প্রথম পাতা

ওমর ফারুক ও তার পরিবারের ব্যাংক লেনদেন স্থগিত

ডাক ডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে: ২২-১০-২০১৯ ইং ০৪:০৪:৩৭ | সংবাদটি ১৯৮ বার পঠিত
Image

সংগঠনের নেতাদের ক্যাসিনোকা-ে যুবলীগের চেয়ারম্যানের পদ হারানো ওমর ফারুক চৌধুরীর সব ব্যাংক হিসাবের লেনদেন বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাবের পাশাপাশি তার দুই ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবের লেনদেনও স্থগিত করা হয়েছে। স্থগিত করা হয়েছে তার স্ত্রী ও তিন সন্তানের ব্যাংক হিসাবের লেনদেনও।
অর্থাৎ এখন তারা তাদের ব্যাংক হিসাবে কোনো টাকা তুলতে কিংবা স্থানান্তর করতে পারবেন না। যুবলীগের চেয়ারম্যানের পদ থেকে ওমর ফারুককে অব্যাহতি দেওয়ার পরদিনই তার ব্যাংক হিসাব লেনদেন বন্ধের বিষয়টি প্রকাশ পেল। জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চিঠির পরিপেক্ষিতে ব্যাংকগুলো ওমর ফারুকসহ সংশ্লিষ্টদের ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিত করেছে বলে জানিয়েছেন এনবিআরের চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।
তিনি বলেন, “বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের ব্যাংক হিসাব তলব করেছিল। তার ধারাবাহিকতায় ব্যাংক হিসাবের লেনদেন স্থগিত করতে বলা হয়েছে।”
ব্যাংকগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে এনবিআর বলেছে, ওমর ফারুক চৌধুরী, তার স্ত্রী শেখ সুলতানা রেখা, ছেলে আবিদ চৌধুরী, মুক্তাদির আহমেদ চৌধুরী ও ইশতিয়াক আহমেদ চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব থেকে কোনো টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করা যাবে না।
তাদের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান লেক ভিউ প্রোপার্টিজ ও রাও কনস্ট্রাকশনের ব্যাংক হিসাবের লেনদেনও স্থগিত থাকবে।
এর আগে ৩ অক্টোবর ওমর ফারুকের ব্যাংক হিসাব তলব করে বাংলাদেশ ব্যাংক। তার নামে থাকা সব হিসাবের লেনদেনের তথ্য পাঠাতে ব্যাংকগুলোকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট।
গত মাসে র‌্যাবের অভিযানে ঢাকার ক্রীড়া ক্লাবগুলোতে অবৈধ ক্যাসিনো পরিচালনায় আওয়ামী লীগের যুব সংগঠনটির নেতাদের জড়িত থাকার বিষয়টি প্রকাশ্য হলে চাপের মুখে পড়েন ওমর ফারুক। আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিমের ভগ্নিপতি ওমর ফারুক শুরুতে র‌্যাবের অভিযানের কড়া সমালোচনা করলেও পরে চুপ মেরে যান।
তারপর থেকে যুবলীগের কোনো কার্যক্রমেও ওমর ফারুককে দেখা যাচ্ছিল না। গত রোববার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে গণভবনে যুবলীগের বৈঠকে ওমর ফারুককে চেয়ারম্যানের পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। এসব ঘটনায় আলোচনায় থাকা ওমর ফারুক সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমকে বলেছিলেন, তিনি বিদেশে যাবেন না।
“পালাবার কোনো কারণ তো নেই। আমি পালিয়ে যাবার লোক না। রাজনীতি করি। রাজনীতি করতে গেলে ভুলভ্রান্তি থাকতেই পারে। আমি কোনো অপরাধ করিনি যে আমাকে পালিয়ে যেতে হবে।” গ্রেপ্তার হলে আদালতেই নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারবেন বলে মনে করেন ওমর ফারুক।
ক্যাসিনোকা-ে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, সহসভাপতি এনামুল হক আরমান, সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূইয়াকে গ্রেপ্তার হয়ে এখন কারাগারে রয়েছেন। তারা যুবলীগ থেকেও বহিস্কৃত হয়েছেন। গ্রেপ্তার করা হয় যুবলীগ নেতা পরিচয় দিয়ে আসা প্রভাবশালী ঠিকাদার জি কে শামীমকেও।

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

প্রথম পাতা এর আরো সংবাদ
  • সিকৃবিতে ৪র্থ সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা উঠছে আজ
  • মধুশহীদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের তদন্ত অনুষ্ঠিত
  • আবারো করোনা ‘পজিটিভ’ মাশরাফি
  • করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফি তুলে দেওয়ার দাবি বিএনপির
  • সারাদেশে ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট বন্ধের হুমকি
  • দেড় কোটির বেশি পরিবারকে সরকারি ত্রাণ সহায়তা প্রদান
  • রাজধানীর ওয়ারী’তে ২১ দিনের লকডাউন শুরু
  • বাড়িওয়ালাদের সদয় হতে ওবায়দুল কাদেরের আহ্বান
  • সিলেট বিভাগে কোভিড-১৯ আক্রান্তের সংখ্যা
  • ভারত-চীন উত্তেজনার মধ্যেই লাদাখ সফরে মোদি
  • যুক্তরাজ্যের বর্ষসেরা চিকিৎসক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফারজানা বিলবোর্ডে ছবি টানিয়ে সম্মানীত
  • দ্রুতই বিশ্ব পেতে পারে করোনার কার্যকরী ঔষধ : বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
  • ছয় দফার পক্ষে দলিল প্রস্তুতিতে অবদান ছিল ড. ওয়াহিদুল হকের : পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  • বিএনপি নেতা এনামুলকে ঢাকায় প্রেরণ
  • সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের শেরপুর ও কাগজপুর সেতু বন্ধ, বিকল্প রাস্তা ব্যবহারের অনুরোধ
  • দোয়ারাবাজারে দুর্ভোগে বানভাসি মানুষ
  • পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষরোপণের কোন বিকল্প নাই : এমএ মান্নান
  • সিলেটে করোনায় মৃত্যুর মিছিল বাড়ছে
  • দেশে করোনায় মৃত্যু ২ হাজার ছুঁইছুঁই
  • রাজনগরে বিশিষ্ট ব্যবসায়ী দেওয়ান হাসানাত মজিদ ইসমতের ইন্তেকাল
  • Image

    Developed by:Sparkle IT