ইতিহাস ও ঐতিহ্য

চৌধূরী শব্দ ও প্রথার ইতিবৃত্ত

দেওয়ান মুফিদ রাজা চৌধূরী প্রকাশিত হয়েছে: ১৩-১১-২০১৯ ইং ০০:৪১:১০ | সংবাদটি ৬০৯ বার পঠিত
Image

চৌধূরী শব্দ ও প্রথার ব্যাপারে নানান জনের নানান মত। শব্দটির উৎপত্তি ও প্রথা সম্পর্কে অনেকের সঠিক ধারনা নেই। আমি বেশ কয়েকজনকে শব্দটির বুৎপত্তি গত অর্থ ও প্রথার উৎপত্তি সম্পর্কে বলেছিলাম। কিন্তু কেউই তা প্রকাশ করতে রাজি না। তাই আমি নিজেই লিখছি।
চে ফারসী বর্ণমালার অক্ষর থেকে চৌ-চার ও চৌ থেকে চৌথ শব্দের জন্ম হয়েছে। যার অর্থ এক চতুর্থাংশ অর্থাৎ চার ভাগের একভাগ। তার কারণ মোগল বাদশাহী আমল ছাড়া কোন রাজত্বে এভাবে চৌথ আদায়ের প্রথা ছিল না। এই চৌথ প্রথা বিশেষভাবে মোগল বাদশাহী আমলে প্রচলিত ছিল রাজাদের উপর। ব্রিটিশ সরকারের আমলে চৌথের প্রথা পরিবর্তন হয়ে ব্রিটিশ রাজস্ব বিভাগ হতে নির্ধারিত সদর খাজনা সাব্যস্থ হয়। তাই মোগল বাদশাহী আমলে চৌথ থেকে চৌধূরী উপাধি প্রবর্তন হয়েছে। চৌধূরী অর্থ সামন্ত অর্থাৎ অধীনস্থ রাজা।
বাদশাহী আমলের পূর্বে যে সকল রাজা রাজত্ব করতেন তাদের মধ্যে যারা বাদশার কাছে যুদ্ধে পরাজিত হতেন বা যে সকল রাজারা যুদ্ধ না করে আত্মসমর্পন করতেন, এই সকল রাজার রাজ্যের আয় কত, বাদশার রাজস্ব বিভাগে জানাতে বাদশার রাজস্ব বিভাগ কর্তৃক নির্দেশ দেওয়া হত। এই সকল অধীনস্থ রাজাদের রাজ্যের আয়ের হিসাব পেয়ে এই সকল অধীনস্থ রাজাদের উপর বাদশার রাজস্ব বিভাগ হতে চৌথ অর্থাৎ রাজ্যের আয়ের এক চতুর্থাংশ অর্থাৎ চারভাগের এক ভাগ চৌথ অর্থাৎ কর হিসাবে নির্ধারণ করা হত ও আদায় করা হত।
এই চৌথ আদায় করতে গিয়ে কোন কোন রাজার রাজ্যের আয়ের চার ভাগের এক ভাগ টাকা বা রাজ্যের উৎপন্ন ফসলের চার ভাগের এক ভাগ চৌথ অর্থাৎ কর হিসাবে আদায় করা হত। আবার কোন কোন রাজাদের কাছ থেকে রাজ্যের আয়ের চার ভাগের এক ভাগ চৌথ অর্থাৎ করের পরিবর্তে সমমূল্যের নৌকা-ঘোড়া বা হাতি দেওয়ার আদেশ দেওয়া হত।
যে সকল অধীনস্থ রাজাদের উপর বাদশার আদেশকৃত হুকুম নির্ধারণ করা হত অর্থাৎ যে সকল অধীনস্থ রাজারা বাদশার চৌথ ধুরীণ (ভার বহন করা) অর্থাৎ চৌথের ভার বহন করতেন এই সকল অধীনস্থ রাজাদের চৌধূরী বলা হত অর্থাৎ এই সকল অধীনস্থ রাজাদের উপাধি চৌধূরী ছিল। চৌধূরীদের স্ত্রীকে চৌধূরানী বলা হত। ব্রিটিশ সরকারের একমাত্র উপাধি ছিল বাহাদুর যথা : খান বাহাদুর, রায় বাহাদুর।

 

শেয়ার করুন

ফেসবুকে সিলেটের ডাক

ইতিহাস ও ঐতিহ্য এর আরো সংবাদ
  • বালাগঞ্জের বাতিঘর বাংলাবাজার উচ্চ বিদ্যালয়
  • বঙ্গবন্ধু ও গান্ধীজী
  • সিলেটের দ্বিতীয় সংবাদপত্রের সম্পাদক ছিলেন ‘মেশিনম্যান’
  • একটি যুদ্ধ : একটি শতাব্দী
  • বালাগঞ্জের প্রাচীন জনপদ শিওরখাল গ্রাম
  • ভাটিপাড়া
  • সময়ের সোচ্চার স্বর সোমেন চন্দ
  • বঙ্গবন্ধুর সিলেট সফর ও কিছু কথা
  • বায়ান্নতেই লিখেছিলেন ‘ঢাকাই কারবালা’
  • জীবনের শেষক্ষণে অর্থ-স্বর্ণ সবই জড়পদার্থ
  • কমরেড বরুণ রায়
  • বঙ্গবন্ধু ও রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন
  • নারী ভাষাসৈনিকদের কথা
  • মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবীর ওসমানী
  • ভাটির বাতিঘর সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজ
  • মাওয়ের লংমার্চের ৪ বছর পর সিলেটিদের লং মার্চ
  • শহীদ মিনারের ইতিকথা
  • সিলেটের লোকসংগীত : ধামাইল
  • পর্যটক ইবনে বতুতার কথা
  • বই এল কোথা থেকে?
  • Image

    Developed by:Sparkle IT