শেষের পাতা রিসার্চ ফেলোশিপ পেলেন সেলিম আউয়াল

সাংবাদিকতার পাশাপাশি সিলেট প্রেসক্লাব গবেষণার ওপর জোর দিচ্ছে --------------আবুল মাল আবদুল মুহিত

স্টাফ রিপোর্টার প্রকাশিত হয়েছে: ০৬-১১-২০১৯ ইং ০২:৪৮:২৪ | সংবাদটি ১১৯ বার পঠিত

 প্রখ্যাত লেখক-গবেষক ও সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সিলেট প্রেসক্লাব বেশ পুরনো ও ঐতিহ্যে সমৃদ্ধ প্রতিষ্ঠান। সাংবাদিকতার পাশাপাশি সাম্প্রতিক সময়ে এই ক্লাব গবেষণার ওপর জোর দিচ্ছে, এটি খুবই তাৎপর্যপূর্ণ।
গতকাল মঙ্গলবার সিলেট প্রেসক্লাব প্রবর্তিত সাংবাদিকতা বিষয়ে ফেলোশিপ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘স্বাধীনতাপূর্ব সিলেটের সাংবাদিকতা ও সিলেট প্রেসক্লাব’ শীর্ষক গবেষণাকর্মের জন্য এবারের ফেলোশিপ দেয়া হয় লেখক, গবেষক সেলিম আউয়ালকে। বাংলা সংবাদপত্র প্রকাশনার ২শ’ বছর পূর্তিতে সিলেট প্রেসক্লাব এ ফেলোশিপ প্রবর্তন করে।
সিলেট প্রেসক্লাবের সভাপতি ইকরামুল কবিরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল মাহমুদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন-বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক সদস্য নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আতফুল হাই শিবলী।
প্রেসক্লাবের আমীনূর রশীদ চৌধুরী মিলনায়তনে আয়োজিত ফেলোশিপ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আবুল মাল আবদুল মুহিত আরো বলেন, সিলেট প্রেসক্লাব উপযুক্ত মানুষকে ফেলোশিপ প্রদান করেছে। সেলিম আউয়ালের সাহিত্য, সাংবাদিকতা ও গবেষণায় সমান দখল রয়েছে। সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, সবসময় যে ফেলোশিপ দিতে হবে তা নয়, যখনই দেয়া হবে যাতে উপযুক্ত মানুষের হাতে দেয়া হয়। আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, রিসার্চ ফেলোশিপ প্রদানের মাধ্যমে সিলেটের সাংবাদিকতায় একটি নবযুগের সূচনা হলো। এ গৌরবের মুহূর্তে শরীক হতে পেরে তিনি আনন্দিত বলে মন্তব্য করেন আবুল মাল আবদুল মুহিত। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমদ সেলিম ও দৈনিক সিলেটের ডাক এর নির্বাহী সম্পাদক গবেষক আবদুল হামিদ মানিক।
অনুভূতি প্রকাশ করেন ফেলোশিপপ্রাপ্ত সাংবাদিক সেলিম আউয়াল ও তার পরিবারের পক্ষে তার কন্যা সিলেট উইমেন্স মেডিকেল কলেজের ইন্টার্ন চিকিৎসক ডা. নাদিরা নুসরাত মাশিয়াত। শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন ক্লাব সদস্য লুৎফুর রহমান তোফায়েল। অনুষ্ঠানে সেলিম আউয়ালের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে ফেলোশিপ সনদ, সম্মানী তুলে দেন প্রধান অতিথি।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে নর্থইস্ট ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. আতফুল হাই শিবলী বলেন, ফেলোশিপ প্রদান সিলেট প্রেসক্লাবের এক যুগান্তকারী উদ্যোগ। সেলিম আউয়ালের এই গবেষণা এক সময়ে ঐতিহাসিক কর্ম হিসেবে বিবেচিত হবে। তিনি বলেন সততা না থাকলে ভালো সাংবাদিক হওয়া যায় না। রাজনৈতিক লেজুড়বৃত্তি থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকতায় মনোনিবেশ করলে কেউ কখনো খালি হাতে ফিরবে না। তথ্য পরিবেশনে সচেতন হলেই ইতিহাসে জায়গা করে নেয়া যাবে।
সেলিম আউয়াল অনুভূতি প্রকাশ করতে গিয়ে বলেন, উপমহাদেশে বাংলা সংবাদপত্র প্রকাশের ১৩ বছরের মাথায় সিলেটের গৌরীশঙ্কর ভট্টাচার্য কলকাতায় সংবাদপত্র সম্পাদনা করেছেন। এইভাবে সিলেটের মানুষ সাংবাদিকতায় গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক অবদান রেখেছেন।
সভাপতির বক্তব্যে ইকরামুল কবির বলেন, সিলেট প্রেসক্লাবের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল এক ইতিহাস। সেই ইতিহাসকে লিপিবদ্ধ করার মতো দু:সাহসিক কাজ সাংবাদিক সেলিম আউয়াল সম্পন্ন করেছেন। এই গবেষণার মাধ্যমে সেলিম আউয়াল সিলেটের সাংবাদিকতার ইতিহাসে নিজেকে যুক্ত করেছেন এক অনন্য কর্মে।
