শেষের পাতা আগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বহাল রেখে কোম্পানীগঞ্জ আ’লীগের কাউন্সিল সম্পন্ন

ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে : মন্ত্রী ইমরান আহমদ

কোম্পানীগঞ্জ থেকে নিজস্ব সংবাদদাতা প্রকাশিত হয়েছে: ১০-১১-২০১৯ ইং ০২:৩৫:৪৬ | সংবাদটি ১৩৪ বার পঠিত

আওয়ামী লীগকে আবর্জনামুক্ত করতে হবে : আহমদ হোসেন
বঙ্গবন্ধুর আদর্শের রাজনীতি করতে হবে : মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ


২০০৩ সালের পর অনুষ্ঠিত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে উপজেলা আওয়ামী লীগের আগের কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বহাল থাকলেন। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ এ ঘোষণা দেন। সভাপতি পদে আগের কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আলী আমজদ ও সাধারণ সম্পাদক পদে ফিরে এলেন তেলিখাল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ আপ্তাব আলী কালা মিয়া। সম্মেলন নিয়ে গত কিছুদিন ধরে কোম্পানীগঞ্জে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করছিল। গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় সভাপতি-সম্পাদকের নাম ঘোষণার মাধ্যমে শেষ হয় উপজেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল। মঞ্চে ফিরে নেতারা ঘোষণা দিলেন পূর্বের কমিটির সভাপতি আর সাধারণ সম্পাদক বহাল। এরপর এই দুই পদে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মধ্য থেকে জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ জয়নাল আবেদীনকে এক নম্বর সহ-সভাপতি, কাজী আব্দুল ওয়াদুদ আলফু মিয়া, হুমায়ুন কবির মছব্বির, মোঃ আব্দুল ওয়াদুদ ও মোঃ রফিকুল হককে সহ-সভাপতি ঘোষণা করা হয়। আগের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ জাহাঙ্গীর আলমকে এক নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেখে উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অখিল চন্দ্র বিশ্বাস ও উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইয়াকুব আলীকে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়। এছাড়া সাংগঠনিক সম্পাদক পদে এক নম্বরে এডভোকেট হাবিবুর রহমান ভুট্টোকে রেখে উপজেলা চেয়ারম্যান শামীম আহমদ ও এডভোকেট মোঃ শাহজাহান চৌধুরীকে দ্বিতীয় ও তৃতীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ঘোষণা করা হয়।
এর আগে সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মাঠে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ও সিলেট-৪ আসনের এমপি মোঃ ইমরান আহমদ। জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে সম্মেলনের শুরু হয়। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন।
উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আলী আমজদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আপ্তাব আলী কালা মিয়ার পরিচালনায় সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য প্রদান করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ শফিকুর রহমান চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মোঃ লুৎফুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী কয়েছ এমপি, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আলী দুলাল, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এডভোকেট মোঃ মাহফুজুর রহমান, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা সাদ উদ্দিন আহমদ, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক রণজিত সরকার, উপ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ জগলু চৌধুরী, জকিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য লোকমান আহমদ চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মোঃ নুরুল আমিন ও এডভোকেট মোঃ আজমল আলী প্রমুখ।
সম্মেলনের উদ্বোধকের বক্তৃতায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ বলেন, যারা আওয়ামী লীগের দুর্দিনে সামনের কাতারে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন, কাউন্সিলের মাধ্যমে সেসব ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করতে হবে। তিনি বলেন, সমঝোতা কিংবা আপসে নেতা নির্বাচন করা গেলে সবার জন্যই মঙ্গল হবে। তাতে সংঘাত-সংঘর্ষ এড়ানো যাবে। দলে বিভক্তি তৈরি হবে না। আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীর একজন নেতা হওয়া উচিত মন্তব্য করে ইমরান আহমদ বলেন, সমগ্র বিশ্বের নেতা শেখ হাসিনাই আমাদের নেতা। তিনি ছাড়া আমাদের আর কোন নেতা থাকা উচিত নয়। তিনি বলেন, যারা শেখ হাসিনার আদর্শ ও রাজনীতি পছন্দ করেন না, আওয়ামী লীগে তাদের প্রয়োজন নেই।
দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক প্রধান অতিথির বক্তব্যে বলেন, আওয়ামী লীগকে আবর্জনামুক্ত করতে হবে। ত্যাগী নেতাকর্মীদের নেতৃত্বের মাধ্যমেই দলকে এগিয়ে নিতে হবে। দুর্নীতিবাজ, দখলবাজ, চাঁদাবাজদের বয়কট করতে হবে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশকে এগিয়ে নিতে আওয়ামী লীগে ঐক্যবদ্ধ প্লাটফর্ম তৈরি করতে হবে। আজকের কাউন্সিলের মাধ্যমে দলের ত্যাগী নেতারা নেতৃত্বে আসবেন এটাই প্রত্যাশা করি।
কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ বলেন, জাতির পিতার আদর্শকে ধারণ করে রাজনীতি করতে হবে। নেতৃত্ব নির্বাচনেও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ যারা লালন করেন-তাদের মূল্যায়ন করতে হবে। কমিটিতে স্থান দেওয়ার ক্ষেত্রে দলের সঙ্গে সম্পৃক্ততা, গ্রহণযোগ্যতা এবং যে কাজটি তাকে দেওয়া হবে তা সে সঠিকভাবে পালন করতে পারবে কি না, দেখতে হবে।

শেয়ার করুন
শেষের পাতা এর আরো সংবাদ
  • বিয়ানীবাজারে আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি শিগগির
  • পদ্মা সেতুর ১৬তম স্প্যান স্থাপন
  • গৃহঋণের সর্বোচ্চ সীমা বেড়ে ২ কোটি টাকা
  • মীর নাছিরের ১৩, ছেলের ৩ বছরের সাজা হাই কোর্টে বহাল
  • গবেষণা ছাড়া কোন বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিকভাবে পরিপূর্ণ হয়না ---প্রফেসর ড. মো. কামরুজ্জামান চৌধুরী
  • সরকারের ব্যর্থতায় নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি হচ্ছে ----------- নাসিম হোসাইন
  • তারেক রহমানের জন্মদিন উপলক্ষে জেলা বিএনপির দোয়া মাহফিল আজ
  • মেয়রের অভিযানে হোটেল আজাদ সিলগালা ॥ আটক ১২
  • দেওয়ান ফরিদ গাজীর ৯ম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত
  • সিলেটে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে
  • মঈনুদ্দিন খান বাদল মুক্তিযুদ্ধের আদর্শের প্রশ্নে আপস করেননি
  • দলে ত্যাগী ও দক্ষ নেতাদের মূল্যায়ণ করা হয় ------এড. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ
  • ছয় দিনে ৩১ কোটি ৬০ লাখ টাকা আদায়
  • লিবিয়ায় বিমান হামলায় বাংলাদেশিসহ নিহত ৭
  • খালেদা জিয়ার জামিন বাধাগ্রস্ত করতে বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে
  • সিলেট-কোম্পানীগঞ্জ সড়কে এবার অটোরিক্সা ধর্মঘট
  • কিডনী রোগ থেকে বাঁচতে প্রয়োজন জনসচেতনতা ----রাশেদা কে চৌধুরী
  • রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ পরিদর্শনে শাবিপ্রবির পরিদর্শক দল
  • চারবারের জনপ্রতিনিধি এমপি মানিককে নিয়ে কটুক্তিকারী মুকুটকে দল থেকে বহিষ্কারের দাবি
  • গণফোরাম জেলা ও মহানগর আহবায়ক কমিটি অনুমোদন
  • Developed by: Sparkle IT