো যারা আটাবের সদস্য হননি- তারা আগামী ১৬ নভেম্বরের মধ্যে জামানত ছাড়া সদস্য হতে পারবেন। তারা বলেন, সৌদি আরবে হজ্জ ও উমরাহ ভিসার ক্ষেত্রে ৩০ লক্ষ টাকা জামানত বাধ্যতামূলক করেছে। তাই জামানত ছাড়া কাজ করতে হলে এখনই আটাবের মাধ্যমে অন্তর্ভুক্ত হতে হবে।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, আটাবের সাবেক নির্বাহী সদস্য জুন্নুন মাহমুদ চৌধুরী, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। আটাব সিলেটের সভাপতি আব্দুল জব্বার জলিলের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিঙ্গাপুরে এশিয়া অঞ্চলের নিউ জেনারেশন(আইএসএস) বিষয়ক বিশেষজ্ঞ জাহেদুর করিম রনি।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • তিলপাড়া ইউনিয়নে বিয়ানীবাজার থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকে’র আর্থিক সহায়তা প্রদান
  • জগন্নাথপুরে নলজুর সেতুর সংযোগ সড়ক উদ্বোধন
  • বিয়ানীবাজারের ৪ ইউনিয়নে থানা জনকল্যাণ সমিতি ইউকের আর্থিক সহায়তা প্রদান
  • যুক্তরাজ্য বিএনপির উদ্যোগে পূর্ব লন্ডনের নিউহ্যাম হসপিটালের এনএইচএস ষ্টাফদের জন্য খাদ্য বিতরণ
  • সিলেটে ৮৫০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেছে দক্ষিণ সুরমা সমাজ কল্যাণ সমিতি
  • ওয়ার্ল্ড বিডি হিউম্যান হেল্প এসোসিয়েশনের কমিটি গঠিত
  • রাধাকান্ত দেবনাথের শ্রাদ্ধানুষ্ঠান আজ
  • ব্যবসায়ী গৌসুল আলম গেদু’র ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
  • মাধবপুরের আবাবিল সোসাইটির ত্রাণ বিতরণ
  • করোনায় অসহায় ১৮১ পরিবারের পাশে প্রজন্ম প্রত্যাশা
  • হাতিম চৌধুরী ইসলামিয়া হাফিজিয়া দাখিল মাদ্রাসার কৃতজ্ঞতা প্রকাশ
  • শাল্লায় কমিউনিস্ট পার্টির হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ
  • আরও একশ পরিবারে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দিল বন্ধন সমাজ কল্যাণ যুব সংঘ
  • অসহায় পরিবারদের উপহার সামগ্রী দিল সিলেট জেলা ছাত্রলীগ
  • মাধবপুরে সুরমা চা বাগানে ত্রাণ বিতরণ
  • সিলেটে ১শ’ পরিবারের ১মাসের ভরণপোষণের দায়িত্ব নিলেন ব্যবসায়ী গৌসুল আলম
  • রোটারী ক্লাব অব গ্র্যান্ড সিলেট-এর ত্রাণ সহায়তা পেল নগরীর শতাধিক পরিবার
  • সিলেটে দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের পাশে বৃটেনের ইষ্টহ্যান্ড
  • কোম্পানীগঞ্জে ঠিকাদার ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
  • বিয়ানীবাজারে প্রবাসীদের অনুদান পেলেন দু’শতাধিক পরিবার
  • Image

    Developed by:Sparkle IT