২০১৮ সালে প্রথমবারের মতো সিলেট প্রেসক্লাব ফেলোশিপ প্রবর্তন করা হয়। এ ফেলোশিপের গবেষণার বিষয় ছিল ‘স্বাধীনতা পূর্ব সিলেটের সাংবাদিকতা ও সিলেট প্রেসক্লাব।’ প্রেসক্লাবের সহযোগী সদস্য সেলিম আউয়াল প্রায় দুই বছরব্যাপী কাজ করে ১৬টি প্রবন্ধে এ গবেষণা সম্পন্ন করেন। তার গবেষণা প্রবন্ধগুলো বিভিন্ন সময় স্থানীয় দৈনিক সিলেটের ডাকে প্রকাশিত হয়েছে। সম্প্রতি তার এ গবেষণাটি সিলেট প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটি অনুমোদন করে। মঙ্গলবার আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে ফেলোশিপ সনদ প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিক-কলামিস্ট আফতাব চৌধুরী, বাংলাদেশ সিএনজি এন্ড পেট্রোল পাম্প ওনার্স এসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব জুবায়ের আহমদ চৌধুরী, প্রেসক্লাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি এনামুল হক জুবের, সহ-সভাপতি এম এ হান্নান, সাবেক সহ-সভাপতি আতাউর রহমান আতা ও মুহাম্মদ আমজাদ হোসাইন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মো. বশির উদ্দিন, সমরেন্দ্র বিশ্বাস সমর ও মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, সিনিয়র সাংবাদিক আব্দুর রাজ্জাক, আরটিভির সিনিয়র রিপোর্টার কামকামুর রাজ্জাক রুনু, প্রেসক্লাবের সাবেক কোষাধ্যক্ষ খালেদ আহমদ, সাবেক ড্রাগ সুপার ডা. এম এ জলিল চৌধুরী, বাংলাদেশ ব্যাংকের যুগ্ম পরিচালক মো. জাবেদ আহমদ ও উপ পরিচালক আমিনুল ইসলাম, দৈনিক সিলেটের ডাকের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ওয়াহিদুর রহমান ওয়াহিদ, প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক নূর আহমদ, পাঠাগার ও প্রকাশনা সম্পাদক খালেদ আহমদ, কার্যনির্বাহী সদস্য দিগেন সিংহ, প্রেসক্লাব সদস্য আব্দুল বাতিন ফয়সল, মো. আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, মুহাম্মদ তাজ উদ্দিন, মো. মঈন উদ্দিন মনজু, মো. আব্দুল মুকিত অপি, মো. দুলাল হোসেন, শেখ আশরাফুল আলম নাসির, কাউসার চৌধুরী, প্রবাসী সাংবাদিক আকবর হোসেন, প্রাবন্ধিক বেলাল আহমদ চৌধুরী, কবি নাঈমা চৌধুরী, ইসমত হানিফা চৌধুরী, আলেয়া রহমান, রোকসানা চৌধুরী, নাসরিন চৌধুরী প্রমুখ।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • মানবকল্যাণমূলক শিক্ষাই প্রকৃত শিক্ষা
  • সম্মিলিত নাট্য পরিষদের একুশের অনুষ্ঠান ভোরে একুশের প্রভাতফেরী
  • রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজে বঙ্গবন্ধু’র মুর‌্যাল উদ্বোধন কাল
  • কোম্পানীগঞ্জের ১১৭ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নেই
  • ২৫ ফেব্রুয়ারী থেকে দেশের অধিকাংশ এলাকায় বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে
  • দক্ষিণ সুনামগঞ্জের কাউয়াজুরী হাওরের ৬ টি ভাঙ্গা অরক্ষিত ১০ হাজার হেক্টর বোরো ফসল হুমকিতে
  • মৌলভীবাজারে ৬৬৬টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার নেই
  • সলুকাবাদ ইউপির চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন ২৯ মার্চ
  • কোরআন সত্য ও সুন্দরের পথ দেখায় ------শাহ নজরুল ইসলাম
  • সোমবারের মধ্যে ১০০০ কোটি টাকা দিতে হবে গ্রামীণফোনকে
  • একুশে পদক হস্তান্তর করলেন প্রধানমন্ত্রী
  • সিলেট বোর্ডে গতকালের পরীক্ষায় অনুপস্থিত ৩৩৮ পরীক্ষার্থী
  • ছাতকে দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী ও নবীগঞ্জে নারীর মৃত্যু
  • জকিগঞ্জে লক্ষাধিক ভারতীয় রুপিসহ ৩ সহোদর আটক কারাগারে প্রেরণ
  • দোয়ারাবাজারে ২৪ ঘন্টায় দু’টি লাশ !
  • বালাগঞ্জে ভূমি নিয়ে সংঘর্ষ ॥ আহত ৪
  • রাজনগরে মাদ্রাসা শিক্ষক অজ্ঞান পার্টির খপ্পড়ে তিন লাখ টাকা লুট
  • ছবি
  • মাঝ আকাশে দুই বিমানের সংঘর্ষ, নিহত ৪
  • ১০০ কোটি দিতে চাইলো গ্রামীণফোন ফিরিয়ে দিলো বিটিআরসি
  • Developed by: Sparkle IT