শেষের পাতা

পঞ্চগড়ে মিনিবাস-অটো সংঘর্ষে ৭ জনের প্রাণহানি

প্রকাশিত হয়েছে: ০৯-১১-২০১৯ ইং ০২:৪৩:৪৭ | সংবাদটি ২৭ বার পঠিত

ডাক ডেস্ক : পঞ্চগড়ের তেতুলিয়া উপজেলায় একটি মিনিবাসের সঙ্গে সংঘর্ষে এক অটোরিকশার চালকসহ সাতজনের প্রাণ গেছে। জেলার পুলিশ সুপার মো. ইউসুফ আলী জানান, উপজেলার পঞ্চগড়-তেতুলিয়া মহাসড়কের মাগুরমাড়ি চৌরাস্তায় গতকাল শুক্রবার বেলা দেড়টার দিকে এ দুর্ঘটনায় নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।
পুলিশ সুপার বলেন, “তেতুলিয়ার ভজনপুর থেকে সদরের জগদলমুখী একটি অটোরিকশার সঙ্গে বিপরীতমুখী একটি যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। “এতে আটোরিকশার পাঁচজন ঘটনাস্থলেই মারা যান। বাকিদের আহত অবস্থায় উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারাও মারা যান।”
নিহতদের মধ্যে তিনজন নারী চারজন পুরুষ রয়েছে বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান। নিহতরা হলেন, পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান মাঝিপাড়া এলাকার নবদম্পতি লাবু ইসলাম (২৯) ও মুক্তি বেগম (১৯), সদর উপজেলার সুরিভিটা এলাকার আকবর আলী (৭০) ও তার স্ত্রী নুরিমা বেগম (৫৫), একই উপজেলার অমরখানা ইউনিয়নের চেকরমারি এলাকার ইজিবাইক চালক রফিক (২৮), সাতমেরা ইউনিয়নের রায়পাড়া এলাকার ফরহাদ হোসেন মাকুদ (৪৫) এবং সাহেবজোত এলাকার আকবর আলীর স্ত্রী নার্গিস আক্তার (৪২)।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, জেলা শহর থেকে কাজী ব্রাদাসের যাত্রীবাহী বাসটি তেঁতুলিয়া যাচ্ছিল। মাগুরমারি এলাকায় একটি ছাগলকে পাশ কাটাতে গিয়ে বাসটি বিপরীত দিক থেকে আসা ইজিবাইকটিকে ধাক্কা দিলে ইজিবাইকটি দুমড়ে মুচড়ে যায়। এক পর্যায়ে ইজিবাইকটি বাসের চাকায় পিস্ট হয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই ইজিবাইকের মধ্যে থাকা দুই দম্পতিসহ চালক মারা যান। গুরুতর আহত অবস্থায় অন্য দুইজনকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে তারাও মারা যান। মহাসড়কে ইজিবাইকের সাত যাত্রীর সকলেই নিহতের ঘটনায় বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন স্থানীয় লোকজন। তারা দুই ঘণ্টার বেশি সময় মহাসড়ক অবরোধ করে রাখেন এবং বিক্ষোভ করেন।
এ সময় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের গাড়িও যেতে দেয়া হয়নি। পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের উপরও চড়াও হন স্থানীয়রা। এ দুর্ঘটনার জন্য হাইওয়ে পুলিশের অবহেলাকে দায়ী করছেন স্থানীয়রা। এ সময় পুলিশের উপর ইটপাটকেল ছুড়েন স্থানীয়রা। তাদের সঙ্গে স্থানীয় বিক্ষুব্ধদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়াও হয়। এদিকে ঘটনার পরপর পুলিশ সুপার ইউসুফ আলী ও জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন ঘটনাস্থলে গিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে প্রধান করে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। পাশাপাশি নিহত প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা করে নগদ সহায়তার ঘোষণা দেন জেলা প্রশাসক।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • হবিগঞ্জে ট্রেনের নিচে মাইক্রোবাস
  • কুলাউড়া উপজেলা আ’লীগের সম্মেলন
  • দলের সভানেত্রীর নির্দেশ মোতাবেক সকল কমিটি গঠন করা হবে
  • কুলাউড়ায় আ’লীগের সম্মেলনে মনসুরকে এক হাত নিলেন মিসবাহ
  • লিডিং ইউনিভার্সিটির সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে আরসিসি ও স্টিল স্ট্রাকচার বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত
  • সিলেটে আয়কর মেলা ১৪-২০ নভেম্বর
  • মহারাসলীলা আজ
  • সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা আজ
  • উপজেলা ও পৌর নেতৃবৃন্দকে নিয়ে জেলা বিএনপি’র পরামর্শ সভা আজ
  • বিমানেই চলে গেলেন না ফেরার দেশে
  • শিক্ষার্থীদের উস্কানিদাতাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর
  • জাউয়ায় দু’পক্ষের সংঘর্ষে আহত ৪০
  • ভারতের বিপক্ষে শেষ টি-টোয়েন্টি খেলতে নামছে বাংলাদেশ
  • সিলেট-ভোলাগঞ্জ সড়কে চালু হলো বিআরটিসি’র দোতলা বাস সার্ভিস
  • ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে : মন্ত্রী ইমরান আহমদ
  • ২১১.৭২ কোটি টাকা মুনাফা অর্জন
  • দুর্নীতিবাজ ও মাদকাসক্তদের আওয়ামী লীগে ঠাঁই দেয়া হবেনা ...আহমদ হোসেন
  • বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ব্যানারে বের করা মিছিল ছত্রভঙ্গ করে দিয়েছে পুলিশ
  • নবীজির জীবনদর্শনে নিহিত ব্যক্তি ও সমাজ জীবনের পরিপূর্ণ আদর্শ
  • শাবিতে ১২ নভেম্বর থেকে ভর্তি
  • Developed by: Sparkle IT